আপডেট

x


মৌলভীবাজারে রাশেদা কে চৌধুরী যৌন হয়রানী রোধে সকল দপ্তরকেই একসাথে কাজ করার প্রয়োজন

রবিবার, ২৭ জানুয়ারি ২০১৯ | ৭:৩৬ অপরাহ্ণ | 864 বার

মৌলভীবাজারে রাশেদা কে চৌধুরী যৌন হয়রানী রোধে সকল দপ্তরকেই একসাথে কাজ করার প্রয়োজন

দেশদিগন্ত নিউজ ডেক্সঃ গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী বলেছেন, নারীদের সামাজিক মর্যাদা রক্ষায় সকলকে আরো সচেতনভাবে এগিয়ে আসতে হবে। পাশাপাশি বৈষম্য ও যৌন হয়রানী রোধে মেয়েদের পাশে দাঁড়াতে সকলকে আহবান করেন।
২৭জানুয়ারী রবিবার দুপুরে মৌলভীবাজার সার্কিট হাউজের মুন হলে অনুষ্ঠিত “এমপাওয়ারিং গার্লস সেলফ-প্রটেকশন এন্ড জাস্টিস” শীর্ষক কার্যক্রমের অংশীজনের সাথে মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
বিদ্যমান সরকারি বেসরকারি সুযোগ সুবিধা ব্যবহারের মাধ্যমে সমন্বিত প্রচেষ্টায় ঘরে বাইরে মেয়ে শিশু ও কিশোরীদের অযাচিত হয়রানী ও নির্যাতন প্রতিরোধের লক্ষ্যে কমিউনিটি রেডিও পল্লীকন্ঠ ও গণসাক্ষরতা অভিযান এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করে।
তিনি বলেন, জনপ্রতিনিধি, প্রশাসন, শিক্ষক, অভিভাবকসহ সর্বস্থরের সচেতন নাগরিকরা যৌন হয়রানী রোধে মেয়েদের সহযোগিতা করার জন্য কাজ করতে হবে। যৌন হয়রানী রোধে সরকার প্রদত্ত সুবিধা ও আইনের সুষ্ট প্রয়োগ ও বাস্তবায়নে সরকারের সকল দপ্তরকে একসাথে এগিয়ে না আসলে তার সুফল পাওয়া কষ্টকর। তাই এ বিষয়ে সকল দপ্তরের সহযোগিতার মন-মানুষিকতা সমন্বয় রাখার প্রয়োজন। সকলের সচেতনতা আর সম্মিলিত প্রচেষ্ঠাই সমাজ ও রাষ্ট্র থেকে যৌন হয়রানী নামক ব্যাধী বন্ধ হবে।
স্থানীয় রেডিও পল্লীকণ্ঠের সিনিয়র স্টেশন ম্যানেজার মো. মেহেদি হাসান এর সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মো. আশরাফুর রহমান।
বিশেষ অতিথি ছিলেন মৌলভীবাজার পৌরসভা মেয়র মো. ফজলুর রহমান। বক্তব্য রাখেন ব্র্যাক কমিউনিটি রেডিও প্রজেক্ট প্রোগ্রাম ম্যানেজার ও সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচির ইনচার্জ আজিজুর রহমান, মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের সভাপতি আবদুল হামিদ মাহবুব, বিএনএসবি চক্ষু হাসপাতালের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মসাহিদ আহমদ, প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এস এম উমেদ আলী, প্রকল্প পরিচিতি ও উদ্দেশ্য সর্ম্পকে আলোচনা করেন গণসাক্ষরতা অভিযানের ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার রেহেনা বেগম।
ুমুক্ত আলোচনায় অংশ নেন সরকারি কর্মকর্তা, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক, সমাজকর্মী, সাংস্কৃতিক কর্মী ও সাংবাদিকবৃন্দ।
আলোচনা শেষে অতিথিরা কিশোর কিশোরদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য আইন প্রয়োগকারী ও সহায়তা প্রদানকারী সংস্থার সাথে যোগাযোগ স্থাপনের জন্যে আনুষ্ঠানিক ভাবে মুঠোফোন (০১৮৭১৬৬৬৫৫১) হটলাইন উদ্বোধন করেন।



মন্তব্য করতে পারেন...

comments


deshdiganto.com © 2019 কপিরাইট এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত

design and development by : http://webnewsdesign.com