ঢাকা , শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল মান অভিমান ভুলে সবাই একই প্লাটফর্মে,সংবাদ সম্মেলনে পর্তুগাল বিএনপির নবগঠিত আহবায়ক কমিটি ইতালির ভিসেন্সায় সিলেট ডায়নামিক অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনে ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠিত

বিশ্ব সুন্দরীদের মঞ্চে জেসিয়া

অনলাইন ডেস্ক :
  • আপডেটের সময় : ১২:৩৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩০ অক্টোবর ২০১৭
  • / ১৩১৮ টাইম ভিউ

‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতার নানা ইভেন্ট শুরু হয়ে গেছে। অন্য প্রতিযোগীদের সঙ্গে মঞ্চে ডাক পড়েছে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ-২০১৭ জেসিয়া ইসলামেরও। মঞ্চে তাকে স্বাগত জানিয়েছেন বিশ্বসুন্দরী স্টেফানি দেল ভালে।

এ সময় লালগালিচায় অন্যান্য প্রতিযোগীর মতো জেসিয়াকে পরিচয় করে দেওয়া হয়। এরপর নিজের পরিচয় দিয়ে ক্যাটওয়াক করেন বাংলাদেশি সুন্দরী। অনুষ্ঠানে কয়েকশ’ প্রভাবশালী ব্যবসায়ী নেতা ও চীনের সরকারি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে স্টেফানি দেল ভালের নেতৃত্বে প্রতিযোগীরা সম্মিলিত কণ্ঠে মিস ওয়ার্ল্ডের থিম সং ‘লাইট দ্য প্যাশন, শেয়ার দ্য ড্রিম’ গেয়েছেন।

মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় চীনের শেনজেন শহরে অনুষ্ঠিত হয়েছে এক নিলাম অনুষ্ঠানের। এতে প্রত্যেক প্রতিযোগী নিলামের জন্য নিজ নিজ দেশের একটি করে উপহার সঙ্গে নিয়ে গিয়েছিলেন। এ নিলাম থেকে দেড় লাখ পাউন্ড উঠে এসেছে, যা মাদার ওয়ার্কসের তহবিলে দান করা হয়। বেসরকারি এ সংস্থাটি চীনের বিভিন্ন প্রান্তে মায়েদের সহায়তা করে আসছে।

mwb-59f5804c0922a

এদিকে চীনে কর্মব্যস্ত সময় পার করছেন জেসিয়া। শুক্রবার সকালে গুয়াংজু থেকে হংজো শহরে গিয়ে ওয়েন্সলি সিল্ক কালচারাল মিউজিয়াম ঘুরে দেখেন প্রতিযোগিরা। সেখানে তাদের সিল্কের তৈরি স্কার্ফ উপহার দেওয়া হয়।

গত ১৯ অক্টোবর মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতার ৬৭তম আসরে অংশ নিতে চীনে যান জেসিয়া। সেখানে ১২০ দেশের প্রতিযোগীদের সঙ্গে তাকে লড়তে হবে টপ মডেল, ট্যালেন্ট, মাল্টিমিডিয়া, স্পোর্ট, বিউটি উইথ অ্যা পারপাসসহ বিভিন্ন বিভাগে। এরপর হেড টু হেড চ্যালেঞ্জে অংশ নেওয়া শীর্ষ ৪০ প্রতিযোগীর মধ্য থেকে নির্বাচন করা হবে সেরা ২০।

আগামী ৩১ অক্টোবর শিমেলং ওশান কিংডমে আসরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে। আর ১৮ নভেম্বর জানা যাবে, কার মাথায় উঠলো বিশ্বসুন্দরীর মুকুট।

পোস্ট শেয়ার করুন

বিশ্ব সুন্দরীদের মঞ্চে জেসিয়া

আপডেটের সময় : ১২:৩৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩০ অক্টোবর ২০১৭

‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতার নানা ইভেন্ট শুরু হয়ে গেছে। অন্য প্রতিযোগীদের সঙ্গে মঞ্চে ডাক পড়েছে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ-২০১৭ জেসিয়া ইসলামেরও। মঞ্চে তাকে স্বাগত জানিয়েছেন বিশ্বসুন্দরী স্টেফানি দেল ভালে।

এ সময় লালগালিচায় অন্যান্য প্রতিযোগীর মতো জেসিয়াকে পরিচয় করে দেওয়া হয়। এরপর নিজের পরিচয় দিয়ে ক্যাটওয়াক করেন বাংলাদেশি সুন্দরী। অনুষ্ঠানে কয়েকশ’ প্রভাবশালী ব্যবসায়ী নেতা ও চীনের সরকারি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে স্টেফানি দেল ভালের নেতৃত্বে প্রতিযোগীরা সম্মিলিত কণ্ঠে মিস ওয়ার্ল্ডের থিম সং ‘লাইট দ্য প্যাশন, শেয়ার দ্য ড্রিম’ গেয়েছেন।

মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় চীনের শেনজেন শহরে অনুষ্ঠিত হয়েছে এক নিলাম অনুষ্ঠানের। এতে প্রত্যেক প্রতিযোগী নিলামের জন্য নিজ নিজ দেশের একটি করে উপহার সঙ্গে নিয়ে গিয়েছিলেন। এ নিলাম থেকে দেড় লাখ পাউন্ড উঠে এসেছে, যা মাদার ওয়ার্কসের তহবিলে দান করা হয়। বেসরকারি এ সংস্থাটি চীনের বিভিন্ন প্রান্তে মায়েদের সহায়তা করে আসছে।

mwb-59f5804c0922a

এদিকে চীনে কর্মব্যস্ত সময় পার করছেন জেসিয়া। শুক্রবার সকালে গুয়াংজু থেকে হংজো শহরে গিয়ে ওয়েন্সলি সিল্ক কালচারাল মিউজিয়াম ঘুরে দেখেন প্রতিযোগিরা। সেখানে তাদের সিল্কের তৈরি স্কার্ফ উপহার দেওয়া হয়।

গত ১৯ অক্টোবর মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতার ৬৭তম আসরে অংশ নিতে চীনে যান জেসিয়া। সেখানে ১২০ দেশের প্রতিযোগীদের সঙ্গে তাকে লড়তে হবে টপ মডেল, ট্যালেন্ট, মাল্টিমিডিয়া, স্পোর্ট, বিউটি উইথ অ্যা পারপাসসহ বিভিন্ন বিভাগে। এরপর হেড টু হেড চ্যালেঞ্জে অংশ নেওয়া শীর্ষ ৪০ প্রতিযোগীর মধ্য থেকে নির্বাচন করা হবে সেরা ২০।

আগামী ৩১ অক্টোবর শিমেলং ওশান কিংডমে আসরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে। আর ১৮ নভেম্বর জানা যাবে, কার মাথায় উঠলো বিশ্বসুন্দরীর মুকুট।