ঢাকা , শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুগাবের পদত্যাগ দাবিতে জিম্বাবুয়েতে ব্যাপক বিক্ষোভ

অনলাইন ডেস্ক :
  • আপডেটের সময় : ০১:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৭
  • / ১১৬৯ টাইম ভিউ

আফ্রিকার দেশ জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবের পদত্যাগ দাবিতে উত্তাল হয়ে ওঠেছে দেশটির রাজধানী হারারে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম- বিবিসি জানাচ্ছে, প্রেসিডেন্টের পদত্যাগের দাবি নিয়ে সেনাবাহিনীর সমর্থনে হাজারো মানুষ হারারের রাস্তায় অবস্থান নিয়েছে। আর এর মধ্যেই শোনা যাচ্ছে, মুগাবেকে আর ক্ষমতায় চাচ্ছেনা তার নিজের দলও। তার উপর ‘অনাস্থা’ এনে তারই ক্ষমতাসীন দল জানু-পিএফ পার্টি তাকে পদত্যাগ করার আহ্বান জানিয়েছে। এই খবর প্রকাশ করেছে জিম্বাবুয়ের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম। দেশটির হেরাল্ড নিউজ পেপারের সংবাদ অনুযায়ী, দেশটির দশটি আঞ্চলিক শাখা থেকেই মুগাবেকে পদত্যাগের জন্য ডাক দেয়া হয়েছে। তবে বিক্ষোভের আগেই জানু-এফ পার্টির আঞ্চলিক শাখাগুলো তাকে পদত্যাগের জন্য এই ডাক দেয়া হলো। দেশটির উদারপন্থীরাও তাকে পদত্যাগের আহবান জানিয়েছে। সেনারা জিম্বাবুয়ের নিয়ন্ত্রণ নেবার পর থেকে মুগাবে গৃহবন্দী আছেন যদিও তিনি পদত্যাগ করতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছেন বলে জানা যাচ্ছে। সেনারা দেশটির নিয়ন্ত্রণ নেবার পর শুক্রবার প্রথমবারের মতো তাকে জনসম্মুখে দেখা যায়। সে সময় তিনি একটি সমাবর্তন অনুষ্ঠানে যোগ দেন। ১৯৮০ সাল থেকে জিম্বাবুয়ের ক্ষমতায় রয়েছেন ৯৩ বছর বয়সী প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে। প্রেসিডেন্ট মুগাবে গত সপ্তাহে তার ভাইস প্রেসিডেন্ট এমারসন নানগাগওয়াকে বরখাস্ত করলে এই রাজনৈতিক সংকটের সূচনা হয়। নানগাগওয়াকে এতদিন প্রেসিডেন্ট মুগাবের উত্তরসূরি ভাবা হলেও সম্প্রতি তার জায়গায় ফার্স্ট লেডি গ্রেস মুগাবের নাম সামনে চলে আসে। এর জের ধরে নানগাগওয়াকে বরখাস্ত করেন মুগাবে। আর তারপরই দেশটির ক্ষমতার নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করে জিম্বাবুয়ের সেনাবাহিনী। বিবিসি।

পোস্ট শেয়ার করুন

মুগাবের পদত্যাগ দাবিতে জিম্বাবুয়েতে ব্যাপক বিক্ষোভ

আপডেটের সময় : ০১:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৭

আফ্রিকার দেশ জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবের পদত্যাগ দাবিতে উত্তাল হয়ে ওঠেছে দেশটির রাজধানী হারারে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম- বিবিসি জানাচ্ছে, প্রেসিডেন্টের পদত্যাগের দাবি নিয়ে সেনাবাহিনীর সমর্থনে হাজারো মানুষ হারারের রাস্তায় অবস্থান নিয়েছে। আর এর মধ্যেই শোনা যাচ্ছে, মুগাবেকে আর ক্ষমতায় চাচ্ছেনা তার নিজের দলও। তার উপর ‘অনাস্থা’ এনে তারই ক্ষমতাসীন দল জানু-পিএফ পার্টি তাকে পদত্যাগ করার আহ্বান জানিয়েছে। এই খবর প্রকাশ করেছে জিম্বাবুয়ের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম। দেশটির হেরাল্ড নিউজ পেপারের সংবাদ অনুযায়ী, দেশটির দশটি আঞ্চলিক শাখা থেকেই মুগাবেকে পদত্যাগের জন্য ডাক দেয়া হয়েছে। তবে বিক্ষোভের আগেই জানু-এফ পার্টির আঞ্চলিক শাখাগুলো তাকে পদত্যাগের জন্য এই ডাক দেয়া হলো। দেশটির উদারপন্থীরাও তাকে পদত্যাগের আহবান জানিয়েছে। সেনারা জিম্বাবুয়ের নিয়ন্ত্রণ নেবার পর থেকে মুগাবে গৃহবন্দী আছেন যদিও তিনি পদত্যাগ করতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছেন বলে জানা যাচ্ছে। সেনারা দেশটির নিয়ন্ত্রণ নেবার পর শুক্রবার প্রথমবারের মতো তাকে জনসম্মুখে দেখা যায়। সে সময় তিনি একটি সমাবর্তন অনুষ্ঠানে যোগ দেন। ১৯৮০ সাল থেকে জিম্বাবুয়ের ক্ষমতায় রয়েছেন ৯৩ বছর বয়সী প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে। প্রেসিডেন্ট মুগাবে গত সপ্তাহে তার ভাইস প্রেসিডেন্ট এমারসন নানগাগওয়াকে বরখাস্ত করলে এই রাজনৈতিক সংকটের সূচনা হয়। নানগাগওয়াকে এতদিন প্রেসিডেন্ট মুগাবের উত্তরসূরি ভাবা হলেও সম্প্রতি তার জায়গায় ফার্স্ট লেডি গ্রেস মুগাবের নাম সামনে চলে আসে। এর জের ধরে নানগাগওয়াকে বরখাস্ত করেন মুগাবে। আর তারপরই দেশটির ক্ষমতার নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করে জিম্বাবুয়ের সেনাবাহিনী। বিবিসি।