আপডেট

x


সিলেট ও হবিগঞ্জে বিএনপির ৪১ নেতা বহিস্কার

সোমবার, ০৪ মার্চ ২০১৯ | ১১:১৭ অপরাহ্ণ | 755 বার

সিলেট ও হবিগঞ্জে বিএনপির ৪১ নেতা বহিস্কার

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ অবশেষে শাস্তির খড়গ নামলো বিএনপির ৪১ নেতার ওপর। দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেয়ায় তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বিএনপির দলীয় পদবি থেকে তাদের বহিস্কার করার পাশাপাশি দলের প্রাথমিক সদস্য পদও কেড়ে নেওয়া হয়েছে। রোববার বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ-দফতর সম্পাদক বেলাল আহমদ স্বাক্ষরিত এবং দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে সিলেট বিএনপির এই ৪১ নেতাকে বহিস্কারের তথ্য জানানো হয়। বহিস্কৃত বিএনপি নেতাদের মধ্যে সিলেটের ৩২ ও হবিগঞ্জে রয়েছেন ৯ জন।

বহিস্কারাদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ  বলেন,বহিস্কারাদেশের কপি ইমেইলযোগে তাঁর কাছে হস্তগত হয়েছে। বহিস্কারাদেশে বলা হয়েছে সিলেটের ওই ৩২ নেতাকে দলের প্রাথমিক সদস্য পদসহ সকল কর্মকান্ড থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।



বহিস্কৃৃতরা হলেন সিলেট জেলা বিএনপির উপদেষ্টা মাজহারুল ইসলাম ডালিম, জেলা বিএনপির সদস্য ও দক্ষিণ সুরমা উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি জিল­ুর রহমান সোয়েব, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা বিএনপির উপদেষ্টা শামছুল আলম, বিএনপি নেতা ও দক্ষিণ সুরমা উপজেলা যুবদল নেতা সুন্দর আলী, জেলা বিএনপির উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট মাওলানা রশীদ আহমদ, বিএনপি নেত্রী ও জকিগঞ্জ উপজেলা মহিলা দলের সভাপতি ইয়াহইয়া  বেগম, বিএনপি নেতা ও জকিগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক ফজলে আশরাফ মান্না, গোয়াইনঘাট উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সিলেট জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি লুৎফুল হক খোকন, গোয়াইনঘাট উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও সিলেট জেলা বিএনপি’র স্থানীয় সরকার বিষয়ক সম্পাদক শাহ আলম স্বপন, গোয়াইনঘাট উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সিলেট জেলা বিএনপি’র সদস্য জয়নাল আবেদীন, বিএনপি নেত্রী ও সিলেট জেলা মহিলা দলের সাবেক সহ-সভাপতি খোদেজা  বেগম কলি, জৈন্তাপুর উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও ৫নং ফতেপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হক, সিলেট জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি সোহেল আহমদ চৌধুরী, বিশ্বনাথ উপজেলা বিএনপি নেতা মিসবাহ উদ্দিন আহমদ, বিশ্বনাথ উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ও সিলেট ূেজলা বিএনপির সদস্য আহমদ নুর উদ্দিন, বিএনপি নেতা ও সিলেট জেলা ছাত্রদলের সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহমান খালেদ, বিএনপি নেতা ও সিলেট মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফ উদ্দিন রুবেল, বিএনপি নেতা ও বিশ্বনাথ উপজেলা যুবদল নেতা জুবেল আহমদ, বিএনপি নেত্রী ও সিলেট জেলা মহিলা দলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমা বেগম, বিএনপি নেত্রী ও বিশ্বনাথ উপজেলা মহিলা দলের আহবায়ক নুরুন্নাহার ইয়াসমিন, বিএনপি নেত্রী ও সিলেট জেলা মহিলা দলের সহ-সভাপতি স্বপ্না শাহীন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা শ্রমিক দলের আহবায়ক ও উপজেলা বিএনপির শ্রম বিষয়ক সম্পাদক লাল মিয়া, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সদস্য আবিদুর রহমান, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি ও সিলেট জেলা বিএনপি’র সদস্য ওয়াহিদুজ্জামান সুফী, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির উপদেষ্টা মনির আলী নানু মিয়া, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা বিএনপি নেতা হারুন আহমদ চৌধুরী, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র উপদেষ্টা জহিরুল ইসলাম মুরাদ, বিএনপি নেতা ও ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা যুবদল নেতা সাহেদ আহমদ, বিএনপি নেত্রী ও  ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা মহিলা দলের আহবায়ক ও সিলেট জেলা মহিলা দলের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ফেরদৌসী ইকবাল, সিলেট জেলা বিএনপির উপদেষ্টা আবদাল মিয়া, বালাগঞ্জ উপজেলা বিএনপি নেতা মো. গোলাম রব্বানী, বিএনপি নেত্রী ও বালাগঞ্জ উপজেলা মহিলা দলের সহ-সভাপতি সেবু আক্তার মনি, হবিগঞ্জ জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এস এম শাহজাহান, মনজুর উদ্দিন আহমদ শাহীন, হবিগঞ্জ জেলাধীন চুনারুঘাট উপজেলা বিএনপির সভাপতি এস লিয়াকত হাসান, বিএনপি নেতা ও সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সম্পাদক খালেদুর রশীদ ঝলক, বিএনপি নেতা ও হবিগঞ্জ জেলা কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান আওয়াল, হবিগঞ্জ জেলাধীন মাধবপুর পৌর বিএনপির সভাপতি আব্দুল আজিজ, বিএনপি নেত্রী ও বানিয়াচং উপজেলা মহিলা দলের আহবায়ক তানিয়া খানম, বিএনপি নেত্রী ও মাধবপুর উপজেলা মহিলা দলের আহবায়ক সুফিয়া আক্তার  হেলেন, বিএনপি নেত্রী ও বাহুবল উপজেলা মহিলা দলের আহবায়ক নাদিরা খানম, বিএনপি  নেতা ও লাখাই উপজেলা যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক তাউস আহমদকে দলের প্রাথমিক সদস্য পদসহ সকল পর্যায়ের পদ থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।

এছাড়াও ওই প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সারা দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা নেতাকর্মীদের বহিস্কার করার বিষয়ে উলে­খ করেছে।

বহিস্কার প্রসঙ্গে সিলেট জেলা বিএনপি উপদেষ্টা মাজহুরল ইসলাম ডালিম বলেন, আমি দলের প্রতি আস্থাশীল। দল যে হেতু উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেয়নি আমিও সেই সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা রাখি। কিন্তু এলাকার জনগণের আগ্রহের কারণে আমি নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। এ কারণে দলের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে ২৭ ফেব্র“য়ারি বিএনপি থেকে অব্যাহতি নিয়েছি। কিন্তু কেন যে আমাকে দল থেকে বহিস্কার করা হলো তা আমার বোধগম্য নয়। এর বাইরো কোনো মন্তব্য করতে চান না তিনি। মাজহারুল ইসলাম ডালিম ৪ নম্বর খাদিমপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান।

বহিস্কার প্রসঙ্গে সিলেট জেলা বিএনপি’র সহ সভাপতি বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহেল আহমদ চৌধুরী বলেন, দলের প্রতি অনুগত রয়েছি। দলের সাধারণ কর্মী হয়ে কাজ করতে চাই। যদিও দল এ নির্বাচনে অংশ না নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আমিও তাতে সমর্থন কনি। কিন্তু জনগণের অনুরোধের কারণেই বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছি। সোহেল আরো বলেন, এ সরকারের আমলে আমার ওপর ১৪/১৫ মামলা হয়েছে। নানা জুলুম সহ্য করেই দলের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। এবার জনতার অনুরোধের কারণে প্রার্থী হতে বাধ্য হয়েছি। সোহেল আহমদ চৌধুরী বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান।

বহিস্কার প্রসঙ্গে সিলেট জেলা বিএনপির উপদেষ্টা ও বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদাল আহমদ বলেন, উন্নয়নের স্বার্থ জনগণই আমাকে চান। আমি দল করি, সম্মান জানাই। দলের প্রতি অনুগতও রয়েছি। এলাকার অসমাপ্ত উন্নয়ন কাজ সমাপ্ত করার জন্য জণগনই আমাকে আবারো নির্বাচন করা জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন। তাই জণগনের অনুরোধ উপক্ষো করতে পারিনি। আবদুল আহসদ বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান।

বহিস্কার প্রসঙ্গে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সহ সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী ওহিদুজ্জামান সুফি চৌধুরী বলেন, আমার এলাকায় বিএনপি’র পরিবারকে জাগ্রত রাখার কারণেই মূলত প্রার্থী হয়েছে। গণতন্ত্র পূণরুদ্ধারে কাজ করতে চাই আমি। এছাড়া খালেদার মুক্তির আন্দোলন তরান্বিত করতে চাই। তিনি বলেন, বিএনপি’র রাজনীতি করতে গিয়ে জেল খেটেছি। আমার বিরুদ্ধে দুইটি মামলা রয়েছে।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

deshdiganto.com © 2019 কপিরাইট এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত

design and development by : http://webnewsdesign.com