ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে… এই অভ্যাসগুলোর চর্চা নিয়মিত করা উচিৎ স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য থাকা জরুরি কেনো ? পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা

সিলেট বিভাগে উন্নয়নে পিছিয়ে মৌলভীবাজার, জনপ্রতিনিধিদের ভুমিকা নিয়ে ক্ষোভ

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ১০:২৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২০
  • / ৫৪৪ টাইম ভিউ

সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জ এই ৪ জেলা নিয়ে সিলেট বিভাগ। ৪ জেলার মধ্যে প্রবাসী অধ্যুষিত মৌলভীবাজার জেলা। পর্যটন, আর্থিক ও সামাজিক অবস্থান থেকে সিলেটের পরেই মৌলভীবাজারের অবস্থান। ভৌগলিক দিক দিয়েও মৌলভীবাজার জেলা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করছে। জেলার ৪টি উপজেলা ভারতের সাথে সীমান্তবর্তী। হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রমের টাকা দেশে পাঠিয়ে এ অঞ্চলের প্রবাসী দেশের অর্থনীতিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। এজেলার পর্যটন খ্যাত থেকে প্রতি বছর কোটি কোটি টাকার রাজস্ব আদায় করছে সরকার। কিন্তু এজেলার সার্বিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে বিগত ১২ বছর যাবত অনেক পিছিয়ে রয়েছে। বিভাগীয় শহর সিলেটের পরে পার্শ্ববর্তী হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জ জেলায় মেডিকেল কলেজ, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, শিল্প কারখানাসহ অন্যান্য সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান স্থাপিত হলেও মৌলভীবাজারে উল্লেখ যোগ্য কিছুই হয়নি। সরকারের মহা পরিকল্পনা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এজেলা। মন্ত্রী পরিষদের উল্লেখ যোগ্য মন্ত্রী কিংবা প্রশাসনিক পর্যায়ে উচ্চপদস্থ কোনো কর্মকর্তা না থাকার কারণে এমন বৈষম্য হচ্ছে বলে স্থানীয়দের মন্তব্য।

প্রস্তাবিত মৌলভীবাজার মেডিক্যাল কলেজ এবং পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় বাস্তবায়নের ব্যাপারে সরকারি পদক্ষেপ গ্রহণ বিলম্বিত হলে চলিত বৎসরের সেপ্টেম্বর থেকে নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনের পথ বেচে নেয়ার ঘোষনা দিয়েছে জেলার সামাজিক সংগঠন গুলো। সম্প্রতি কুসুমবাগ রেষ্ট ইন হোটেলে সম্মিলিত সামাজিক উন্নয়ন পরিষদ আয়োজিত এক সেমিনার থেকে এই আল্টিমেটাম দেওয়া হয়।

এসময় বক্তাগণ বলেন, সিলেট বিভাগে রাজস্বের নিরিখে মৌলভীবাজার জেলার অবস্থান শীর্ষ পর্যায়ের হলেও সরকারি বরাদ্দ এবং উন্নয়ন কর্মকান্ডের ক্ষেত্রে জেলাটি বৈষম্যের শিকার। নিকটবর্তী দুই জেলাতে মেডিকেল কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের পরিকল্পনা নেয়া হলেও মৌলভীবাজার রয়ে গেছে পর্দার আড়ালে। সড়ক ও জনপথ, এল.জি.ই.ডি, গণপূর্ত, শিক্ষা প্রকৌশল, গণস্বাস্থ্য প্রকৌশলী, জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, পৌরসভা, ত্রাণ ও পূর্ণবাসনসহ অন্যান্য বিভাগের বার্ষিক বরাদ্দ আসছে তুলনামূলক ভাবে পার্শ্ববর্তী জেলার চেয়ে অনেক কম। জেলাতে প্রস্তাবিত আরেকটি উপজেলা বাস্তবায়নও রয়েছে ঝুলন্ত অবস্থায়। দেশের বিভিন্ন অংশে নতুন বিমান বন্দর স্থাপনের প্রকল্প গ্রহণ হলেও ব্রিটিশ আমলে প্রতিষ্ঠিত সমশেরনগর বিমান বন্দরটি নতুন করে চালু হচ্ছেনা। এই বিমান বন্দর চালু হলে পর্যটকরা সহজে দেশ বিদেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসতে পারত। সার্বিক দিক থেকে দেশ এগিয়ে গেলেও এই জেলাতে যেনো রয়েছে পিছুটান।

এক বক্তা বলেন- সরকারি বরাদ্দ নিশ্চিত করার জন্য সর্বোচ্চ পর্যায়ে তদবির এবং দেনদরবার করতে হয়। এখানকার বাস্তবতা হচ্ছে- “নিজেরে নিয়ে ব্যাকুল থাকা”। তাই বরাদ্দ নিশ্চিত হবে কিভাবে? এব্যাপারে সম্মিলিত উদ্যোগ এবং যথাযথ নেতৃত্ব প্রদানের প্রতি গুরুত্বারূপ করেন বক্তারা।
তবে মৌলভীবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য ও পরিবেশ, বন ও জলবায়ূ পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন জেলার বিভিন্ন সভা সমাবেশে বলছেন, খুব শীঘ্রই মৌলভীবাজারে মেডিকেল কলেজ স্থাপিত হবে। মৌলভীবাজার-৩ ও ৪ আসনের এমপিরাও একই আশ্বাস দিচ্ছেন। তবে কবে এ আশ্বাস বাস্তবায়ন হবে এনিয়ে শংষ্কায় রয়েছেন স্থানীয়রা।

পোস্ট শেয়ার করুন

সিলেট বিভাগে উন্নয়নে পিছিয়ে মৌলভীবাজার, জনপ্রতিনিধিদের ভুমিকা নিয়ে ক্ষোভ

আপডেটের সময় : ১০:২৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২০

সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জ এই ৪ জেলা নিয়ে সিলেট বিভাগ। ৪ জেলার মধ্যে প্রবাসী অধ্যুষিত মৌলভীবাজার জেলা। পর্যটন, আর্থিক ও সামাজিক অবস্থান থেকে সিলেটের পরেই মৌলভীবাজারের অবস্থান। ভৌগলিক দিক দিয়েও মৌলভীবাজার জেলা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করছে। জেলার ৪টি উপজেলা ভারতের সাথে সীমান্তবর্তী। হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রমের টাকা দেশে পাঠিয়ে এ অঞ্চলের প্রবাসী দেশের অর্থনীতিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। এজেলার পর্যটন খ্যাত থেকে প্রতি বছর কোটি কোটি টাকার রাজস্ব আদায় করছে সরকার। কিন্তু এজেলার সার্বিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে বিগত ১২ বছর যাবত অনেক পিছিয়ে রয়েছে। বিভাগীয় শহর সিলেটের পরে পার্শ্ববর্তী হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জ জেলায় মেডিকেল কলেজ, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, শিল্প কারখানাসহ অন্যান্য সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান স্থাপিত হলেও মৌলভীবাজারে উল্লেখ যোগ্য কিছুই হয়নি। সরকারের মহা পরিকল্পনা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এজেলা। মন্ত্রী পরিষদের উল্লেখ যোগ্য মন্ত্রী কিংবা প্রশাসনিক পর্যায়ে উচ্চপদস্থ কোনো কর্মকর্তা না থাকার কারণে এমন বৈষম্য হচ্ছে বলে স্থানীয়দের মন্তব্য।

প্রস্তাবিত মৌলভীবাজার মেডিক্যাল কলেজ এবং পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় বাস্তবায়নের ব্যাপারে সরকারি পদক্ষেপ গ্রহণ বিলম্বিত হলে চলিত বৎসরের সেপ্টেম্বর থেকে নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনের পথ বেচে নেয়ার ঘোষনা দিয়েছে জেলার সামাজিক সংগঠন গুলো। সম্প্রতি কুসুমবাগ রেষ্ট ইন হোটেলে সম্মিলিত সামাজিক উন্নয়ন পরিষদ আয়োজিত এক সেমিনার থেকে এই আল্টিমেটাম দেওয়া হয়।

এসময় বক্তাগণ বলেন, সিলেট বিভাগে রাজস্বের নিরিখে মৌলভীবাজার জেলার অবস্থান শীর্ষ পর্যায়ের হলেও সরকারি বরাদ্দ এবং উন্নয়ন কর্মকান্ডের ক্ষেত্রে জেলাটি বৈষম্যের শিকার। নিকটবর্তী দুই জেলাতে মেডিকেল কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের পরিকল্পনা নেয়া হলেও মৌলভীবাজার রয়ে গেছে পর্দার আড়ালে। সড়ক ও জনপথ, এল.জি.ই.ডি, গণপূর্ত, শিক্ষা প্রকৌশল, গণস্বাস্থ্য প্রকৌশলী, জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, পৌরসভা, ত্রাণ ও পূর্ণবাসনসহ অন্যান্য বিভাগের বার্ষিক বরাদ্দ আসছে তুলনামূলক ভাবে পার্শ্ববর্তী জেলার চেয়ে অনেক কম। জেলাতে প্রস্তাবিত আরেকটি উপজেলা বাস্তবায়নও রয়েছে ঝুলন্ত অবস্থায়। দেশের বিভিন্ন অংশে নতুন বিমান বন্দর স্থাপনের প্রকল্প গ্রহণ হলেও ব্রিটিশ আমলে প্রতিষ্ঠিত সমশেরনগর বিমান বন্দরটি নতুন করে চালু হচ্ছেনা। এই বিমান বন্দর চালু হলে পর্যটকরা সহজে দেশ বিদেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসতে পারত। সার্বিক দিক থেকে দেশ এগিয়ে গেলেও এই জেলাতে যেনো রয়েছে পিছুটান।

এক বক্তা বলেন- সরকারি বরাদ্দ নিশ্চিত করার জন্য সর্বোচ্চ পর্যায়ে তদবির এবং দেনদরবার করতে হয়। এখানকার বাস্তবতা হচ্ছে- “নিজেরে নিয়ে ব্যাকুল থাকা”। তাই বরাদ্দ নিশ্চিত হবে কিভাবে? এব্যাপারে সম্মিলিত উদ্যোগ এবং যথাযথ নেতৃত্ব প্রদানের প্রতি গুরুত্বারূপ করেন বক্তারা।
তবে মৌলভীবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য ও পরিবেশ, বন ও জলবায়ূ পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন জেলার বিভিন্ন সভা সমাবেশে বলছেন, খুব শীঘ্রই মৌলভীবাজারে মেডিকেল কলেজ স্থাপিত হবে। মৌলভীবাজার-৩ ও ৪ আসনের এমপিরাও একই আশ্বাস দিচ্ছেন। তবে কবে এ আশ্বাস বাস্তবায়ন হবে এনিয়ে শংষ্কায় রয়েছেন স্থানীয়রা।