ঢাকা , মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা কুলাউড়ার হাজীপুরে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যার ১২ ঘন্টার মধ্যেই দুজন গ্রেফতার কুলাউড়ার হাজীপুর ইউনিয়নে প্রতিপক্ষের হামলায়  আছকির মিয়া (৫০)নিহত  হয়েছেন। বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বিএনপির আহবায়ক কমিটির অভিষেক ও পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত। সিলেট বিভাগের শ্রেষ্ঠ মাদ্রাসা প্রধান নির্বাচিত হলেন অধ্যক্ষ মাওলানা বশির আহমদ মুসলিম কমিউনিটি মৌলভীবাজার এর কমিটি গঠন

রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ কঠোরভাবে মোকাবেলা করা হবে: সেতুমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক :
  • আপডেটের সময় : ১১:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ জুন ২০১৭
  • / ১০৯২ টাইম ভিউ

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণ বসতি সরানোর ক্ষেত্রে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ কঠোরভাবে মোকাবেলা করা হবে। বললেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের টাইগারপাসে ঝুঁকিপূর্ণ বসতি দেখতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, দেশের কোথাও ঝুঁকিপূর্ণ বসতির ক্ষেত্রে কোনো ধরনের রাজনৈতিক প্রভাব সহ্য করা হবে না। এসব কঠোরভাবে দমন করা হবে। জনপ্রতিনিধির প্রথম দায়িত্ব হচ্ছে ঝুঁকিপূর্ণ বসতিতে থাকা মানুষদের সরিয়ে নেয়া। উদ্ধারে দরকার হলে বলপ্রয়োগ করে তাদের নিরাপদ আশ্রয়ে আনতে হবে।তিনি বলেন, তিন পার্বত্য এলাকায় যারা পাহাড় ধসে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন তাদের বেশির ভাগই নারী ও শিশু। প্রাকৃতিক দুর্যোগ থাকবেই। কিন্তু সেটি মোকাবেলায়ে আমরা প্রতিকারমূলক ব্যবস্থা না নিয়ে প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছি।মন্ত্রী বলেন, ভবিষ্যতে যে এ ধরনের দুর্যোগ আর হবে না তা কেউ বলতে পারি না। এজন্য দায়ী আমাদের অপরিকল্পিত বসতি ও মানসিকতা। গরিব মানুষ জানমালের ঝুঁকি থাকার পরও বসতি ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে চায় না। কিন্তু আমাদের উচিত তাদেরকে জোর করে নিরাপদে নিয়ে যাওয়া।পাহাড় ধসে রাঙামাটিতে বেশি প্রাণহানির বিষয়ে কাদের বলেন, সেখানে প্রতিরোধমূলক দেয়াল ছিল না। ঝুঁকিপূর্ণ বসতিগুলো শুধু শহরে নয় গ্রামেও রয়েছে। এখনও যেসব পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণ বসবাস রয়েছে সেগুলো অবিলম্বের সরাতে হবে।

পোস্ট শেয়ার করুন

রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ কঠোরভাবে মোকাবেলা করা হবে: সেতুমন্ত্রী

আপডেটের সময় : ১১:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ জুন ২০১৭

পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণ বসতি সরানোর ক্ষেত্রে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ কঠোরভাবে মোকাবেলা করা হবে। বললেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের টাইগারপাসে ঝুঁকিপূর্ণ বসতি দেখতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, দেশের কোথাও ঝুঁকিপূর্ণ বসতির ক্ষেত্রে কোনো ধরনের রাজনৈতিক প্রভাব সহ্য করা হবে না। এসব কঠোরভাবে দমন করা হবে। জনপ্রতিনিধির প্রথম দায়িত্ব হচ্ছে ঝুঁকিপূর্ণ বসতিতে থাকা মানুষদের সরিয়ে নেয়া। উদ্ধারে দরকার হলে বলপ্রয়োগ করে তাদের নিরাপদ আশ্রয়ে আনতে হবে।তিনি বলেন, তিন পার্বত্য এলাকায় যারা পাহাড় ধসে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন তাদের বেশির ভাগই নারী ও শিশু। প্রাকৃতিক দুর্যোগ থাকবেই। কিন্তু সেটি মোকাবেলায়ে আমরা প্রতিকারমূলক ব্যবস্থা না নিয়ে প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছি।মন্ত্রী বলেন, ভবিষ্যতে যে এ ধরনের দুর্যোগ আর হবে না তা কেউ বলতে পারি না। এজন্য দায়ী আমাদের অপরিকল্পিত বসতি ও মানসিকতা। গরিব মানুষ জানমালের ঝুঁকি থাকার পরও বসতি ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে চায় না। কিন্তু আমাদের উচিত তাদেরকে জোর করে নিরাপদে নিয়ে যাওয়া।পাহাড় ধসে রাঙামাটিতে বেশি প্রাণহানির বিষয়ে কাদের বলেন, সেখানে প্রতিরোধমূলক দেয়াল ছিল না। ঝুঁকিপূর্ণ বসতিগুলো শুধু শহরে নয় গ্রামেও রয়েছে। এখনও যেসব পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণ বসবাস রয়েছে সেগুলো অবিলম্বের সরাতে হবে।