ঢাকা , রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিলেট চৌহাট্টা ঘিরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সতর্ক অবস্থান

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ১১:৩৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ অগাস্ট ২০২০
  • / ৩৮৫ টাইম ভিউ

সিলেট নগরের চৌহাট্টা এলাকায় বোমাসদৃশ্য বস্তুর সন্ধান পাওয়ার পর কেটে গেছে প্রায় সাত ঘন্টা। ঘটনাস্থল ঘিরে রেখে এখনও বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ফলে বোমা আতঙ্কে সিলেট নগরের চৌহাট্টা এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

আজ বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) রাত সাড়ে ১২টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত সরেজমিন দেখা গেছে, চৌহাট্টা মোড়ের পূর্বদিকে যেখানে আগে পুলিশ চেকপোস্ট ছিল তার পাশেই রয়েছে একটি কালো রঙের পালসার মোটরসাইকেল (ঢাকা মেট্রো ১৪-৯২৭০)। এই মোটরসাইকেলেই লাগানো রয়েছে বোমাসদৃশ্য সন্দেহজনক ডিভাইস। পুলিশের ক্রাইসিস রেসপন্স টিমের (সিআরটি) সদস্যদের পাশাপাশি ঘটনাস্থলে রয়েছেন র‌্যাবের অ্যাডভান্স টিমের সদস্যরা। তারা সতর্কতার সঙ্গে বোমাসদৃশ্য বস্তুটি পর্যবেক্ষণ করছেন।
এদিকে বোমাসদৃশ্য বস্তু পাওয়ার খবর জানাজানি হলে চৌহাট্টা এলাকা জুড়ে আতঙ্ক দেখা দেয় আতঙ্ক। ফার্মেসী ছাড়া আশপাশের দোকান বন্ধ করে দেন ব্যবসায়ীরা৷ ঘটনাস্থলে অনেক উৎসুক জনতার ভিড় জমাতে থাকেন। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাদের সরে যাওয়ার জন্য বার বার আহ্বান জানান। এসময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা জায়গাটিকে ক্রাইম সিনের ফিতা টেনে ঘিরে রাখেন।

ওই মোটরসাইকেলটি (ঢাকা মেট্রো ১৪-৯২৭০) ট্রাফিক পুলিশের সদস্য নয়নের বলে জানা গেছে।
ঢাকা থেকে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী বিশেষজ্ঞ দল সিলেট আসছে বলে জানা গেলেও এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জ্যোতির্ময় সরকার বলেছেন, ‘পুলিশ ঘটনাস্থল ঘিরে রেখেছে। র‍্যাবের বোমা বিশেষজ্ঞরা এসেছেন। তারা পরীক্ষা নিরীক্ষা করার পর মোটরসাইকেলে বোমা আছে কিনা, নিশ্চিত হওয়া যাবে।

পোস্ট শেয়ার করুন

সিলেট চৌহাট্টা ঘিরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সতর্ক অবস্থান

আপডেটের সময় : ১১:৩৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ অগাস্ট ২০২০

সিলেট নগরের চৌহাট্টা এলাকায় বোমাসদৃশ্য বস্তুর সন্ধান পাওয়ার পর কেটে গেছে প্রায় সাত ঘন্টা। ঘটনাস্থল ঘিরে রেখে এখনও বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ফলে বোমা আতঙ্কে সিলেট নগরের চৌহাট্টা এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

আজ বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) রাত সাড়ে ১২টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত সরেজমিন দেখা গেছে, চৌহাট্টা মোড়ের পূর্বদিকে যেখানে আগে পুলিশ চেকপোস্ট ছিল তার পাশেই রয়েছে একটি কালো রঙের পালসার মোটরসাইকেল (ঢাকা মেট্রো ১৪-৯২৭০)। এই মোটরসাইকেলেই লাগানো রয়েছে বোমাসদৃশ্য সন্দেহজনক ডিভাইস। পুলিশের ক্রাইসিস রেসপন্স টিমের (সিআরটি) সদস্যদের পাশাপাশি ঘটনাস্থলে রয়েছেন র‌্যাবের অ্যাডভান্স টিমের সদস্যরা। তারা সতর্কতার সঙ্গে বোমাসদৃশ্য বস্তুটি পর্যবেক্ষণ করছেন।
এদিকে বোমাসদৃশ্য বস্তু পাওয়ার খবর জানাজানি হলে চৌহাট্টা এলাকা জুড়ে আতঙ্ক দেখা দেয় আতঙ্ক। ফার্মেসী ছাড়া আশপাশের দোকান বন্ধ করে দেন ব্যবসায়ীরা৷ ঘটনাস্থলে অনেক উৎসুক জনতার ভিড় জমাতে থাকেন। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাদের সরে যাওয়ার জন্য বার বার আহ্বান জানান। এসময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা জায়গাটিকে ক্রাইম সিনের ফিতা টেনে ঘিরে রাখেন।

ওই মোটরসাইকেলটি (ঢাকা মেট্রো ১৪-৯২৭০) ট্রাফিক পুলিশের সদস্য নয়নের বলে জানা গেছে।
ঢাকা থেকে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী বিশেষজ্ঞ দল সিলেট আসছে বলে জানা গেলেও এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জ্যোতির্ময় সরকার বলেছেন, ‘পুলিশ ঘটনাস্থল ঘিরে রেখেছে। র‍্যাবের বোমা বিশেষজ্ঞরা এসেছেন। তারা পরীক্ষা নিরীক্ষা করার পর মোটরসাইকেলে বোমা আছে কিনা, নিশ্চিত হওয়া যাবে।