ঢাকা , শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
লিসবনে আত্মপ্রকাশ হয় সামাজিক সংগঠন “গোলাপগঞ্জ কমিউনিটি কেয়ারর্স পর্তুগাল “ উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল

সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ
  • আপডেটের সময় : ০৬:৩০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৯
  • / ১৩২৬ টাইম ভিউ

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে সিলেটে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি।

শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিকালে রেজিষ্ট্রারি মাঠে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বেগম খালেদা জিয়ার কারাবাসের এক বছর পূর্ণ হওয়ায় এই বিক্ষোভ সমাবেশ আয়োজন করা হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘কোন অপরাধ নয়, মানুষের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়ার কারণেই তিন বারের সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ষড়যন্ত্রমুলক মামলার ফরমায়েসী রায়ে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে। মানুষের ভোটাধিকার ছিনিয়ে নিয়ে আওয়ামী ফ্যাসিবাদী শাসনকে পাকাপোক্ত করতেই দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ভোট চোর বাকশালী সরকার তাদের জবর দখলের মহোৎসব চালাতে প্রতিবন্ধকতা মনে করেই বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটকে রাখে।’

বক্তারা আরো বলেন, ‘এই সরকারের ক্ষমতার মেয়াদে দেশ থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা লুটপাট এবং বিদেশে পাচার করা হলেও এর কোন বিচার হয়নি। শুধুমাত্র রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণেই ১/১১ এর ফখর-মঈন সরকারের আমলে দায়ের করা ষড়যন্ত্রমুলক দুটি মামলায় রাষ্ট্রীয় পৃষ্টপোষকতায় গণতন্ত্রের মা কে ফরমায়েসী সাজা দেয়া হয়। জাতি বিচারের নামে এই তামাশা প্রত্যাখ্যান করেছে। অনেক ষড়যন্ত্র করেছেন এবার থামুন। অবিলম্বে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন। লোক লজ্জার ভয় থাকলে সংসদ ভেঙ্গে জাতীয় নির্বাচন দিয়ে মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিন। ইতিহাস স্বাক্ষী স্বৈরাচারের শেষ পরিণতি খুবই ভয়ংকর হয়।’

বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট জেলা সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীমের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সিলেট জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, মহানগর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এমদাদ হোসেন চৌধুরী, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান আহমদ চৌধুরী, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আহাদ খান জামাল, জেলা মহিলা দলের সভানেত্রী সালেহা কবির শেপি, মহানগর মহিলা দলের সভানেত্রী জাহানারা ইয়াসমিন, জেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, মহানগর বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক লোকমান আহমদ, জেলা বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক আব্দুল মালেক, বিএনপি নেতা দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আলতাফ হোসেন সুমন ও মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বী আহসান ও হকার্স দল নেতা আব্দুল আহাদ প্রমুখ।

সমাবেশ পরিচালনা করেন মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আজমল বখত চৌধুরী সাদেক।

পোস্ট শেয়ার করুন

সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ

আপডেটের সময় : ০৬:৩০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে সিলেটে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি।

শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিকালে রেজিষ্ট্রারি মাঠে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বেগম খালেদা জিয়ার কারাবাসের এক বছর পূর্ণ হওয়ায় এই বিক্ষোভ সমাবেশ আয়োজন করা হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘কোন অপরাধ নয়, মানুষের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়ার কারণেই তিন বারের সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ষড়যন্ত্রমুলক মামলার ফরমায়েসী রায়ে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে। মানুষের ভোটাধিকার ছিনিয়ে নিয়ে আওয়ামী ফ্যাসিবাদী শাসনকে পাকাপোক্ত করতেই দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ভোট চোর বাকশালী সরকার তাদের জবর দখলের মহোৎসব চালাতে প্রতিবন্ধকতা মনে করেই বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটকে রাখে।’

বক্তারা আরো বলেন, ‘এই সরকারের ক্ষমতার মেয়াদে দেশ থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা লুটপাট এবং বিদেশে পাচার করা হলেও এর কোন বিচার হয়নি। শুধুমাত্র রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণেই ১/১১ এর ফখর-মঈন সরকারের আমলে দায়ের করা ষড়যন্ত্রমুলক দুটি মামলায় রাষ্ট্রীয় পৃষ্টপোষকতায় গণতন্ত্রের মা কে ফরমায়েসী সাজা দেয়া হয়। জাতি বিচারের নামে এই তামাশা প্রত্যাখ্যান করেছে। অনেক ষড়যন্ত্র করেছেন এবার থামুন। অবিলম্বে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন। লোক লজ্জার ভয় থাকলে সংসদ ভেঙ্গে জাতীয় নির্বাচন দিয়ে মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিন। ইতিহাস স্বাক্ষী স্বৈরাচারের শেষ পরিণতি খুবই ভয়ংকর হয়।’

বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট জেলা সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীমের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সিলেট জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, মহানগর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এমদাদ হোসেন চৌধুরী, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান আহমদ চৌধুরী, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আহাদ খান জামাল, জেলা মহিলা দলের সভানেত্রী সালেহা কবির শেপি, মহানগর মহিলা দলের সভানেত্রী জাহানারা ইয়াসমিন, জেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, মহানগর বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক লোকমান আহমদ, জেলা বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক আব্দুল মালেক, বিএনপি নেতা দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আলতাফ হোসেন সুমন ও মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বী আহসান ও হকার্স দল নেতা আব্দুল আহাদ প্রমুখ।

সমাবেশ পরিচালনা করেন মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আজমল বখত চৌধুরী সাদেক।