ঢাকা , রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ট্রেনের টিকেট ও ভ্রমণে আগের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে কর্তৃপক্ষ

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০৪:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ অগাস্ট ২০২০
  • / ৩৫৮ টাইম ভিউ

নলাইন ডেস্ক : জাতীয় পরিচয়পত্রসহ ভ্রমণের বিষয়ে শিথিলতা এনেছে রেলপথ মন্ত্রণালয়। নিজের নামে কাটা ট্রেনের টিকিট অন্য কারও কাছে বিক্রি বা হস্তান্তর করলে তিন মাস পর্যন্ত জেল ও জরিমানার সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে কর্তৃপক্ষ।

আজ বৃহস্পতিবার রেল মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তি দিয়ে নতুন বেশ কিছু নিয়ম সংযুক্ত করে। সেখানেই অন্যের টিকিটে ভ্রমণে তিন মাস জেল ও জরিমানা শিথিলতার বিষয়টি জানানো হয় ।

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মো. শরিফুল আলম স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, যাত্রীগণের যাতায়াতের সুবিধার্থে বাধ্যতামূলক জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদর্শন করার বিষয়টি শিথিল করা হলো এবং এক আইডি কার্ডে পরিবারের সর্বোচ্চ চার সদস্যের টিকিট ক্রয় ও ট্রেন ভ্রমণ করা যাবে।

এর আগে বাধ্যতামূলক জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদর্শন করে রেলের টিকিট কেনার বিষয়টি সবচেয়ে সমালোচিত হয়।

গত ১৩ আগস্ট বাংলাদেশ রেলওয়ের গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছিল, ট্রেনে ভ্রমণের জন্য কেনা টিকিট, যাত্রার স্থান থেকে ফেরার টিকিট অথবা নির্দিষ্ট মেয়াদের টিকিট হস্তান্তরযোগ্য নয়। একজনের টিকিটে অন্য কেউ ভ্রমণ করলে তাকে টিকিটের সমপরিমাণ জরিমানা দিতে হবে। এমনকি তাকে তিন মাসের কারাদণ্ডও ভোগ করতে হতে পারে। এই পরিস্থিতিতে অনলাইন বা মোবাইল অ্যাপ থেকে নিজ নিজ টিকিট কেটে যাত্রীদের রেল ভ্রমণ এবং অন্যের টিকিটে ভ্রমণ করা থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে।

পোস্ট শেয়ার করুন

ট্রেনের টিকেট ও ভ্রমণে আগের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে কর্তৃপক্ষ

আপডেটের সময় : ০৪:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ অগাস্ট ২০২০

নলাইন ডেস্ক : জাতীয় পরিচয়পত্রসহ ভ্রমণের বিষয়ে শিথিলতা এনেছে রেলপথ মন্ত্রণালয়। নিজের নামে কাটা ট্রেনের টিকিট অন্য কারও কাছে বিক্রি বা হস্তান্তর করলে তিন মাস পর্যন্ত জেল ও জরিমানার সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে কর্তৃপক্ষ।

আজ বৃহস্পতিবার রেল মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তি দিয়ে নতুন বেশ কিছু নিয়ম সংযুক্ত করে। সেখানেই অন্যের টিকিটে ভ্রমণে তিন মাস জেল ও জরিমানা শিথিলতার বিষয়টি জানানো হয় ।

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মো. শরিফুল আলম স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, যাত্রীগণের যাতায়াতের সুবিধার্থে বাধ্যতামূলক জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদর্শন করার বিষয়টি শিথিল করা হলো এবং এক আইডি কার্ডে পরিবারের সর্বোচ্চ চার সদস্যের টিকিট ক্রয় ও ট্রেন ভ্রমণ করা যাবে।

এর আগে বাধ্যতামূলক জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদর্শন করে রেলের টিকিট কেনার বিষয়টি সবচেয়ে সমালোচিত হয়।

গত ১৩ আগস্ট বাংলাদেশ রেলওয়ের গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছিল, ট্রেনে ভ্রমণের জন্য কেনা টিকিট, যাত্রার স্থান থেকে ফেরার টিকিট অথবা নির্দিষ্ট মেয়াদের টিকিট হস্তান্তরযোগ্য নয়। একজনের টিকিটে অন্য কেউ ভ্রমণ করলে তাকে টিকিটের সমপরিমাণ জরিমানা দিতে হবে। এমনকি তাকে তিন মাসের কারাদণ্ডও ভোগ করতে হতে পারে। এই পরিস্থিতিতে অনলাইন বা মোবাইল অ্যাপ থেকে নিজ নিজ টিকিট কেটে যাত্রীদের রেল ভ্রমণ এবং অন্যের টিকিটে ভ্রমণ করা থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে।