ঢাকা , মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা কুলাউড়ার হাজীপুরে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যার ১২ ঘন্টার মধ্যেই দুজন গ্রেফতার কুলাউড়ার হাজীপুর ইউনিয়নে প্রতিপক্ষের হামলায়  আছকির মিয়া (৫০)নিহত  হয়েছেন। বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বিএনপির আহবায়ক কমিটির অভিষেক ও পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত। সিলেট বিভাগের শ্রেষ্ঠ মাদ্রাসা প্রধান নির্বাচিত হলেন অধ্যক্ষ মাওলানা বশির আহমদ মুসলিম কমিউনিটি মৌলভীবাজার এর কমিটি গঠন

যুগল ভ্রমণ!

অনলাইন ডেস্ক :
  • আপডেটের সময় : ০৮:৪১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ জুন ২০১৭
  • / ১৩৪৮ টাইম ভিউ

আপনি খুব ঘুরে বেড়াতে ভালোবাসেন। কিন্তু আপনার সঙ্গীটি যদি হয় ঠিক তার উল্টো? কেন আপনি নানান জায়গায় ঘুরে বেড়ান, কিসে আপনার ভালো লাগা, কিসের টানে ছুটে যান ক’দিন পর পর এই বোঝাতে বোঝাতেই হয়ত কেটে যাবে অনেক সময়। পরস্পরের চাহিদার অমিলের কারণে বাড়বে মনোমালিন্য, ভুল বোঝাবুঝি। তার চেয়ে আপনার কেমন হয় আপনার সঙ্গী যদি হয় ভ্রমণ সঙ্গী? একসাথে ভ্রমণ শুরুর আগে ঠিক করে নিন কিছু বিষয়-   পরস্পরের পছন্দ জেনে নিন আপনি হয়ত পাহাড় ভালোবাসেন। কিন্তু আপনার সঙ্গীটি ভালোবাসেন বনের গহীনের রহস্য। আপনি ভালোবাসেন সমুদ্রের বিশালতা কিন্তু তার পছন্দ স্থাপত্যের অভিনব কারুকাজ। সবাই একই বস্তু থেকে আনন্দ পায় না। টা দোষের কিছু নয়। আগে থেকেই নিজের পছন্দ জানান। তার পছন্দকেও গুরুত্ব দিন।   দায়িত্ব ভ্রমণের সাথে জড়িয়ে থাকে অনেকগুলো কাজ। এগুলো ভাগ করে নিন। কে টিকেট কাটবে, কোন খরচটা কে দেবে, অফিসের ছুটি কিভাবে ম্যানেজ হবে এমন প্রতিটি বিষয় আগে থেকে ভাগ করে নিন। এতে কারও ওপর বাড়তি চাপ তৈরি হবে না।   ব্যক্তিগত সময়ের মূল্য আপনারা যুগল হলেও দু’জন আলাদা ব্যক্তি। তাই নিজস্ব সময়ের প্রয়োজন হতেই পারে। একসাথে ঘুরতে যেয়ে একজন অপরজনকে নিজের পছন্দমতো পরিচালনা করতে চাওয়ার মানসিকতা আপনার পুরো ভ্রমণের স্বাদটাই নষ্ট করে দিতে পারে। নিয়মের গন্ডি তো এই ব্যস্ত জীবনে আছেই। ভ্রমণটাকে রাখুন সব নিয়মের বাইরে।   একই গতিতে চলুন আপনার সঙ্গী আপনার মতো দ্রুতগামী নাও হতে পারে। সে হতে পারে আরামপ্রিয়! হয়ত অনেক ছবি তুলতে ভালোবাসেন তিনি, আপনি বাসেন না। এমন অনেক ছোটখাট অমিল থাকতে পারে আপনাদের। কোনভাবেই সঙ্গীকে হীনমন্যতায় না ফেলে তাকে সাহস দিন, উৎসাহ দিন। নিজের অযৌক্তিক বিরক্তিগুলোকে ২য় বার মিলিয়ে দেখুন। তাকেও বুঝিয়ে বলুন।   রাগ বয়ে বেড়াবেন না মনে রাখবেন, দৈনন্দিন জীবন সবসময়ের। আর ভ্রমণ স্বল্প সময়ের। এই স্বল্প সময় বাকি সময়ের আনন্দের খোঁড়াক। তাই এই সময়টাকে নষ্ট করবেন না। ঝটপট রাগ মিটিয়ে ফেলুন। তার জন্য প্রয়োজনে কিছু বিষয় ছাড় দিন।

পোস্ট শেয়ার করুন

যুগল ভ্রমণ!

আপডেটের সময় : ০৮:৪১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ জুন ২০১৭

আপনি খুব ঘুরে বেড়াতে ভালোবাসেন। কিন্তু আপনার সঙ্গীটি যদি হয় ঠিক তার উল্টো? কেন আপনি নানান জায়গায় ঘুরে বেড়ান, কিসে আপনার ভালো লাগা, কিসের টানে ছুটে যান ক’দিন পর পর এই বোঝাতে বোঝাতেই হয়ত কেটে যাবে অনেক সময়। পরস্পরের চাহিদার অমিলের কারণে বাড়বে মনোমালিন্য, ভুল বোঝাবুঝি। তার চেয়ে আপনার কেমন হয় আপনার সঙ্গী যদি হয় ভ্রমণ সঙ্গী? একসাথে ভ্রমণ শুরুর আগে ঠিক করে নিন কিছু বিষয়-   পরস্পরের পছন্দ জেনে নিন আপনি হয়ত পাহাড় ভালোবাসেন। কিন্তু আপনার সঙ্গীটি ভালোবাসেন বনের গহীনের রহস্য। আপনি ভালোবাসেন সমুদ্রের বিশালতা কিন্তু তার পছন্দ স্থাপত্যের অভিনব কারুকাজ। সবাই একই বস্তু থেকে আনন্দ পায় না। টা দোষের কিছু নয়। আগে থেকেই নিজের পছন্দ জানান। তার পছন্দকেও গুরুত্ব দিন।   দায়িত্ব ভ্রমণের সাথে জড়িয়ে থাকে অনেকগুলো কাজ। এগুলো ভাগ করে নিন। কে টিকেট কাটবে, কোন খরচটা কে দেবে, অফিসের ছুটি কিভাবে ম্যানেজ হবে এমন প্রতিটি বিষয় আগে থেকে ভাগ করে নিন। এতে কারও ওপর বাড়তি চাপ তৈরি হবে না।   ব্যক্তিগত সময়ের মূল্য আপনারা যুগল হলেও দু’জন আলাদা ব্যক্তি। তাই নিজস্ব সময়ের প্রয়োজন হতেই পারে। একসাথে ঘুরতে যেয়ে একজন অপরজনকে নিজের পছন্দমতো পরিচালনা করতে চাওয়ার মানসিকতা আপনার পুরো ভ্রমণের স্বাদটাই নষ্ট করে দিতে পারে। নিয়মের গন্ডি তো এই ব্যস্ত জীবনে আছেই। ভ্রমণটাকে রাখুন সব নিয়মের বাইরে।   একই গতিতে চলুন আপনার সঙ্গী আপনার মতো দ্রুতগামী নাও হতে পারে। সে হতে পারে আরামপ্রিয়! হয়ত অনেক ছবি তুলতে ভালোবাসেন তিনি, আপনি বাসেন না। এমন অনেক ছোটখাট অমিল থাকতে পারে আপনাদের। কোনভাবেই সঙ্গীকে হীনমন্যতায় না ফেলে তাকে সাহস দিন, উৎসাহ দিন। নিজের অযৌক্তিক বিরক্তিগুলোকে ২য় বার মিলিয়ে দেখুন। তাকেও বুঝিয়ে বলুন।   রাগ বয়ে বেড়াবেন না মনে রাখবেন, দৈনন্দিন জীবন সবসময়ের। আর ভ্রমণ স্বল্প সময়ের। এই স্বল্প সময় বাকি সময়ের আনন্দের খোঁড়াক। তাই এই সময়টাকে নষ্ট করবেন না। ঝটপট রাগ মিটিয়ে ফেলুন। তার জন্য প্রয়োজনে কিছু বিষয় ছাড় দিন।