ঢাকা , শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে… এই অভ্যাসগুলোর চর্চা নিয়মিত করা উচিৎ স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য থাকা জরুরি কেনো ? পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা

শিগগিরই ৫ হাজার ডাক্তার ও ১৫ হাজার নার্স নিয়োগ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ১০:১১ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ জানুয়ারী ২০২০
  • / ৫৬৪ টাইম ভিউ

চলতি বছরই নতুন করে অন্তত আরও ৫ হাজার ডাক্তার ও ১৫ হাজার নার্স নিয়োগ দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।সোমবার রাজধানীর ন্যাশনাল নিউরো সায়েন্সেস অব হসপিটালে ১০০ শয্যার স্ট্রোক ইউনিট উদ্বোধন উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের প্রতিটি সরকারি হাসপাতালে বেড সংখ্যা দ্বিগুণ করা হয়েছে। ক্যান্সার হাসপাতালে গত মাসেই ২০০ বেড থেকে ৫০০ বেডে উন্নীত করা হয়েছে। দেশের ৮ বিভাগে ৮টি ক্যান্সার হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার কাজ প্রক্রিয়াধীন। এ বছরই দেশের সকল আইসিইউ বেড সংখ্যাও দ্বিগুণ করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি ২৫০টি নতুন ডায়ালাইসিস বেড স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘নিউরো সায়েন্সেস হাসপাতালে ১০০ শয্যার স্ট্রোক ইউনিট উদ্বোধন করা হলো, যা বিশ্বের মাত্র অল্প কয়েকটি দেশের মধ্যে একটি। চিকিৎসা ক্ষেত্রে এটি আমাদের এক বিরাট অর্জন। স্বাস্থ্য সেবার এ সকল সুবিধা ভালোভাবে সম্পন্ন করার জন্য খুব জরুরি ভিত্তিতে অধিক সংখ্যক ডাক্তার, নার্স ও অন্যান্য লোকবল প্রয়োজন। এ কারণে চলতি বছরই নতুন করে অন্তত আরও ৫ হাজার ডাক্তার ও ১৫ হাজার নার্স নিয়োগ দেয়া হবে।’

স্ট্রোক চিকিৎসায় বিশ্বের বেশিরভাগ দেশ থেকেই বাংলাদেশ এগিয়ে রয়েছে দাবি করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সরকারি হাসপাতালে ১০০ শয্যার স্ট্রোক ইউনিট স্থাপন একটি বিরল ঘটনা। পৃথিবীর হাতেগোনা কয়েকটি দেশের হাসপাতাল ছাড়া ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনাম, মালেয়েশিয়াসহ বিশ্বের আর কোথাও ১০০ শয্যার স্ট্রোক ইউনিট নেই।’

ঢাকার অভিজ্ঞ চিকিৎসকদের দেশের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে পদায়ন করা গেলে জেলা পর্যায় থেকে ঢাকায় আসা রোগীদের চাপ আরও কমে যেতে পারে বলে অনুষ্ঠানে বক্তারা অভিমত ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানের আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঘুরে ঘুরে নতুন বেডগুলো দেখেন ও চিকিৎসারত রোগীদের সাথে কথা বলেন।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সেস অ্যান্ড হসপিটালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. কাজী দীন মোহাম্মদের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সেস অ্যান্ড হসপিটালের যুগ্ম পরিচালক ডা. বদরুল আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পোস্ট শেয়ার করুন

শিগগিরই ৫ হাজার ডাক্তার ও ১৫ হাজার নার্স নিয়োগ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

আপডেটের সময় : ১০:১১ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ জানুয়ারী ২০২০

চলতি বছরই নতুন করে অন্তত আরও ৫ হাজার ডাক্তার ও ১৫ হাজার নার্স নিয়োগ দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।সোমবার রাজধানীর ন্যাশনাল নিউরো সায়েন্সেস অব হসপিটালে ১০০ শয্যার স্ট্রোক ইউনিট উদ্বোধন উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের প্রতিটি সরকারি হাসপাতালে বেড সংখ্যা দ্বিগুণ করা হয়েছে। ক্যান্সার হাসপাতালে গত মাসেই ২০০ বেড থেকে ৫০০ বেডে উন্নীত করা হয়েছে। দেশের ৮ বিভাগে ৮টি ক্যান্সার হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার কাজ প্রক্রিয়াধীন। এ বছরই দেশের সকল আইসিইউ বেড সংখ্যাও দ্বিগুণ করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি ২৫০টি নতুন ডায়ালাইসিস বেড স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘নিউরো সায়েন্সেস হাসপাতালে ১০০ শয্যার স্ট্রোক ইউনিট উদ্বোধন করা হলো, যা বিশ্বের মাত্র অল্প কয়েকটি দেশের মধ্যে একটি। চিকিৎসা ক্ষেত্রে এটি আমাদের এক বিরাট অর্জন। স্বাস্থ্য সেবার এ সকল সুবিধা ভালোভাবে সম্পন্ন করার জন্য খুব জরুরি ভিত্তিতে অধিক সংখ্যক ডাক্তার, নার্স ও অন্যান্য লোকবল প্রয়োজন। এ কারণে চলতি বছরই নতুন করে অন্তত আরও ৫ হাজার ডাক্তার ও ১৫ হাজার নার্স নিয়োগ দেয়া হবে।’

স্ট্রোক চিকিৎসায় বিশ্বের বেশিরভাগ দেশ থেকেই বাংলাদেশ এগিয়ে রয়েছে দাবি করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সরকারি হাসপাতালে ১০০ শয্যার স্ট্রোক ইউনিট স্থাপন একটি বিরল ঘটনা। পৃথিবীর হাতেগোনা কয়েকটি দেশের হাসপাতাল ছাড়া ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনাম, মালেয়েশিয়াসহ বিশ্বের আর কোথাও ১০০ শয্যার স্ট্রোক ইউনিট নেই।’

ঢাকার অভিজ্ঞ চিকিৎসকদের দেশের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে পদায়ন করা গেলে জেলা পর্যায় থেকে ঢাকায় আসা রোগীদের চাপ আরও কমে যেতে পারে বলে অনুষ্ঠানে বক্তারা অভিমত ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানের আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঘুরে ঘুরে নতুন বেডগুলো দেখেন ও চিকিৎসারত রোগীদের সাথে কথা বলেন।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সেস অ্যান্ড হসপিটালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. কাজী দীন মোহাম্মদের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সেস অ্যান্ড হসপিটালের যুগ্ম পরিচালক ডা. বদরুল আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।