ঢাকা , রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফারিয়ার পুরস্কারপ্রাপ্তিতে আমি ভীষণভাবে গর্বিত: জয়া

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ
  • আপডেটের সময় : ১২:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ এপ্রিল ২০১৯
  • / ৬৯৩ টাইম ভিউ

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ  ‘দেবী’ সিনেমায় শবনম ফারিয়ার পুরস্কারপ্রাপ্তিতে ভীষণভাবে গর্বিত বলে মন্তব্য করেছেন দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান।

শনিবার সন্ধ্যায় নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে এমন মন্তব্য করে একটি স্ট্যাটাস দেন তিনি।

স্ট্যাটাসে জয়া লেখেন, ‘আমি কৃতজ্ঞ, আপ্লুত বাচসাস পুরস্কারের সম্মানিত জুরিবোর্ড শবনম ফারিয়াকে ‘দেবী’ চলচ্চিত্রের জন্য পুরস্কৃত করেছে, সম্মানিত করেছে।

ফারিয়া অভিনয়ের জন্য তার পুরস্কার হাতে নিয়েছে, সেই সঙ্গে লক্ষ্মী মেয়ের মতো আমাদের সম্মাননাগুলোও পরিবারের একজন সদস্যের মতোই বহন করে নিয়ে এসেছে।

বিষয়টি হয়তো অনেকের কাছে শুনতে সাধারণ মনে হবে, তবে আমার জন্য বিশাল কিছু। একটি কাজ শতভাগ সততা, আন্তরিকতা ও পরিশ্রম দিয়ে করার পর যখন কেউ হাত তালি দেয়, স্বীকৃতি দেয় তখন আমাদের শিল্পীদের পরিশ্রমগুলো সত্যিই হাওয়ায় মিলিয়ে যায়।

ফারিয়ার এই পুরস্কারপ্রাপ্তিতে আমি ভীষণভাবে গর্বিত হয়েছি। সম্মানিত হয়েছি। কারণ আমি মনে করি, ফারিয়ার এই বিজয় সম্পূর্ণভাবে তার যোগ্যতার ফসল। একটি চরিত্রের প্রতি সৎ থেকে শেষ পর্যন্ত (এমনকি সিনেমা মুক্তির পরও) নিজের চরিত্রের মধ্যে থাকা, নিজ অভিনীত চলচ্চিত্রের মধ্যে থাকার যে গুণ সেটি ফারিয়ার মধ্যে আমি দেখতে পেয়েছি।

পোস্ট শেয়ার করুন

ফারিয়ার পুরস্কারপ্রাপ্তিতে আমি ভীষণভাবে গর্বিত: জয়া

আপডেটের সময় : ১২:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ এপ্রিল ২০১৯

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ  ‘দেবী’ সিনেমায় শবনম ফারিয়ার পুরস্কারপ্রাপ্তিতে ভীষণভাবে গর্বিত বলে মন্তব্য করেছেন দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান।

শনিবার সন্ধ্যায় নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে এমন মন্তব্য করে একটি স্ট্যাটাস দেন তিনি।

স্ট্যাটাসে জয়া লেখেন, ‘আমি কৃতজ্ঞ, আপ্লুত বাচসাস পুরস্কারের সম্মানিত জুরিবোর্ড শবনম ফারিয়াকে ‘দেবী’ চলচ্চিত্রের জন্য পুরস্কৃত করেছে, সম্মানিত করেছে।

ফারিয়া অভিনয়ের জন্য তার পুরস্কার হাতে নিয়েছে, সেই সঙ্গে লক্ষ্মী মেয়ের মতো আমাদের সম্মাননাগুলোও পরিবারের একজন সদস্যের মতোই বহন করে নিয়ে এসেছে।

বিষয়টি হয়তো অনেকের কাছে শুনতে সাধারণ মনে হবে, তবে আমার জন্য বিশাল কিছু। একটি কাজ শতভাগ সততা, আন্তরিকতা ও পরিশ্রম দিয়ে করার পর যখন কেউ হাত তালি দেয়, স্বীকৃতি দেয় তখন আমাদের শিল্পীদের পরিশ্রমগুলো সত্যিই হাওয়ায় মিলিয়ে যায়।

ফারিয়ার এই পুরস্কারপ্রাপ্তিতে আমি ভীষণভাবে গর্বিত হয়েছি। সম্মানিত হয়েছি। কারণ আমি মনে করি, ফারিয়ার এই বিজয় সম্পূর্ণভাবে তার যোগ্যতার ফসল। একটি চরিত্রের প্রতি সৎ থেকে শেষ পর্যন্ত (এমনকি সিনেমা মুক্তির পরও) নিজের চরিত্রের মধ্যে থাকা, নিজ অভিনীত চলচ্চিত্রের মধ্যে থাকার যে গুণ সেটি ফারিয়ার মধ্যে আমি দেখতে পেয়েছি।