ঢাকা , রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
লিসবনে আত্মপ্রকাশ হয় সামাজিক সংগঠন “গোলাপগঞ্জ কমিউনিটি কেয়ারর্স পর্তুগাল “ উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল

বিয়ে তো নয় – যেনো আনন্দ মেলা

 নিজস্ব প্রতিনিধি :
  • আপডেটের সময় : ১০:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৯
  • / ৩০৭৩ টাইম ভিউ

 নিজস্ব প্রতিনিধি : যৌবনের প্রথমে ৮০ দশকে জীবনের তাগিদে বা জীবন সাজাতে দেশের গন্ডি পেরিয়ে পেট্রোডলারের দেশ কুয়েতে পাড়ি জমান চট্রলার জামাল উদ্দিন । আসার কয়েক বছর পরই নিজের মেধারগুনে এল্যুমিনিয়াম ব্যাবসায়ী হিসেবে নিজের পরিচিতি লাভ করেন, সংগীত পিপাসু, সংগীত প্রেমি , বাংলাদেশের কৃষ্টি-কালচার ও সংস্কৃতির প্রতি আসক্ত জামাল উদ্দিন পরিবার – পরিজন নিয়ে কুয়েতে বাংলাদেশী কমিউনিটির সাথে আত্মার সম্পর্ক গড়ে তুলেন, অতিথীপরায়নতা সর্বজন স্বকৃত ।

দুই ছেলে দুই মেয়ে চার সন্তান এর সংসার, বড় মেয়ে রুনা আক্তার কেয়া কুয়েতে প্রবাসীদের মাঝে কোকিল কন্ঠি গায়িকা হিসেবে জনপ্রিয়তার শির্ষে আছে । আর বড় ছেলে আকাশ এর বিবাহ সম্পর্ন হলো গতকাল ১৫ ই ফ্রেবুয়ারী সন্ধা ৭ টায় আরদিয়া কমিউনিটি সেন্টারে । অনুষ্টানে অতিথী হয়ে ছিলেন কুয়েতস্হ বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত এস এম আবুল কালাম, প্রশাসনিক কর্মকর্তা মিজানুর রহমান সহ দূতাবাসের কর্মকর্তারা এবং বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিলের নেতৃবন্দরা সহ বিভিন্ন সামাজিক , রাজনৈতিক , সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যাক্তির সহ প্রায় চায় অতিথীদের উপস্হিতি কমেডিয়ান . নাচ- গানের ভিতরে এ যেনো এক আনন্দ মেলাত পরিণত হয় । এর আগের দিন ১৪ ফ্রেবুয়ারীতে রাত ৬ ঘটিকার সময় হতে রাত ১২ ঘটিকা পর্যন্ত আমাদের দেশের সংস্কৃতির ধারাবাহিকতায় জাঁকজমকপূর্ন অনুষ্ঠানে প্রায় ছুঁই ছুঁই করে তিন শ অতিথীর উপস্হিতির মধ্যে দিয়ে গায়ে হলুদ ও হাতে মেহেদী অনুষ্টান চলে । প্রবাসে সবাই যখন বিলাস বহুল জীবন-যাপন করার লক্ষ্যে ব্যাস্ত , তিনি তখন অল্পতেই শান্ত ।

জনাব জামাল উদ্দিন গল্পের মধ্যে একটি কথাই বলতেন যদি কুয়েতে উনার সন্তানদের বিয়ে স্বাদী অনুষ্টান করার সুযোগ হয় তাহলে বাংলাদেশের কমিউনিটির সবাইকে নিয়ে আনন্দ – উল্লাসে, জাঁকজমকপূর্ণভাবে করার তৌফিক যেনো আল্লাহ দেন, আল্লাহ উনার আশা সেই আশা পূরণ করেছেন । আমন্ত্রীত অতিথীবৃন্ধ সবাই দোয়া করেন , নবদম্পতির সুন্দর এই ভবনে প্রত্যাশাময় প্রতিটি স্বপ্ন বাস্তবায়ন হোক । সর্বাঙ্গন সুন্দর সফল সার্থক ও স্বাস্হ্য সমৃদ্ধ উজ্জল ভবিষৎ কামনা করেন অতিথীরা ।

পোস্ট শেয়ার করুন

বিয়ে তো নয় – যেনো আনন্দ মেলা

আপডেটের সময় : ১০:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

 নিজস্ব প্রতিনিধি : যৌবনের প্রথমে ৮০ দশকে জীবনের তাগিদে বা জীবন সাজাতে দেশের গন্ডি পেরিয়ে পেট্রোডলারের দেশ কুয়েতে পাড়ি জমান চট্রলার জামাল উদ্দিন । আসার কয়েক বছর পরই নিজের মেধারগুনে এল্যুমিনিয়াম ব্যাবসায়ী হিসেবে নিজের পরিচিতি লাভ করেন, সংগীত পিপাসু, সংগীত প্রেমি , বাংলাদেশের কৃষ্টি-কালচার ও সংস্কৃতির প্রতি আসক্ত জামাল উদ্দিন পরিবার – পরিজন নিয়ে কুয়েতে বাংলাদেশী কমিউনিটির সাথে আত্মার সম্পর্ক গড়ে তুলেন, অতিথীপরায়নতা সর্বজন স্বকৃত ।

দুই ছেলে দুই মেয়ে চার সন্তান এর সংসার, বড় মেয়ে রুনা আক্তার কেয়া কুয়েতে প্রবাসীদের মাঝে কোকিল কন্ঠি গায়িকা হিসেবে জনপ্রিয়তার শির্ষে আছে । আর বড় ছেলে আকাশ এর বিবাহ সম্পর্ন হলো গতকাল ১৫ ই ফ্রেবুয়ারী সন্ধা ৭ টায় আরদিয়া কমিউনিটি সেন্টারে । অনুষ্টানে অতিথী হয়ে ছিলেন কুয়েতস্হ বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত এস এম আবুল কালাম, প্রশাসনিক কর্মকর্তা মিজানুর রহমান সহ দূতাবাসের কর্মকর্তারা এবং বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিলের নেতৃবন্দরা সহ বিভিন্ন সামাজিক , রাজনৈতিক , সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যাক্তির সহ প্রায় চায় অতিথীদের উপস্হিতি কমেডিয়ান . নাচ- গানের ভিতরে এ যেনো এক আনন্দ মেলাত পরিণত হয় । এর আগের দিন ১৪ ফ্রেবুয়ারীতে রাত ৬ ঘটিকার সময় হতে রাত ১২ ঘটিকা পর্যন্ত আমাদের দেশের সংস্কৃতির ধারাবাহিকতায় জাঁকজমকপূর্ন অনুষ্ঠানে প্রায় ছুঁই ছুঁই করে তিন শ অতিথীর উপস্হিতির মধ্যে দিয়ে গায়ে হলুদ ও হাতে মেহেদী অনুষ্টান চলে । প্রবাসে সবাই যখন বিলাস বহুল জীবন-যাপন করার লক্ষ্যে ব্যাস্ত , তিনি তখন অল্পতেই শান্ত ।

জনাব জামাল উদ্দিন গল্পের মধ্যে একটি কথাই বলতেন যদি কুয়েতে উনার সন্তানদের বিয়ে স্বাদী অনুষ্টান করার সুযোগ হয় তাহলে বাংলাদেশের কমিউনিটির সবাইকে নিয়ে আনন্দ – উল্লাসে, জাঁকজমকপূর্ণভাবে করার তৌফিক যেনো আল্লাহ দেন, আল্লাহ উনার আশা সেই আশা পূরণ করেছেন । আমন্ত্রীত অতিথীবৃন্ধ সবাই দোয়া করেন , নবদম্পতির সুন্দর এই ভবনে প্রত্যাশাময় প্রতিটি স্বপ্ন বাস্তবায়ন হোক । সর্বাঙ্গন সুন্দর সফল সার্থক ও স্বাস্হ্য সমৃদ্ধ উজ্জল ভবিষৎ কামনা করেন অতিথীরা ।