ঢাকা , রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
লিসবনে আত্মপ্রকাশ হয় সামাজিক সংগঠন “গোলাপগঞ্জ কমিউনিটি কেয়ারর্স পর্তুগাল “ উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল

মুফতি জাকারিয়া’র জানাজায় লাখো মানুষের ঢল

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ
  • আপডেটের সময় : ১১:৪১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ মার্চ ২০১৯
  • / ৮৬০ টাইম ভিউ

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ   জামেয়া ক্বাসিমুল উলূম দরগাহ হযরত শাহজালাল (রহ.) সিলেটের মুহতামিম ও শায়খুল হাদীস মুফতি আবুল কালাম জাকারিয়ার জানাজা সম্পন্ন হয়েছে। জানাযায় লাখো মানুষের ঢল নামে।

মঙ্গলবার বেলা ১১টায় সিলেট সরকারি আলিয়া মাদরাসা মাঠে মরহুমের জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। জানাজার নামাজে ইমামতি করেন জামেয়া ক্বাসিমুল উলূম দরগাহ হযরত শাহজালাল (রহ.) সিলেটের ভারপ্রাপ্ত মুহতামিম বিশিষ্ট আলেম মুহিব্বুল হক গাছবাড়ি।পরে হযরত শাহজালাল (রহ:) এর মাজারের পাশের কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

মুফতি মাওলানা জাকারিয়ার নামাাজে জানাযায় অংশ নিতে সকাল থেকে নগরী ও আশপাশের উপজেলা থেকে লোকজন আলিয়া মাদরাসায় আসতে থাকেন। জানাজার নামাজের নির্ধারিত সময়ের আগেই মাঠ ভরে যায়। পরে মাঠের চার পাশের খালি জায়গায় ও চৌহাট্টা রিকাবীবাজার সড়কে দাঁড়িয়ে মানুষ জানাজায় অংশগ্রহণ করেন। নামাজের পূর্বে মরহুমের জীবনী নিয়ে দেশ বরেণ্যে রাজনীতিবিদ, আলেম-উলামারা বক্তব্য রাখেন। এ সময় তারা বলেন, মুফতি যাকারিয়্যা ছিলেন একজন সর্বজনশ্রদ্ধেয় আলেমে দ্বীন ও বহুগুণে গুণান্বিত শ্রদ্ধাভাজন মানুষ। দ্বীনি শিক্ষার প্রচার-প্রসার ও বিভিন্ন আন্দোলন-সংগ্রামে তার অবদান অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে। তার মৃত্যুতে ইসলামি রাজনৈতিক অঙ্গনের অপূরণীয় ক্ষতি হল। বক্তারা মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। উল্লেখ্য, গতকাল সোমবার (১১মার্চ) বিকেল ৫টার দিকে মাদরাসা থেকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সিলেট অঞ্চলের প্রখ্যাত আলেম। তার মৃত্যুতে ইসলামি অঙ্গনে গভীর শোক নেমে আসে। মুফতি যাকারিয়্যা দাওয়াতুল হক বাংলাদেশের সিলেট জেলার আমীর ছিলেন।তিনি দাওয়াতুল হকের আমির ও গুলশান আজাদ মসজিদের খতিব আল্লামা মাহমূদুল হাসানের অন্যতম খলিফা। মুফতি আবুল কালাম যাকারিয়্যা জন্ম সুনামগঞ্জ জেলায়। পড়ালেখা করেন দরগাহ মাদরাসায়। সিলেট শাহজালাল রহ. দরগাহ মসজিদ ও আম্ভরখানা জামে মসজিদে খতিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।তিনি খলিফায়ে মাদানি আল্লামা আব্দুল হক শায়খে গাজিনগরী রহ. এর জামাতা। তিনি ৩ ছেলে ও ৩ মেয়ে রেখে গেছেন।

পোস্ট শেয়ার করুন

মুফতি জাকারিয়া’র জানাজায় লাখো মানুষের ঢল

আপডেটের সময় : ১১:৪১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ মার্চ ২০১৯

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ   জামেয়া ক্বাসিমুল উলূম দরগাহ হযরত শাহজালাল (রহ.) সিলেটের মুহতামিম ও শায়খুল হাদীস মুফতি আবুল কালাম জাকারিয়ার জানাজা সম্পন্ন হয়েছে। জানাযায় লাখো মানুষের ঢল নামে।

মঙ্গলবার বেলা ১১টায় সিলেট সরকারি আলিয়া মাদরাসা মাঠে মরহুমের জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। জানাজার নামাজে ইমামতি করেন জামেয়া ক্বাসিমুল উলূম দরগাহ হযরত শাহজালাল (রহ.) সিলেটের ভারপ্রাপ্ত মুহতামিম বিশিষ্ট আলেম মুহিব্বুল হক গাছবাড়ি।পরে হযরত শাহজালাল (রহ:) এর মাজারের পাশের কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

মুফতি মাওলানা জাকারিয়ার নামাাজে জানাযায় অংশ নিতে সকাল থেকে নগরী ও আশপাশের উপজেলা থেকে লোকজন আলিয়া মাদরাসায় আসতে থাকেন। জানাজার নামাজের নির্ধারিত সময়ের আগেই মাঠ ভরে যায়। পরে মাঠের চার পাশের খালি জায়গায় ও চৌহাট্টা রিকাবীবাজার সড়কে দাঁড়িয়ে মানুষ জানাজায় অংশগ্রহণ করেন। নামাজের পূর্বে মরহুমের জীবনী নিয়ে দেশ বরেণ্যে রাজনীতিবিদ, আলেম-উলামারা বক্তব্য রাখেন। এ সময় তারা বলেন, মুফতি যাকারিয়্যা ছিলেন একজন সর্বজনশ্রদ্ধেয় আলেমে দ্বীন ও বহুগুণে গুণান্বিত শ্রদ্ধাভাজন মানুষ। দ্বীনি শিক্ষার প্রচার-প্রসার ও বিভিন্ন আন্দোলন-সংগ্রামে তার অবদান অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে। তার মৃত্যুতে ইসলামি রাজনৈতিক অঙ্গনের অপূরণীয় ক্ষতি হল। বক্তারা মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। উল্লেখ্য, গতকাল সোমবার (১১মার্চ) বিকেল ৫টার দিকে মাদরাসা থেকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সিলেট অঞ্চলের প্রখ্যাত আলেম। তার মৃত্যুতে ইসলামি অঙ্গনে গভীর শোক নেমে আসে। মুফতি যাকারিয়্যা দাওয়াতুল হক বাংলাদেশের সিলেট জেলার আমীর ছিলেন।তিনি দাওয়াতুল হকের আমির ও গুলশান আজাদ মসজিদের খতিব আল্লামা মাহমূদুল হাসানের অন্যতম খলিফা। মুফতি আবুল কালাম যাকারিয়্যা জন্ম সুনামগঞ্জ জেলায়। পড়ালেখা করেন দরগাহ মাদরাসায়। সিলেট শাহজালাল রহ. দরগাহ মসজিদ ও আম্ভরখানা জামে মসজিদে খতিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।তিনি খলিফায়ে মাদানি আল্লামা আব্দুল হক শায়খে গাজিনগরী রহ. এর জামাতা। তিনি ৩ ছেলে ও ৩ মেয়ে রেখে গেছেন।