ঢাকা , বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল মান অভিমান ভুলে সবাই একই প্লাটফর্মে,সংবাদ সম্মেলনে পর্তুগাল বিএনপির নবগঠিত আহবায়ক কমিটি

অভিনেতা টেলি সামাদ আর নেই

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ
  • আপডেটের সময় : ০৪:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ এপ্রিল ২০১৯
  • / ৮৬৭ টাইম ভিউ

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ বাংলা চলচ্চিত্রের শক্তিমান অভিনেতা টেলি সামাদ আর নেই। শনিবার দুপুর ২টার দিকে তিনি মারা গেছেন বলে চ্যানেল আই অনলাইনকে জানিয়েছেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।

জায়েদ খান জানান, টেলি সামাদ ভাইয়ের মৃত্যুর খবর একটু আগে পেয়েছি। তিনি দুপুর ২টার দিকে স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। আমরা এখন সেখানে যাচ্ছি। গিয়ে বিস্তারিত জানাতে পারবো।

এদিকে তার মেয়ে সোহেলা সামাদ কাকলী জানান, বেশ কিছুদিন ধরেই গুরুতর অসুস্থ ছিলেন তার বাবা। গত বছর কয়েক দফায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিলো। তিনি জানান, টেলি সামাদের খাদ্য নালীতে সমস্যা ছিলো। শুধু তাই নয় বুকে ইনফেকশন ছিল। দীর্ঘদিন ধরে ভুগছিলেন ডায়াবেটিসেও। শেষ দিকে রক্তের প্লাটিলেটও কমে যাচ্ছিলো।

গেল বছরে থেকেই হাসপাতালে আসা যাওয়া নিয়মিত কাজে পরিনত হয়েছিলো বলেও জানান কাকলী। তবে শেষ রক্ষা হলো না টেলি সামদের। শনিবার দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন গুণী এই অভিনেতা।

ঢাকাই চলচ্চিত্রের অত্যন্ত শক্তিশালী ও জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা টেলি সামাদ ১৯৭৩ সালে ‘কার বউ’ সিনেমা দিয়ে চলচ্চিত্রে পা রাখেন। চার দশকে প্রায় ৬০০ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।

পোস্ট শেয়ার করুন

অভিনেতা টেলি সামাদ আর নেই

আপডেটের সময় : ০৪:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ এপ্রিল ২০১৯

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ বাংলা চলচ্চিত্রের শক্তিমান অভিনেতা টেলি সামাদ আর নেই। শনিবার দুপুর ২টার দিকে তিনি মারা গেছেন বলে চ্যানেল আই অনলাইনকে জানিয়েছেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।

জায়েদ খান জানান, টেলি সামাদ ভাইয়ের মৃত্যুর খবর একটু আগে পেয়েছি। তিনি দুপুর ২টার দিকে স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। আমরা এখন সেখানে যাচ্ছি। গিয়ে বিস্তারিত জানাতে পারবো।

এদিকে তার মেয়ে সোহেলা সামাদ কাকলী জানান, বেশ কিছুদিন ধরেই গুরুতর অসুস্থ ছিলেন তার বাবা। গত বছর কয়েক দফায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিলো। তিনি জানান, টেলি সামাদের খাদ্য নালীতে সমস্যা ছিলো। শুধু তাই নয় বুকে ইনফেকশন ছিল। দীর্ঘদিন ধরে ভুগছিলেন ডায়াবেটিসেও। শেষ দিকে রক্তের প্লাটিলেটও কমে যাচ্ছিলো।

গেল বছরে থেকেই হাসপাতালে আসা যাওয়া নিয়মিত কাজে পরিনত হয়েছিলো বলেও জানান কাকলী। তবে শেষ রক্ষা হলো না টেলি সামদের। শনিবার দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন গুণী এই অভিনেতা।

ঢাকাই চলচ্চিত্রের অত্যন্ত শক্তিশালী ও জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা টেলি সামাদ ১৯৭৩ সালে ‘কার বউ’ সিনেমা দিয়ে চলচ্চিত্রে পা রাখেন। চার দশকে প্রায় ৬০০ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।