ঢাকা , সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
বাংলাদেশে কোটা আন্দোলনে হত্যার প্রতিবাদে পর্তুগালে বিক্ষোভ করেছে বাংলাদেশী প্রবাসীরা প্রিয়জনদের মানসিক রোগ যদি আপনজন বুঝতে না পারেন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ও অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে পর্তুগাল আওয়ামীলীগ যেকোনো প্রচেষ্টা এককভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব নয়: দুদক সচিব শ্রীমঙ্গলে দুটি চোরাই মোটরসাইকেল সহ মিল্টন কুমার আটক পর্তুগালের অভিবাসন আইনে ব্যাপক পরিবর্তন পর্তুগাল বিএনপি আহবায়ক কমিটির জুমে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয় এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর

সুদের হার কমল রপ্তানি ঋণে

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০৭:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯
  • / ৩৯৫ টাইম ভিউ

রপ্তানি উন্নয়ন তহবিলের (ইডিএফ) আকার বাড়ানোর পর এবার এ তহবিলের ঋণের সুদের হার কমাল কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এখন রপ্তানিকারকরা লন্ডন আন্তঃব্যাংক হারের (লাইবর) সঙ্গে ১ দশমিক ৫০ শতাংশ সুদে ব্যাংক থেকে এ ঋণ নিতে পারবেন, যার জন্য আগে লন্ডন আন্তঃব্যাংক হারের (লাইবর) সঙ্গে ২ দশমিক ৫০ শতাংশ সুদ দিতে হতো। ব্যাংকগুলোর জন্যও ইডিএফ তহবিলের ঋণের সুদের হার কমানো হয়েছে।

রপ্তানি বাণিজ্য বাড়াতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংকের এক প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়েছে। এ তহবিল থেকে অর্থ নিতে আগে ব্যাংকগুলোকে লন্ডন আন্তঃব্যাংক হারের (লাইবর) সঙ্গে আরো ১ শতাংশ সুদ দিতে হতো। এটা কমিয়ে দশমিক ৫০ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে।

এই সুদহার আগামী বছর ৩০ জুন পর্যন্ত কার্যকর থাকবে বলে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি রপ্তানি উন্নয়ন তহবিলের আকার ৫০ কোটি ডলার বাড়িয়ে ৩৫০ কোটি ডলার করা হয়। রপ্তানি খাতে সহায়তা দিতে ১৯৮৯ সালে মাত্র তিন কোটি ডলার দিয়ে ইডিএফের যাত্রা শুরু হয়। দফায় দফায় বাড়িয়ে এই তহবিলের পরিমাণ এখন ৩৫০ কোটি ডলারে দাঁড়িয়েছে।

ব্যাংকগুলো কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ইডিএফ থেকে ঋণ নিয়ে সেই অর্থ আবার রপ্তানিকারকদের দিয়ে থাকে। এ তহবিলের ঋণের হার সাধারণ ঋণের হারের চেয়ে বেশ কম বলে রপ্তানিকারক এই ফান্ড থেকে ঋণ নিতে চান। বিজিএমইএ বা বিটিএমএর সদস্য বস্ত্র বা তৈরি পোশাকের একজন রপ্তানিকারক তহবিলটি থেকে সর্বোচ্চ আড়াই কোটি (২৫ মিলিয়ন) ডলার ঋণ নিতে পারেন।

এ ছাড়া চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, সিরামিক, ওষুধসহ বিভিন্ন খাতের রপ্তানিকারকরাও এ তহবিল থেকে ঋণ সুবিধা পেয়ে থাকে।

পোস্ট শেয়ার করুন

সুদের হার কমল রপ্তানি ঋণে

আপডেটের সময় : ০৭:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯

রপ্তানি উন্নয়ন তহবিলের (ইডিএফ) আকার বাড়ানোর পর এবার এ তহবিলের ঋণের সুদের হার কমাল কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এখন রপ্তানিকারকরা লন্ডন আন্তঃব্যাংক হারের (লাইবর) সঙ্গে ১ দশমিক ৫০ শতাংশ সুদে ব্যাংক থেকে এ ঋণ নিতে পারবেন, যার জন্য আগে লন্ডন আন্তঃব্যাংক হারের (লাইবর) সঙ্গে ২ দশমিক ৫০ শতাংশ সুদ দিতে হতো। ব্যাংকগুলোর জন্যও ইডিএফ তহবিলের ঋণের সুদের হার কমানো হয়েছে।

রপ্তানি বাণিজ্য বাড়াতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংকের এক প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়েছে। এ তহবিল থেকে অর্থ নিতে আগে ব্যাংকগুলোকে লন্ডন আন্তঃব্যাংক হারের (লাইবর) সঙ্গে আরো ১ শতাংশ সুদ দিতে হতো। এটা কমিয়ে দশমিক ৫০ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে।

এই সুদহার আগামী বছর ৩০ জুন পর্যন্ত কার্যকর থাকবে বলে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি রপ্তানি উন্নয়ন তহবিলের আকার ৫০ কোটি ডলার বাড়িয়ে ৩৫০ কোটি ডলার করা হয়। রপ্তানি খাতে সহায়তা দিতে ১৯৮৯ সালে মাত্র তিন কোটি ডলার দিয়ে ইডিএফের যাত্রা শুরু হয়। দফায় দফায় বাড়িয়ে এই তহবিলের পরিমাণ এখন ৩৫০ কোটি ডলারে দাঁড়িয়েছে।

ব্যাংকগুলো কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ইডিএফ থেকে ঋণ নিয়ে সেই অর্থ আবার রপ্তানিকারকদের দিয়ে থাকে। এ তহবিলের ঋণের হার সাধারণ ঋণের হারের চেয়ে বেশ কম বলে রপ্তানিকারক এই ফান্ড থেকে ঋণ নিতে চান। বিজিএমইএ বা বিটিএমএর সদস্য বস্ত্র বা তৈরি পোশাকের একজন রপ্তানিকারক তহবিলটি থেকে সর্বোচ্চ আড়াই কোটি (২৫ মিলিয়ন) ডলার ঋণ নিতে পারেন।

এ ছাড়া চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, সিরামিক, ওষুধসহ বিভিন্ন খাতের রপ্তানিকারকরাও এ তহবিল থেকে ঋণ সুবিধা পেয়ে থাকে।