ঢাকা , রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে… এই অভ্যাসগুলোর চর্চা নিয়মিত করা উচিৎ স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য থাকা জরুরি কেনো ? পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা

মান্না সর্দারের প্রচষ্টায় ২৬৫ জন যাত্রী ঢাকা থেকে ইতালী পৌছালো চার্টার ফ্লাইট

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০৭:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুন ২০২০
  • / ১৬৬৬ টাইম ভিউ

ইতালী থেকে সৈয়দ ফয়সাল:

বৈশ্বিক মহামারী করোনায় যখন পৃথিবীময় লকডাউনে,যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন পৃথিবী,লাশের মিছিলে আতংন্কিত মানবসমাজ, আর সেই লাশের মিছিলটি সবচেয়ে বেশী ছিলো ইতালীতে তখন ইতালীর প্রধান মিডিয়াতে বলেন আমাদের কিছু করার নেই শুধুমাত্র আকাশের দিকে থাকিয়ে থাকবে হবে ।পৃথিবী হতাশাগ্রস্হ শক্তিধর শহরগুলো ব্যার্থ । বিভিন্ন দেশে যে যেখানে আছে আটকে গেছে বৈশ্বিক করোনা মহামারীর বিপর্যয়ে মধ্যে । কারো কিছু করার নেই, প্রকৃতির নিয়মেই চলতে বাধ্য হয়েছে বিশ্বাসী ।
ঢাকা সহ বিভিন্ন রাস্ট্র থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য তাদের বাসিন্দাদের নিয়ে যাচ্ছে বিশেষ ফ্লাইটে ।
এদিকে ইতালীতে বসবাসরত বাংলাদেশীরা দেশে এসে আটকে গেছেন তারমধ্যে বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী সমাজসেবক মান্না সর্দারের ঘনিষ্ট কয়েকজন ছিলেন এর মধ্যে ।
তারা যখন যোগাযোগ করলো মান্না সর্দার সাথে এবং সে মানবিক দিক দিয়ে চিন্তায় পড়ে গেলো কি করা যায় , তখনই তার স্বরনে আসলো বাংলাদেশ বিমানের মহাব্যবস্থাপক মোকাব্বির হোসেন কথা উল্লেখ্য তারা দুজনই মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলা পৌর এলাকার একই পাড়ার এবং আত্মীয়। সেই সুবাধে সহজেই মান্না সর্দার বিমানের এমডি সাথে যোগাযোগ করে একটি ফ্লাইট দিয়ে সহযোগিতা করার অনুরোধ জানান ।
তখন আলাপচারিতায় এমডি বিমানের নিয়ম সম্পর্কে মান্না সর্দার কে অবহিত করেন ।ঢাকা থেকে ইতালীতে একটি চার্টার ফ্লাইট আসছে আগামী ১২ই জুন। এখন পর্যন্ত ২৬৫ জন যাত্রী নিয়ে রোমগামী বাংলাদেশ বিমানের চার্টার ফ্লাইটটি ইতোমধ্যে নিশ্চিত করা হয়েছে। বাংলাদেশ বিমানের ওয়েবসাইটে বৃহস্পতিবার এটি নির্দিষ্ট করে জানানো হয়েছে। ইতালীর দু’জন প্রবাসী ব্যবসায়ী মান্না সর্দার প্রানান্তকর প্রচেষ্টায় চার্টার ফ্লাইটটি পরিচালনা করা হচ্ছে। রোমগামী অতিরিক্ত যাত্রী হলে একই দিন আরও একটি চার্টার ফ্লাইট পরিচালনা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন উদ্যোক্তরা।

এদিকে রোম থেকে নিয়মিত ফ্লাইট ২০ জুনের পর থেকে পরিচালনা হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। ২১ জুন কাতার ও তুর্কি এয়ারওয়েজ এবং ১লা জুলাই এমিরেটস এয়ারওয়েজ তাদের বিমান পরিচালনা করবে বলে জানা গেছে।

তবে সেটি সম্পূর্ন নির্ভর করছে বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতির ওপর। লডডাউন কিংবা সরকারি ছুটি বৃদ্ধি করা হলে বাংলাদেশ থেকে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পরিচালনা বিলম্ব হবে।চার্টার বিমান পরিচালনা সম্পর্কে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ইতালীর ভিসেন্সা শহরের আরজিনিয়ানো কমুনের ব্যবসায়ী ও স্থানীয় সামাজিক ব্যক্তিত্ব, সিলেট বিভাগ সমিতির প্রধান উপদেষ্টা মান্না সর্দার দেশদিগন্ত কে মুটোফোন বলেন করোনায় কয়েক হাজার ইতালী প্রবাসী বাংলাদেশে আটকা পড়ে আছে ।তা প্রচন্ডভাবে কষ্ট দিতে থাকে মান্না সর্দারকে, ব্যবসা পরিচালনার পাশাপাশি কিভাবে প্রবাসীদের ইতালীতে নিয়ে আসা যায় সেটি নিয়ে ভাবতে থাকেন তিনি। উপায়ন্তর না পেয়ে বিশেষ বিমান পরিচালনা নিয়ে চিন্তা করেন এবং বাংলাদেশ বিমানের এমডির সাথে ফোনে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন, কিন্ত এমডি সাহেব বিমানের যাত্রী ২৬৫ জন হতে হবে না হয় টিকিটের মূল্য বেশী হবে জানান । আলোচনা যদিও ফলপ্রসূ হয়েছে তবে যাত্রী নিয়ে চিন্তিত হয়ে পরেন , তখন তিনি সোস্যাল মিডিয়াতে লাইভে এসে বাংলাদেশী ইতালীতে বসবাসরতের উদ্দেশ্য বিস্তারিত বলেন ।
লাইভের পর ব্যাপক সাড়া পান তিনি ।বিষয়টি সম্পর্কে ইতালীর জৈনক সাংবাদিক কে যাত্রী সংগ্রহের জন্য সহযোগিতা করার আহবান জানান ।যাত্রী কিভাবে পাওয়া যাবে সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করে সহযোগীতা কামনা করেন।
ধারাবাহিকভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এবং লাইভে ঢাকা থেকে রোমগামী চার্টার বিমান পরিচালনা সম্পর্কে প্রচারনা শুরু করেন। সবশেষ ৪ জুন বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ বিমানের ওয়েবসাইটে চার্টার বিমান পরিচালনা সম্পর্কে একটি বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। সেখানে বলা হয়েছিলো গত ১২ জুন সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে ঢাকা থেকে রোমগামী (ফ্লাইট নাম্বার জুন বিজি-৪১০৫/১২) একটি ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।
তখন বুকিং দেয়া যাত্রীদের ঢাকা, সিলেট এবং চট্টগ্রামের বাংলাদেশ বিমান অফিস থেকে টিকিট সংগ্রহের জন্য বলা হয়েছিলো ।

রোমগামী চার্টার বিমান পরিচালনায় প্রধান উদ্যোক্তা সিলেটের প্রবাসী ব্যবসায়ী মান্না সর্দার এ সম্পর্কে আরো জানান, আমি অত্যন্ত আনন্দিত- অবশেষে প্রচেষ্টা সফল হচ্ছে। পুরো বিমানের যাত্রীদের তালিকা আমি দিয়েছিলাম, আমার মেয়ে প্রতিটি যাত্রীর নামের তালিকা করে বিমান অফিসে পাঠিয়েছিলো, উনি বলেন আমার সামাজিক কাজের মধ্যে জীবনে এটিই প্রথম একটি মহৎ উদ্যোগ যেখানে প্রবাসীদের পাশে সফলভাবে থাকতে পেরেছি। অত্যন্ত ভাল লাগছে, বিশেষকরে এ কারণে যে, করোনায় যেখানে দেশে মানুষের নাভিশ্বাস উঠছে, সেখানে প্রবাসীরা ইতালী আসতে পারলে হয়তো একটু বেশিই নিরাপদ থাকবে। গত একটি সপ্তাহ বিষয়টি নিয়ে নির্ঘুম ব্যস্ততায় কাটিয়েছি। সবশেষ ফ্লাইটটি নিরাপদে রোম পৌছলে প্রচেষ্টা সার্থক মনে হবে। সকলের দোয়া কামনা করছি।
আমার জন্য প্রত্যেকে যেন দেয়া করেন এই প্রত্যাশা সকলের কাছে ।
তিনি আরও জানান, বাংলাদেশ থেকে আরও যাত্রী ইতালী আসতে চাইলে যোগাযোগ করুন।

পোস্ট শেয়ার করুন

মান্না সর্দারের প্রচষ্টায় ২৬৫ জন যাত্রী ঢাকা থেকে ইতালী পৌছালো চার্টার ফ্লাইট

আপডেটের সময় : ০৭:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুন ২০২০

ইতালী থেকে সৈয়দ ফয়সাল:

বৈশ্বিক মহামারী করোনায় যখন পৃথিবীময় লকডাউনে,যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন পৃথিবী,লাশের মিছিলে আতংন্কিত মানবসমাজ, আর সেই লাশের মিছিলটি সবচেয়ে বেশী ছিলো ইতালীতে তখন ইতালীর প্রধান মিডিয়াতে বলেন আমাদের কিছু করার নেই শুধুমাত্র আকাশের দিকে থাকিয়ে থাকবে হবে ।পৃথিবী হতাশাগ্রস্হ শক্তিধর শহরগুলো ব্যার্থ । বিভিন্ন দেশে যে যেখানে আছে আটকে গেছে বৈশ্বিক করোনা মহামারীর বিপর্যয়ে মধ্যে । কারো কিছু করার নেই, প্রকৃতির নিয়মেই চলতে বাধ্য হয়েছে বিশ্বাসী ।
ঢাকা সহ বিভিন্ন রাস্ট্র থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য তাদের বাসিন্দাদের নিয়ে যাচ্ছে বিশেষ ফ্লাইটে ।
এদিকে ইতালীতে বসবাসরত বাংলাদেশীরা দেশে এসে আটকে গেছেন তারমধ্যে বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী সমাজসেবক মান্না সর্দারের ঘনিষ্ট কয়েকজন ছিলেন এর মধ্যে ।
তারা যখন যোগাযোগ করলো মান্না সর্দার সাথে এবং সে মানবিক দিক দিয়ে চিন্তায় পড়ে গেলো কি করা যায় , তখনই তার স্বরনে আসলো বাংলাদেশ বিমানের মহাব্যবস্থাপক মোকাব্বির হোসেন কথা উল্লেখ্য তারা দুজনই মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলা পৌর এলাকার একই পাড়ার এবং আত্মীয়। সেই সুবাধে সহজেই মান্না সর্দার বিমানের এমডি সাথে যোগাযোগ করে একটি ফ্লাইট দিয়ে সহযোগিতা করার অনুরোধ জানান ।
তখন আলাপচারিতায় এমডি বিমানের নিয়ম সম্পর্কে মান্না সর্দার কে অবহিত করেন ।ঢাকা থেকে ইতালীতে একটি চার্টার ফ্লাইট আসছে আগামী ১২ই জুন। এখন পর্যন্ত ২৬৫ জন যাত্রী নিয়ে রোমগামী বাংলাদেশ বিমানের চার্টার ফ্লাইটটি ইতোমধ্যে নিশ্চিত করা হয়েছে। বাংলাদেশ বিমানের ওয়েবসাইটে বৃহস্পতিবার এটি নির্দিষ্ট করে জানানো হয়েছে। ইতালীর দু’জন প্রবাসী ব্যবসায়ী মান্না সর্দার প্রানান্তকর প্রচেষ্টায় চার্টার ফ্লাইটটি পরিচালনা করা হচ্ছে। রোমগামী অতিরিক্ত যাত্রী হলে একই দিন আরও একটি চার্টার ফ্লাইট পরিচালনা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন উদ্যোক্তরা।

এদিকে রোম থেকে নিয়মিত ফ্লাইট ২০ জুনের পর থেকে পরিচালনা হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। ২১ জুন কাতার ও তুর্কি এয়ারওয়েজ এবং ১লা জুলাই এমিরেটস এয়ারওয়েজ তাদের বিমান পরিচালনা করবে বলে জানা গেছে।

তবে সেটি সম্পূর্ন নির্ভর করছে বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতির ওপর। লডডাউন কিংবা সরকারি ছুটি বৃদ্ধি করা হলে বাংলাদেশ থেকে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পরিচালনা বিলম্ব হবে।চার্টার বিমান পরিচালনা সম্পর্কে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ইতালীর ভিসেন্সা শহরের আরজিনিয়ানো কমুনের ব্যবসায়ী ও স্থানীয় সামাজিক ব্যক্তিত্ব, সিলেট বিভাগ সমিতির প্রধান উপদেষ্টা মান্না সর্দার দেশদিগন্ত কে মুটোফোন বলেন করোনায় কয়েক হাজার ইতালী প্রবাসী বাংলাদেশে আটকা পড়ে আছে ।তা প্রচন্ডভাবে কষ্ট দিতে থাকে মান্না সর্দারকে, ব্যবসা পরিচালনার পাশাপাশি কিভাবে প্রবাসীদের ইতালীতে নিয়ে আসা যায় সেটি নিয়ে ভাবতে থাকেন তিনি। উপায়ন্তর না পেয়ে বিশেষ বিমান পরিচালনা নিয়ে চিন্তা করেন এবং বাংলাদেশ বিমানের এমডির সাথে ফোনে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন, কিন্ত এমডি সাহেব বিমানের যাত্রী ২৬৫ জন হতে হবে না হয় টিকিটের মূল্য বেশী হবে জানান । আলোচনা যদিও ফলপ্রসূ হয়েছে তবে যাত্রী নিয়ে চিন্তিত হয়ে পরেন , তখন তিনি সোস্যাল মিডিয়াতে লাইভে এসে বাংলাদেশী ইতালীতে বসবাসরতের উদ্দেশ্য বিস্তারিত বলেন ।
লাইভের পর ব্যাপক সাড়া পান তিনি ।বিষয়টি সম্পর্কে ইতালীর জৈনক সাংবাদিক কে যাত্রী সংগ্রহের জন্য সহযোগিতা করার আহবান জানান ।যাত্রী কিভাবে পাওয়া যাবে সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করে সহযোগীতা কামনা করেন।
ধারাবাহিকভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এবং লাইভে ঢাকা থেকে রোমগামী চার্টার বিমান পরিচালনা সম্পর্কে প্রচারনা শুরু করেন। সবশেষ ৪ জুন বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ বিমানের ওয়েবসাইটে চার্টার বিমান পরিচালনা সম্পর্কে একটি বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। সেখানে বলা হয়েছিলো গত ১২ জুন সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে ঢাকা থেকে রোমগামী (ফ্লাইট নাম্বার জুন বিজি-৪১০৫/১২) একটি ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।
তখন বুকিং দেয়া যাত্রীদের ঢাকা, সিলেট এবং চট্টগ্রামের বাংলাদেশ বিমান অফিস থেকে টিকিট সংগ্রহের জন্য বলা হয়েছিলো ।

রোমগামী চার্টার বিমান পরিচালনায় প্রধান উদ্যোক্তা সিলেটের প্রবাসী ব্যবসায়ী মান্না সর্দার এ সম্পর্কে আরো জানান, আমি অত্যন্ত আনন্দিত- অবশেষে প্রচেষ্টা সফল হচ্ছে। পুরো বিমানের যাত্রীদের তালিকা আমি দিয়েছিলাম, আমার মেয়ে প্রতিটি যাত্রীর নামের তালিকা করে বিমান অফিসে পাঠিয়েছিলো, উনি বলেন আমার সামাজিক কাজের মধ্যে জীবনে এটিই প্রথম একটি মহৎ উদ্যোগ যেখানে প্রবাসীদের পাশে সফলভাবে থাকতে পেরেছি। অত্যন্ত ভাল লাগছে, বিশেষকরে এ কারণে যে, করোনায় যেখানে দেশে মানুষের নাভিশ্বাস উঠছে, সেখানে প্রবাসীরা ইতালী আসতে পারলে হয়তো একটু বেশিই নিরাপদ থাকবে। গত একটি সপ্তাহ বিষয়টি নিয়ে নির্ঘুম ব্যস্ততায় কাটিয়েছি। সবশেষ ফ্লাইটটি নিরাপদে রোম পৌছলে প্রচেষ্টা সার্থক মনে হবে। সকলের দোয়া কামনা করছি।
আমার জন্য প্রত্যেকে যেন দেয়া করেন এই প্রত্যাশা সকলের কাছে ।
তিনি আরও জানান, বাংলাদেশ থেকে আরও যাত্রী ইতালী আসতে চাইলে যোগাযোগ করুন।