ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
প্রিয়জনদের মানসিক রোগ যদি আপনজন বুঝতে না পারেন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ও অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে পর্তুগাল আওয়ামীলীগ যেকোনো প্রচেষ্টা এককভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব নয়: দুদক সচিব শ্রীমঙ্গলে দুটি চোরাই মোটরসাইকেল সহ মিল্টন কুমার আটক পর্তুগালের অভিবাসন আইনে ব্যাপক পরিবর্তন পর্তুগাল বিএনপি আহবায়ক কমিটির জুমে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয় এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে…

মৌলভীবাজারজুড়ে অসহনীয় লোডশেডিং; অতিষ্ঠ জনগণ

মাহদী হাসান
  • আপডেটের সময় : ১০:৫৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুলাই ২০২৩
  • / ২৬৯ টাইম ভিউ

বৃহস্পতিবার (২০ জুলাই) মৌলভীবাজারে দিনভর ছিল গরমের তীব্রতা। এরমধ্যে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ হয়ে পড়ে জনজীবন। শুধুমাত্র শহরঞ্চল নয়, গ্রামাঞ্চলেও ঘণ্টার পর ঘণ্টা ছিল লোডশেডিংয়ের তীব্রতা। ফলে মানুষজন অতিষ্ঠ হয়ে ওঠেন।   

দফায় দফায় লোডশেডিংয়ের কারণে দুর্ভোগে পড়েছেন মৌলভীবাজারের জনসাধারণ। তীব্র গরমে অতিরিক্ত লোডশেডিংয়ে বাসাবাড়িতে থালা দুস্কর হয়েছে শহরের বাসাধারীদের। ভোগান্তি নেমেছে অফিস, আদালতে। বিশেষ করে বিদ্যুতহীনতায় দূর্ভোগে পড়েছেন শহরের ব্যবসায়ীরা।

মৌলভীবাজার শহরের এক ব্যবসায়ী জানান, শহরঞ্চলে এতটা লোডশেডিং আগে ছিলোনা। এক ঘন্টা কারেন্ট না থাকলে আমরা ব্যবসায়ীরা কয়েক হাজার টাকার লোকসান গুনতে হয়। আরেক ব্যবসায়ী জানান, কারেন্ট না থাকায় দিনভর বন্ধ হয়ে আছে ইলেক্ট্রনিক কাজগুলো। এতে করে মহাজনদের পাশাপাশি ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে কাস্টমারদেরও। এ ছাড়াও তীব্র গরমে শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

বিউবো প্রকৌশলী আব্দুল কাদির জানান, কয়েকদিনের বৃষ্টিপাত শেষে হঠাৎ করে গরম পড়ায় বিদ্যুতের চাহিদা বেড়েছে। কম উৎপাদন ও সরবরাহের ঘাটতি থাকায় বিদ্যুৎ পরিস্থিতির এমন উদ্ভব হয়েছে।

পোস্ট শেয়ার করুন

মৌলভীবাজারজুড়ে অসহনীয় লোডশেডিং; অতিষ্ঠ জনগণ

আপডেটের সময় : ১০:৫৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুলাই ২০২৩

বৃহস্পতিবার (২০ জুলাই) মৌলভীবাজারে দিনভর ছিল গরমের তীব্রতা। এরমধ্যে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ হয়ে পড়ে জনজীবন। শুধুমাত্র শহরঞ্চল নয়, গ্রামাঞ্চলেও ঘণ্টার পর ঘণ্টা ছিল লোডশেডিংয়ের তীব্রতা। ফলে মানুষজন অতিষ্ঠ হয়ে ওঠেন।   

দফায় দফায় লোডশেডিংয়ের কারণে দুর্ভোগে পড়েছেন মৌলভীবাজারের জনসাধারণ। তীব্র গরমে অতিরিক্ত লোডশেডিংয়ে বাসাবাড়িতে থালা দুস্কর হয়েছে শহরের বাসাধারীদের। ভোগান্তি নেমেছে অফিস, আদালতে। বিশেষ করে বিদ্যুতহীনতায় দূর্ভোগে পড়েছেন শহরের ব্যবসায়ীরা।

মৌলভীবাজার শহরের এক ব্যবসায়ী জানান, শহরঞ্চলে এতটা লোডশেডিং আগে ছিলোনা। এক ঘন্টা কারেন্ট না থাকলে আমরা ব্যবসায়ীরা কয়েক হাজার টাকার লোকসান গুনতে হয়। আরেক ব্যবসায়ী জানান, কারেন্ট না থাকায় দিনভর বন্ধ হয়ে আছে ইলেক্ট্রনিক কাজগুলো। এতে করে মহাজনদের পাশাপাশি ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে কাস্টমারদেরও। এ ছাড়াও তীব্র গরমে শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

বিউবো প্রকৌশলী আব্দুল কাদির জানান, কয়েকদিনের বৃষ্টিপাত শেষে হঠাৎ করে গরম পড়ায় বিদ্যুতের চাহিদা বেড়েছে। কম উৎপাদন ও সরবরাহের ঘাটতি থাকায় বিদ্যুৎ পরিস্থিতির এমন উদ্ভব হয়েছে।