ঢাকা , রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে… এই অভ্যাসগুলোর চর্চা নিয়মিত করা উচিৎ স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য থাকা জরুরি কেনো ? পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা

রায় রোহিঙ্গাদের পক্ষে আসায় ক্যাম্পে দোয়া মাহফিল

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০৯:২৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২০
  • / ৬৬১ টাইম ভিউ

নেদারল্যান্ডসের হেগের আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) রোহিঙ্গাদের পক্ষে রায় হওয়ায় শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) জুমার নামাজ শেষে মসজিদে মসজিদে বিশেষ দোয়া মাহফিল করেছে কক্সবাজারের আশ্রিত রোহিঙ্গারা। এতে গাম্বিয়া ও বাংলাদেশের সরকার, জনগনের প্রতি কৃতজ্ঞা প্রকাশ করে আল্লাহর কাছে বিশেষ দোয়া করেন।

রোহিঙ্গা নেতারা জানান, ‘বৃহস্পতিবার রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগ সংক্রান্ত মামলায় চারটি অন্তর্বর্তীকালীন আদেশ দিয়েছেন জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালত ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস (আইসিজে)। এটি দৃষ্টান্তমূলক রায় হয়েছে। তারা জুমার নামাজে দোয়ায় মিয়ানামারের বিরুদ্ধে দেওয়া আদেশ যাতে দ্রুত বাস্তবায়ন হয় তার জন্য দোয়া কামনা করেন। পাশাপাশি আন্তর্জাতিকভাবে মিয়ানমারের উপর আরও বেশি চাপ বাড়ানোর দাবি জানান। যাতে অধিকার নিয়ে নিজ দেশে দ্রুত ফিরে যেতে পারেন।

এদিকে মিয়ানমারে রোহিঙ্গা গণহত্যার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে শুক্রবার জুমা নামাজের পর উখিয়ার কতুপালং, লম্বাশিয়া, টেকনাফের শালবন, নয়াপাড়া, জামিদুরা ও লেদাসহ বেশকিছু ক্যাম্পের মসজিদ, স্কুল ও মাদ্রাসায় বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে শত শত রোহিঙ্গা নাগরিক অংশ নিয়েছেন।’

বাংলাদেশ ও গাম্বিয়াকে ধন্যবাদ জানিয়ে টেকনাফের লেদা রোহিঙ্গা শিবিরের ডেভলেম্যন্ট কমিটির সভাপতি মোহামদ আলম বলেন, ‘রোহিঙ্গা গণহত্যার দায়ে আইসিজে আদালতে দেওয়া রায়ে রোহিঙ্গাদের স্বপ্ন বাস্তবায়নের প্রথম ধাপ অতিক্রম করেছে। এই রায়ে শুকরিয়া জানিয়ে তার শিবিরের মসজিদে-মসজিদে বিশেষ দোয়া মাহফিল হয়েছে। এতে আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করেছি যেন আরাকানের রোহিঙ্গা ও স্বজনদের হত্যার সুবিচার পাই। পাশাপাশি বাংলাদেশ ও গাম্বিয়ার সরকার ও জনগনের জন্য দোয়া করা হয়।’

রোহিঙ্গা সংগঠন আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটস (এআরএসপিএইচ) ভাইচ চেয়ারম্যনি আবদুর রহিম বলেন, ‘কোনো কর্মসূচি পালনে অনুমতি না পাওয়ায় শিবিরের প্রত্যেক মসজিদ ও মাদ্রাসায় বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। দোয়াতে গাম্বিয়া ও বাংলাদেশের কৃতজ্ঞতা জানানো হয়।

পোস্ট শেয়ার করুন

রায় রোহিঙ্গাদের পক্ষে আসায় ক্যাম্পে দোয়া মাহফিল

আপডেটের সময় : ০৯:২৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২০

নেদারল্যান্ডসের হেগের আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) রোহিঙ্গাদের পক্ষে রায় হওয়ায় শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) জুমার নামাজ শেষে মসজিদে মসজিদে বিশেষ দোয়া মাহফিল করেছে কক্সবাজারের আশ্রিত রোহিঙ্গারা। এতে গাম্বিয়া ও বাংলাদেশের সরকার, জনগনের প্রতি কৃতজ্ঞা প্রকাশ করে আল্লাহর কাছে বিশেষ দোয়া করেন।

রোহিঙ্গা নেতারা জানান, ‘বৃহস্পতিবার রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগ সংক্রান্ত মামলায় চারটি অন্তর্বর্তীকালীন আদেশ দিয়েছেন জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালত ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস (আইসিজে)। এটি দৃষ্টান্তমূলক রায় হয়েছে। তারা জুমার নামাজে দোয়ায় মিয়ানামারের বিরুদ্ধে দেওয়া আদেশ যাতে দ্রুত বাস্তবায়ন হয় তার জন্য দোয়া কামনা করেন। পাশাপাশি আন্তর্জাতিকভাবে মিয়ানমারের উপর আরও বেশি চাপ বাড়ানোর দাবি জানান। যাতে অধিকার নিয়ে নিজ দেশে দ্রুত ফিরে যেতে পারেন।

এদিকে মিয়ানমারে রোহিঙ্গা গণহত্যার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে শুক্রবার জুমা নামাজের পর উখিয়ার কতুপালং, লম্বাশিয়া, টেকনাফের শালবন, নয়াপাড়া, জামিদুরা ও লেদাসহ বেশকিছু ক্যাম্পের মসজিদ, স্কুল ও মাদ্রাসায় বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে শত শত রোহিঙ্গা নাগরিক অংশ নিয়েছেন।’

বাংলাদেশ ও গাম্বিয়াকে ধন্যবাদ জানিয়ে টেকনাফের লেদা রোহিঙ্গা শিবিরের ডেভলেম্যন্ট কমিটির সভাপতি মোহামদ আলম বলেন, ‘রোহিঙ্গা গণহত্যার দায়ে আইসিজে আদালতে দেওয়া রায়ে রোহিঙ্গাদের স্বপ্ন বাস্তবায়নের প্রথম ধাপ অতিক্রম করেছে। এই রায়ে শুকরিয়া জানিয়ে তার শিবিরের মসজিদে-মসজিদে বিশেষ দোয়া মাহফিল হয়েছে। এতে আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করেছি যেন আরাকানের রোহিঙ্গা ও স্বজনদের হত্যার সুবিচার পাই। পাশাপাশি বাংলাদেশ ও গাম্বিয়ার সরকার ও জনগনের জন্য দোয়া করা হয়।’

রোহিঙ্গা সংগঠন আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটস (এআরএসপিএইচ) ভাইচ চেয়ারম্যনি আবদুর রহিম বলেন, ‘কোনো কর্মসূচি পালনে অনুমতি না পাওয়ায় শিবিরের প্রত্যেক মসজিদ ও মাদ্রাসায় বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। দোয়াতে গাম্বিয়া ও বাংলাদেশের কৃতজ্ঞতা জানানো হয়।