আপডেট

x


‘হিলারি ক্লিনটন’ নামে কুলাউড়ায় ট্রেনের টিকিট, টিকিট কালোবাজারিদের তান্ডব

রবিবার, ০৮ জানুয়ারি ২০২৩ | ৪:০৭ অপরাহ্ণ | 20 বার

‘হিলারি ক্লিনটন’ নামে কুলাউড়ায় ট্রেনের টিকিট, টিকিট কালোবাজারিদের তান্ডব

‘হিলারি ক্লিনটন’ নামে কুলাউড়ায় ট্রেনের টিকিট, টিকিট কালোবাজারিদের তান্ডব

প্রথম আলো’র প্রতিবেদনঃ সিলেট থেকে পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনে ঢাকা যাওয়ার জন্য রেলস্টেশনের কাউন্টারে যান এক কলেজছাত্র। কিন্তু সেখানে কোনো টিকিট না পেয়ে কালোবাজারির কাছ থেকে অতিরিক্ত মূল্যে টিকিট কেনেন তিনি। অনলাইনে কাটা ওই টিকিটে যাত্রীর নামের জায়গায় লেখা ছিল ‘HILARY CLINTON’(হিলারি ক্লিনটন)। গতকাল শনিবার বিকেলে মৌলভীবাজারের কুলাউড়া জংশন রেলস্টেশনে এ ঘটনা ঘটে। এমন ঘটনায় অবাক ওই কলেজছাত্র।



খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রেলওয়ের অ্যাপে অনলাইনে আইডি খুলতে হলে জাতীয় পরিচয়পত্রের (এনআইডি) নম্বর, মুঠোফোন নম্বর ও ই-মেইল ঠিকানা লাগে। নিয়ম অনুযায়ী, অনলাইনে একটি আইডি থেকে সপ্তাহে চারবারের বেশি টিকিট কাটা যায় না। তবে কালোবাজারিরা বিভিন্ন মুঠোফোন অপারেটরের একাধিক সিম কার্ড এ কাজে ব্যবহার করেন। তাঁরা এসব সিমের মাধ্যমে আইডি খোলেন। এ ক্ষেত্রে একই এনআইডি অথবা একাধিক এনআইডিও ব্যবহার করেন। ভুয়া নামে খোলা আইডির বিপরীতে টিকিট কেটে চড়া মূল্যে বিক্রি করেন তাঁরা। অনলাইনের সফটওয়্যারে এনআইডি যাচাইয়ের (ভেরিফাই) সুযোগ নেই। এ কারণে কালোবাজারিরা এই সুযোগ কাজে লাগান।

ওই কলেজছাত্রের বাড়ি জুড়ী উপজেলার গোয়ালবাড়ী এলাকায়। তিনি স্থানীয় একটি কলেজে ইংরেজিতে স্নাতক তৃতীয় বর্ষে পড়েন। তিনি বলেন, টিকিটটি অনলাইনে কাটা। টিকিটে যাত্রীর নাম প্রথমে নজরে পড়েনি। পরে দেখেন, তাতে ‘হিলারি ক্লিনটন’ লেখা। এতে তিনি বিস্মিত হন। ট্রেনটি কুলাউড়া থেকে বিকেল ৫টা ৩ মিনিটে গন্তব্যের উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

কলেজছাত্রের কেনা টিকিটে উল্লিখিত মুঠোফোন নম্বরে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করে সেটি বন্ধ পাওয়া যায়।

সিলেট-আখাউড়া রেলপথের দায়িত্বে থাকা রেলওয়ের পরিবহন পরিদর্শক তৌফিকুল আজীম বলেন, রেলওয়ের অনলাইনের সফটওয়্যারের সঙ্গে এনআইডির সার্ভারের সংযোগ থাকলে সহজেই এ অপতৎপরতা ঠেকানো সম্ভব। এটি থাকলে সহজেই টিকিট ক্রেতার নাম-ঠিকানা যাচাই করা যাবে।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments


deshdiganto.com © 2019 কপিরাইট এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত

design and development by : http://webnewsdesign.com