ঢাকা , রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আইনজীবি সমিতির সভাপতি হলেন আইন জগৎ এর বীরপুরুষ কুলাউড়ার আমিন উদ্দিন

চৌধুরী আবু সাঈদ ফুয়াদঃ
  • আপডেটের সময় : ০৭:১৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ মার্চ ২০১৯
  • / ৩৯২৮ টাইম ভিউ
চৌধুরী আবু সাঈদ ফুয়াদঃ হিজল করচ আর গুলগুলি বনের মাঝ দিয়ে উড়ে যায় সুরুজ পাখি। জারুল কাঠের নৌকো বেয়ে মাঝ হাওরে কখনো শাপলা কখনও বা দনকলসের সাদা ফুল আর হিংগাই চিবিয়ে কৈশোরের কত সময় পার করেছেন আমিন উদ্দিন। এমন কৈশোর পেরিয়ে পরবর্তীতে সংগ্রামমুখর জীবন অতিক্রম করে তিনি এখন দেশের আইন জগৎ এর বীরপুরুষ। বিপুল ভোটে বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সভাপতি নির্বাচিত হলেন। সিনিয়র এড. এ.এম আমিন উদ্দিন ১৯৬৩ সালে মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার ভূকশিমইল ইউনিয়নের বাদে ভূকশিমইল গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা এম.এ গনি ছিলেন সুপ্রীম কোর্টের ডেপুটি রেজিষ্ট্রার। সজ্জন, বন্ধুবৎসল হিসেবে তিনি সকলের কাছে বেশ পরিচিত ছিলেন। এড. আমিন উদ্দিনের মায়ের নাম মরিয়ম বেগম, তিনি ছিলেন গৃহিনী ও শিক্ষানুরাগী। এড. আমিন উদ্দিন ব্রাহ্মনবাজারের গোবিন্দপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পাঠশালা পাশ করে ঢাকার ওয়েষ্ট এন্ড হাইস্কুলে ভর্তি হন। সেখান থেকে ১৯৭৮ সালে কৃতিত্বের সাথে মেট্টিক পাশ করেন। পরে ঢাকা কলেজ থেকে বি.এ এবং ঢাকা সেন্ট্রাল ল’ কলেজ থেকে মেধার স্বাক্ষর রেখে এল.এল.বি ডিগ্রী অর্জন করেন। পরবর্তীতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে এম.এ পাশ করে পুরোদমে যুক্ত হন আইন পেশায়। ধীরে ধীরে লিগ্যাল ফিল্ডে তার লর্ডশীপ বেড়েই থাকলো। তার পা-িত্য তাক লাগিয়ে দিল ওই মহলে। তিনি হয়ে উঠতে থাকেন আইনজীবিদের মাইলপোষ্ট। প্রধান বিচারপতির কাছ থেকে পেলেন সৌভাগ্যের পরশ পাথর খ্যাত সিনিয়র এডভোকেটের খেতাব। এমন ইরিপ্রোচ্যাবল খেতাব কম সময়ে খুব কম মানুষের ভাগ্যে জুটে। ২০০৫ সালে তিনি সুপ্রীম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৯৬ সালে তিনি নিযুক্ত হন ডেপুটি এটর্নী জেনারেল হিসেবে। সিনিয়র এড. এ.এম আমিন উদ্দিনের সহধর্মীনি আফসারী আমিন শিবলী। রাইহান ও নাইয়ান নামের তাদের দু’পুত্র সন্তান রয়েছে। এড. আমিন উদ্দিন বৃহত্তর মৌলভীবাজারের ইতিহাসে প্রথম সুপ্রীম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সভাপতি নির্বাচিত হলেন। এর আগে তিনি সুপ্রীম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নিযুক্ত হয়েও মৌলভীবাজার বাসীর জন্য ইতিহাস স্থাপন করলেন। এদিকে তার ভাই আবু মোহাম্মদ বদর উদ্দিন, আবু মো: সালাউদ্দিন ও বোন হাসনা বেগম, চাচাতো ভাই আফতাব আহমদ ও ভ্রাতুষ্পুত্র জেড.এম জাকির সিনিয়র এড. এম আমিন উদ্দিনের সাফল্যের জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।
এছাড়া শুভেচ্ছা ও প্রাাণঢালা অভিনন্দন জানিয়েছেন সামাদ ফওজিয়া ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারপার্সন সাবরিনা সামাদ ফিরোজী।

পোস্ট শেয়ার করুন

আইনজীবি সমিতির সভাপতি হলেন আইন জগৎ এর বীরপুরুষ কুলাউড়ার আমিন উদ্দিন

আপডেটের সময় : ০৭:১৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ মার্চ ২০১৯
চৌধুরী আবু সাঈদ ফুয়াদঃ হিজল করচ আর গুলগুলি বনের মাঝ দিয়ে উড়ে যায় সুরুজ পাখি। জারুল কাঠের নৌকো বেয়ে মাঝ হাওরে কখনো শাপলা কখনও বা দনকলসের সাদা ফুল আর হিংগাই চিবিয়ে কৈশোরের কত সময় পার করেছেন আমিন উদ্দিন। এমন কৈশোর পেরিয়ে পরবর্তীতে সংগ্রামমুখর জীবন অতিক্রম করে তিনি এখন দেশের আইন জগৎ এর বীরপুরুষ। বিপুল ভোটে বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সভাপতি নির্বাচিত হলেন। সিনিয়র এড. এ.এম আমিন উদ্দিন ১৯৬৩ সালে মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার ভূকশিমইল ইউনিয়নের বাদে ভূকশিমইল গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা এম.এ গনি ছিলেন সুপ্রীম কোর্টের ডেপুটি রেজিষ্ট্রার। সজ্জন, বন্ধুবৎসল হিসেবে তিনি সকলের কাছে বেশ পরিচিত ছিলেন। এড. আমিন উদ্দিনের মায়ের নাম মরিয়ম বেগম, তিনি ছিলেন গৃহিনী ও শিক্ষানুরাগী। এড. আমিন উদ্দিন ব্রাহ্মনবাজারের গোবিন্দপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পাঠশালা পাশ করে ঢাকার ওয়েষ্ট এন্ড হাইস্কুলে ভর্তি হন। সেখান থেকে ১৯৭৮ সালে কৃতিত্বের সাথে মেট্টিক পাশ করেন। পরে ঢাকা কলেজ থেকে বি.এ এবং ঢাকা সেন্ট্রাল ল’ কলেজ থেকে মেধার স্বাক্ষর রেখে এল.এল.বি ডিগ্রী অর্জন করেন। পরবর্তীতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে এম.এ পাশ করে পুরোদমে যুক্ত হন আইন পেশায়। ধীরে ধীরে লিগ্যাল ফিল্ডে তার লর্ডশীপ বেড়েই থাকলো। তার পা-িত্য তাক লাগিয়ে দিল ওই মহলে। তিনি হয়ে উঠতে থাকেন আইনজীবিদের মাইলপোষ্ট। প্রধান বিচারপতির কাছ থেকে পেলেন সৌভাগ্যের পরশ পাথর খ্যাত সিনিয়র এডভোকেটের খেতাব। এমন ইরিপ্রোচ্যাবল খেতাব কম সময়ে খুব কম মানুষের ভাগ্যে জুটে। ২০০৫ সালে তিনি সুপ্রীম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৯৬ সালে তিনি নিযুক্ত হন ডেপুটি এটর্নী জেনারেল হিসেবে। সিনিয়র এড. এ.এম আমিন উদ্দিনের সহধর্মীনি আফসারী আমিন শিবলী। রাইহান ও নাইয়ান নামের তাদের দু’পুত্র সন্তান রয়েছে। এড. আমিন উদ্দিন বৃহত্তর মৌলভীবাজারের ইতিহাসে প্রথম সুপ্রীম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সভাপতি নির্বাচিত হলেন। এর আগে তিনি সুপ্রীম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নিযুক্ত হয়েও মৌলভীবাজার বাসীর জন্য ইতিহাস স্থাপন করলেন। এদিকে তার ভাই আবু মোহাম্মদ বদর উদ্দিন, আবু মো: সালাউদ্দিন ও বোন হাসনা বেগম, চাচাতো ভাই আফতাব আহমদ ও ভ্রাতুষ্পুত্র জেড.এম জাকির সিনিয়র এড. এম আমিন উদ্দিনের সাফল্যের জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।
এছাড়া শুভেচ্ছা ও প্রাাণঢালা অভিনন্দন জানিয়েছেন সামাদ ফওজিয়া ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারপার্সন সাবরিনা সামাদ ফিরোজী।