ঢাকা , শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
লিসবনে আত্মপ্রকাশ হয় সামাজিক সংগঠন “গোলাপগঞ্জ কমিউনিটি কেয়ারর্স পর্তুগাল “ উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল

লঞ্চে অতিরিক্ত যাত্রী নিলেই কঠোর ব্যবস্থা : নৌমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক :
  • আপডেটের সময় : ১১:৫৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ জুন ২০১৭
  • / ১১৩০ টাইম ভিউ

লঞ্চে অতিরিক্ত যাত্রী নিলেই কঠোর ব্যবস্থা : মন্ত্রী

ঈদে অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে কোনো লঞ্চ চলাচল করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান।বৃহস্পতিবার সকালে সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দপ্তর ও সংস্থার সঙ্গে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি সইয়ের অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

শাজাহান খান বলেন, বর্ষা মৌসুমে হওয়ায় এবারের ঈদুল ফিতরের আগের ৫ দিন ও পরের ৫ দিন মিলিয়ে মোট ১০ দিন দেশের নদীগুলোতে বালুর ট্রলার চলা বন্ধ থাকবে। নদীতে দুর্ঘটনা এড়াতে সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।তিনি বলেন, আবহাওয়া খারাপ থাকলে দুর্ঘটনা এড়াতে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ থাকবে। ঝুঁকি নিয়ে কোনো লঞ্চ চলতে দেয়া হবে না। যাত্রীদের কিছুটা হয়রানি বাড়লেও তা সহনীয় রাখার চেষ্টা করা হবে।নৌপরিবহনমন্ত্রী বলেন, দেশের লঞ্চঘাটগুলোয় নানা ধরনের অনিয়ম রোধে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছেন। সদরঘাটে এই প্রথমবারের মতো টিকিট কাউন্টার খোলা হয়েছে। তাই একটি লঞ্চে কতজন যাত্রী উঠলো তা জানা যাবে। এ সময় তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু উপস্থিত ছিলেন।

পোস্ট শেয়ার করুন

লঞ্চে অতিরিক্ত যাত্রী নিলেই কঠোর ব্যবস্থা : নৌমন্ত্রী

আপডেটের সময় : ১১:৫৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ জুন ২০১৭

ঈদে অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে কোনো লঞ্চ চলাচল করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান।বৃহস্পতিবার সকালে সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দপ্তর ও সংস্থার সঙ্গে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি সইয়ের অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

শাজাহান খান বলেন, বর্ষা মৌসুমে হওয়ায় এবারের ঈদুল ফিতরের আগের ৫ দিন ও পরের ৫ দিন মিলিয়ে মোট ১০ দিন দেশের নদীগুলোতে বালুর ট্রলার চলা বন্ধ থাকবে। নদীতে দুর্ঘটনা এড়াতে সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।তিনি বলেন, আবহাওয়া খারাপ থাকলে দুর্ঘটনা এড়াতে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ থাকবে। ঝুঁকি নিয়ে কোনো লঞ্চ চলতে দেয়া হবে না। যাত্রীদের কিছুটা হয়রানি বাড়লেও তা সহনীয় রাখার চেষ্টা করা হবে।নৌপরিবহনমন্ত্রী বলেন, দেশের লঞ্চঘাটগুলোয় নানা ধরনের অনিয়ম রোধে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছেন। সদরঘাটে এই প্রথমবারের মতো টিকিট কাউন্টার খোলা হয়েছে। তাই একটি লঞ্চে কতজন যাত্রী উঠলো তা জানা যাবে। এ সময় তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু উপস্থিত ছিলেন।