ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মিরপুরে পোশাক শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ, বিক্ষোভ

অনলাইন ডেস্ক :
  • আপডেটের সময় : ১০:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ অগাস্ট ২০১৭
  • / ১৩৭৫ টাইম ভিউ

রাজধানীর মিরপুরে বেতনের দাবিতে ও কর্মী ছাটাইয়ের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন পোশাক শ্রমিকরা।
সোমবার সকালে মিরপুর-২ নম্বরের চিড়িয়াখানা সড়কে মেরিডিয়ান ফ্যাশনস লিমিটেডের শ্রমিকরা বিক্ষোভ শুরু করে।
এরপর পুলিশ লাঠিচার্জ করে শ্রমিকদের সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলে উভয় পক্ষে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে পুলিশসহ আহত হন ১০ জন।
পরে দুপুরের দিকে মেরিডিয়ানের শ্রমিকদের সঙ্গে আশেপাশের কোরিয়ান, ট্যানুয়েল, কোর্ডিয়ান ও পদ্মাসহ বিভিন্ন পোশাক কারখানার শ্রমিকরা যোগ দেন।
এতে চিড়িয়াখানা সড়কসহ মিরপুর-১ থেকে মিরপুর-১০ মুখী সড়কেও যান চলাচল বন্ধ হয়ে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।
মেরিডিয়ানের শ্রমিকরা জানান, বকেয়া বেতন-ভাতা ও প্রতি মাসের ৭ তারিখের মধ্যে বেতন দেয়ার দাবিতে কয়েক দিন ধরে আন্দোলন করে আসছিলেন তারা।
এর জের ধরে গত শনিবার কারখানাটির ২২ জন নেতৃস্থানীয় শ্রমিককে চাকরিচ্যুত করা হয়।
এরপর সোমবার সকালে কারখানা বন্ধের নোটিশ ঝুলিয়ে ফটকে তালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়।
নোটিশে বলা হয়, ‘এতদ্বারা সকল শ্রমিকদের অবগতির জন্য জানানো হচ্ছে যে, অবৈধ ধর্মঘটের কারণে বাংলাদেশের শ্রম আইন ২০০৬, ধারা ১৩ অনুযায়ী ফ্যাক্টরি আগামী ০৭-০৮-২০১৭ থেকে ০৯-০৮-২০১৭ পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হইল। পরিস্থিতি অনুকূলে না আসলে এ বন্ধের মেয়াদ আরো বাড়ানো হইবে।’
সোমবার সকালে কাজ করতে এসে এ নোটিশ দেখে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা হয়ে ওঠেন। এক পর্যায়ে তারা সড়কে নেমে এসে বিক্ষোভ শুরু করেন। তারা মিরপুর-১ নম্বরের কিয়াংসি চায়নিজ রেস্টুরেন্টের সামনের বেশ কয়েকটি যানবাহন ভাংচুর করেন।
শাহআলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার আলী  জানান, সোমবার সকাল ১০টার দিকে গার্মেন্টসটির শ্রমিকরা বেতন-ভাতার দাবিতে রাস্তায় নামেন। শ্রমিকরা রাস্তায় যানচলাচলে বিঘ্ন ঘটালে পুলিশ বাধা দেয়। কিন্তু বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। এতে আহত হয়েছেন শাহআলী থানার পরিদর্শক (অপারেশন্স) মেহেদি হাসান। মাথায় আঘাত পান তিনি। এরপর শুরু হয় পুলিশ-শ্রমিকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া।
মিরপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান জানান, শ্রমিকরা মিরপুর ১ নম্বরে সড়ক অবরোধ করে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। এসময় তাদের সড়ক থেকে সরানোর চেষ্টা করলে পুলিশের ওপর তারা হামলা করে।

জানা গেছে, পুলিশের অ্যাকশনের মুখে শ্রমিকরা সনি সিনেমা হল, চিড়িয়াখানা সড়ক এবং ১ নম্বরসহ আশেপাশের বিভিন্ন গলিতে সরে যায়।

পরে মেরিডিয়ানের শ্রমিকদের সঙ্গে আশেপাশের কারখানাগুলোর শ্রমিকরা যোগ দিলে তারা ফের সড়কে এসে অবস্থান নেয়।

এসময় শ্রমিকরা বেশ কিছু গাড়ি ভাংচুর করে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে বিকালের দিকে শ্রমিকদের শান্তিপূর্ণভাবে সড়কে অবস্থান করতে দেখা যায়।

পোস্ট শেয়ার করুন

মিরপুরে পোশাক শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ, বিক্ষোভ

আপডেটের সময় : ১০:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ অগাস্ট ২০১৭

রাজধানীর মিরপুরে বেতনের দাবিতে ও কর্মী ছাটাইয়ের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন পোশাক শ্রমিকরা।
সোমবার সকালে মিরপুর-২ নম্বরের চিড়িয়াখানা সড়কে মেরিডিয়ান ফ্যাশনস লিমিটেডের শ্রমিকরা বিক্ষোভ শুরু করে।
এরপর পুলিশ লাঠিচার্জ করে শ্রমিকদের সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলে উভয় পক্ষে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে পুলিশসহ আহত হন ১০ জন।
পরে দুপুরের দিকে মেরিডিয়ানের শ্রমিকদের সঙ্গে আশেপাশের কোরিয়ান, ট্যানুয়েল, কোর্ডিয়ান ও পদ্মাসহ বিভিন্ন পোশাক কারখানার শ্রমিকরা যোগ দেন।
এতে চিড়িয়াখানা সড়কসহ মিরপুর-১ থেকে মিরপুর-১০ মুখী সড়কেও যান চলাচল বন্ধ হয়ে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।
মেরিডিয়ানের শ্রমিকরা জানান, বকেয়া বেতন-ভাতা ও প্রতি মাসের ৭ তারিখের মধ্যে বেতন দেয়ার দাবিতে কয়েক দিন ধরে আন্দোলন করে আসছিলেন তারা।
এর জের ধরে গত শনিবার কারখানাটির ২২ জন নেতৃস্থানীয় শ্রমিককে চাকরিচ্যুত করা হয়।
এরপর সোমবার সকালে কারখানা বন্ধের নোটিশ ঝুলিয়ে ফটকে তালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়।
নোটিশে বলা হয়, ‘এতদ্বারা সকল শ্রমিকদের অবগতির জন্য জানানো হচ্ছে যে, অবৈধ ধর্মঘটের কারণে বাংলাদেশের শ্রম আইন ২০০৬, ধারা ১৩ অনুযায়ী ফ্যাক্টরি আগামী ০৭-০৮-২০১৭ থেকে ০৯-০৮-২০১৭ পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হইল। পরিস্থিতি অনুকূলে না আসলে এ বন্ধের মেয়াদ আরো বাড়ানো হইবে।’
সোমবার সকালে কাজ করতে এসে এ নোটিশ দেখে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা হয়ে ওঠেন। এক পর্যায়ে তারা সড়কে নেমে এসে বিক্ষোভ শুরু করেন। তারা মিরপুর-১ নম্বরের কিয়াংসি চায়নিজ রেস্টুরেন্টের সামনের বেশ কয়েকটি যানবাহন ভাংচুর করেন।
শাহআলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার আলী  জানান, সোমবার সকাল ১০টার দিকে গার্মেন্টসটির শ্রমিকরা বেতন-ভাতার দাবিতে রাস্তায় নামেন। শ্রমিকরা রাস্তায় যানচলাচলে বিঘ্ন ঘটালে পুলিশ বাধা দেয়। কিন্তু বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। এতে আহত হয়েছেন শাহআলী থানার পরিদর্শক (অপারেশন্স) মেহেদি হাসান। মাথায় আঘাত পান তিনি। এরপর শুরু হয় পুলিশ-শ্রমিকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া।
মিরপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান জানান, শ্রমিকরা মিরপুর ১ নম্বরে সড়ক অবরোধ করে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। এসময় তাদের সড়ক থেকে সরানোর চেষ্টা করলে পুলিশের ওপর তারা হামলা করে।

জানা গেছে, পুলিশের অ্যাকশনের মুখে শ্রমিকরা সনি সিনেমা হল, চিড়িয়াখানা সড়ক এবং ১ নম্বরসহ আশেপাশের বিভিন্ন গলিতে সরে যায়।

পরে মেরিডিয়ানের শ্রমিকদের সঙ্গে আশেপাশের কারখানাগুলোর শ্রমিকরা যোগ দিলে তারা ফের সড়কে এসে অবস্থান নেয়।

এসময় শ্রমিকরা বেশ কিছু গাড়ি ভাংচুর করে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে বিকালের দিকে শ্রমিকদের শান্তিপূর্ণভাবে সড়কে অবস্থান করতে দেখা যায়।