আপডেট

x


শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অসাধারণ জয় পেল জিম্বাবুয়ে

রবিবার, ০৯ জুলাই ২০১৭ | ১:১৩ পূর্বাহ্ণ | 938 বার

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অসাধারণ জয় পেল জিম্বাবুয়ে

শেষ দিকের হতাশাজনক ব্যাটিংয়ের চড়া মূল্যই দিতে হলো শ্রীলঙ্কাকে।আজ শনিবার হাম্বানটোটায় পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের চতুর্থটিতে দুর্দান্ত জয়ের দেখা পেয়েছে সফরকারী জিম্বাবুয়ে। ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে লঙ্কানদের ৪ উইকেটে পরাজিত করে ২-২ এ সমতা ফিরিয়েছে সফরকারীরা।

হাম্বানটোটার মাহিন্দা রাজাপাকসে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে দুর্দান্ত শুরুর পর শেষদিকে তালগোল পাকিয়ে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ৩০০ রানে আটকে যায় শ্রীলঙ্কা। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে ২১ ওভারে ৩ উইকেটে জিম্বাবুয়ে ১৩৯ রান তোলার পর বৃষ্টি হানা দেয়। দেড় ঘণ্টারও বেশি সময় পর খেলা শুরু হলে বৃষ্টি আইনে সফরকারীদের সামনে ৩১ ওভারে লক্ষ্য দাঁড়ায় ২১৯ রানের। অর্থাৎ, জিততে ৭ উইকেট হাতে নিয়ে বাকি ৬০ বলে ৮০ রান দরকার ছিল জিম্বাবুয়ের। ১০ বল ও ৪ উইকেট হাতে রেখেই সেই লক্ষ পেরিয়ে যায় সফরকারীরা।



জিম্বাবুয়ের দুই ওপেনার সোলোমন মিরে এবং হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ৫৮ বলে ৬৭ রানের দুর্দান্ত জুটি গড়ে দলকে মজবুত ভিত এনে দেন। সেই ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে তিরাসাই মুসাকান্দা, ম্যালকম ওয়ালার এবং ক্রেইগ আরভিনের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে দুর্দান্ত জয় পায় জিম্বাবুয়ে।

বৃষ্টির পর ৬০ বলে চাই ৮০ রান- এমন লক্ষ্যে নতুন করে ব্যাটিংয়ে নামা জিম্বাবুয়ে ৫ ওভারে ৩৯ রান তুলতে গিয়ে সিন উইলিয়ামস (৯ বলে ৬) ও সিকান্দার রাজার (১০ বলে ১০) উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে যায়।

তবে লক্ষ্মন সান্দাকানের করা ২৭তম ওভারেই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় জিম্বাবুয়ে। দুটি চারের পাশাপাশি সান্দাকানের একটি ওয়াইড বল সীমানার বাইরে চলে গেলে হাসি ফোটে সফরকারী শিবিরে। সেই ওভার থেকে ১৮ রান নেয়ায় জিম্বাবুয়ের লক্ষ্য কমে আসে ২৪ বলে ২৩ রানে।

ভানিদু হাসারাঙ্গার করা ২৮তম ওভার থেকে ৭ রান ব্যবধান ১৮ বলে ১৬-তে নামিয়ে আনেন ওয়ালার ও আরভিন। দানুসকা গুনাথিলাকার করা ২৯তম ওভার থেকে দুটি চারের সাহায্যে ১২ রান নিয়ে জয়কে সময়ের ব্যাপারে পরিণত করেন ওয়ালার।

মিরে ৩০ বলে ৫টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে ৪৩ এবং মাসাকাদজা ৩৬ বলে ৫টি চারের সাহায্যে করেন ২৮ রান। মুসাকান্দা ২৩ বলে ৫টি চারের সাহায্যে ৩০ রানের দারুণ ইনিংস উপহার দেন। আরভিন ৫৫ বলে ৬৯ এবং ওয়ালার ১৩ বলে ২০ রানের ইনিংস খেলে দলকে দারুণ জয় এনে দেন।

এর আগে হাম্বানটোটায় টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে দুই ওপেনার নিরোশান দিকভেলা ও দানুসকা গুনাথিলাকার বিশ্বরেকর্ড জুটিতে কোনো উইকেট না হারিয়েই ২০০ রান পেরিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। তবে শেষদিকের হতাশাজনক ব্যাটিংয়ে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ৩০০ রানে আটকে যায় লঙ্কানদের। ৯ উইকেট হাতে থাকা সত্ত্বেও শেষ ৮৮ বলে মাত্র ৯১ রান তোলে স্বাগতিকরা।

ওয়ানডে ইতিহাসের প্রথম জুটি হিসেবে টানা দুই ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরির জুটি গড়ে বিশ্বরেকর্ড গড়েন গুনাথিলাকা ও দিকভেলা। এই দুজন ২১২ বলে ২০৯ রানের রেকর্ড জুটি গড়ার পর অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ, উপুল থারাঙ্গা, আসেলা গুনারত্বে ও ভানিদু হাসারাঙ্গারা রান পাহাড় গড়ার সুযোগ কাজে লাগাতে ব্যর্থ হন। আগের ম্যাচে ২২২ বলে ২২৯ রানের জুটি গড়েছিলেন দিকভেলা ও গুনাথিলাকা।

ব্যাক-টু-ব্যাক সেঞ্চুরি করা দিকভেলা ১১৮ বলে ৮টি চারের সাহায্যে ১১৬ রানের দারুণ ইনিংস খেলেন। অন্যদিকে গুনাথিলাকা ১০১ বলে ৭টি চারের সাহায্যে ৮৭ রানের ইনিংস উপহার দেন। এছাড়া ম্যাথুজ ৪০ বলে ৪২, থারাঙ্গা ২০ বলে ২২, হাসারাঙ্গা ১৭ বলে ১৯ এবং গুনারত্নে ৩ বলে ১ রান করেন।

জিম্বাবুয়ের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন কিস্টোফার এমপুফু ও ম্যালকল ওয়ালার। একটি করে উইকেট নেন তান্ডাই চাতারা ও সিকান্দার রাজা।

পাঁচ ম্যাচ সিরিজে আপাতত ২-২ সমতা বিরাজ করছে। আগামী সোমবার একই মাঠে সিরিজের শেষ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। ওয়ানডে সিরিজের পর শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ে একমাত্র টেস্টে মুখোমুখি হবে।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments


deshdiganto.com © 2019 কপিরাইট এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত

design and development by : http://webnewsdesign.com