ঢাকা , রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
লিসবনে আত্মপ্রকাশ হয় সামাজিক সংগঠন “গোলাপগঞ্জ কমিউনিটি কেয়ারর্স পর্তুগাল “ উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল

বিপিএলে জুয়া, ভারতীয়-পাকিস্তানিসহ আটক ৭৭

অনলাইন ডেস্ক :
  • আপডেটের সময় : ০১:৪১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৭
  • / ৯৩৮ টাইম ভিউ

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ বা বিপিএলের কর্তৃপক্ষ বলছে, ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে জুয়া খেলার অভিযোগে সম্প্রতি ৭৭ জন জুয়াড়িকে ধরে স্টেডিয়াম থেকে বের করে দেয়া হয়েছে।

তাদের পরে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এদের মধ্যে কয়েকজন বিদেশিও রয়েছেন।
বিপিএল বলছে, ক্রিকেট জুয়া নিয়ে কোনো আইন না থাকার কারণে তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া যাচ্ছে না। সে কারণে তারা এবিষয়ে মানুষকে সচেতন করার চেষ্টা করছেন।
বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের মুখপাত্র জালাল ইউনুস বিবিসি বাংলাকে বলেছেন, বেটিং ঠেকানোর জন্য স্টেডিয়ামে পুলিশের কিছু নজরদারি দল থাকে, যারা সন্দেহভাজনদের ওপর নজর রাখেন। তাদের সহায়তা নিয়েই সন্দেহভাজন এই জুয়াড়িদের ধরা হয়েছে।
মি. ইউনুস বলেন, আটককৃতদের মধ্যে ভারতীয় ও পাকিস্তানি নাগরিকও রয়েছেন।

তিনি বলেন, এরা সবাই বিপিএলের ম্যাচের বিভিন্ন দিক নিয়ে বেটিংএ জড়িত ছিলেন।
ইউনুস বলেন, যারা সরাসরি মাঠে বসে ম্যাচ দেখছেন, তার তুলনায় যারা বাংলাদেশের বাইরে বসে টিভিতে খেলা দেখছেন – তারা খেলাটা আসল সময়ের চাইতে কয়েক সেকেন্ড পরে দেখতে পান। সময়ের এই ব্যবধানকে কাজে লাগিয়েই জুয়াড়িরা কোন বলে কে আউট হবে বা কে বাউন্ডারি মারবেন ইত্যাদি নিয়ে বেটিং করছে।
বিপিএল-এর মরশুমে দেশের অনেক জায়গাই জুয়ার কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ে বলে তিনি জানান।

কয়েক দিন আগে বিপিএল নিয়ে জুয়াকে কেন্দ্র করে এক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র খুন হওয়ার খবর গণমাধ্যমে আসার পর এটির ব্যাপকতা সামনে আসে।

ইউনুস বলেন, বাংলাদেশে বেটিং নিষিদ্ধ হলেও বেটিংবিরোধী আইন না থাকায় শক্ত ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব হচ্ছে না। বিসিবির পক্ষ থেকে সব জায়গায় নজর রাখাও কঠিন বলে তিনি মন্তব্য করেন।
তিনি বলেন, এ ব্যাপারে বিসিবির পক্ষ থেকে আজ শুক্রবার রাতেই মামলা করা হবে।
তবে পুলিশের এআইজি মিডিয়া সোহেলি ফেরদৌস  বলেন, তার পাওয়া খবর অনুযায়ী এখনো মামলা করা হয়নি।

পোস্ট শেয়ার করুন

বিপিএলে জুয়া, ভারতীয়-পাকিস্তানিসহ আটক ৭৭

আপডেটের সময় : ০১:৪১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৭

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ বা বিপিএলের কর্তৃপক্ষ বলছে, ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে জুয়া খেলার অভিযোগে সম্প্রতি ৭৭ জন জুয়াড়িকে ধরে স্টেডিয়াম থেকে বের করে দেয়া হয়েছে।

তাদের পরে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এদের মধ্যে কয়েকজন বিদেশিও রয়েছেন।
বিপিএল বলছে, ক্রিকেট জুয়া নিয়ে কোনো আইন না থাকার কারণে তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া যাচ্ছে না। সে কারণে তারা এবিষয়ে মানুষকে সচেতন করার চেষ্টা করছেন।
বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের মুখপাত্র জালাল ইউনুস বিবিসি বাংলাকে বলেছেন, বেটিং ঠেকানোর জন্য স্টেডিয়ামে পুলিশের কিছু নজরদারি দল থাকে, যারা সন্দেহভাজনদের ওপর নজর রাখেন। তাদের সহায়তা নিয়েই সন্দেহভাজন এই জুয়াড়িদের ধরা হয়েছে।
মি. ইউনুস বলেন, আটককৃতদের মধ্যে ভারতীয় ও পাকিস্তানি নাগরিকও রয়েছেন।

তিনি বলেন, এরা সবাই বিপিএলের ম্যাচের বিভিন্ন দিক নিয়ে বেটিংএ জড়িত ছিলেন।
ইউনুস বলেন, যারা সরাসরি মাঠে বসে ম্যাচ দেখছেন, তার তুলনায় যারা বাংলাদেশের বাইরে বসে টিভিতে খেলা দেখছেন – তারা খেলাটা আসল সময়ের চাইতে কয়েক সেকেন্ড পরে দেখতে পান। সময়ের এই ব্যবধানকে কাজে লাগিয়েই জুয়াড়িরা কোন বলে কে আউট হবে বা কে বাউন্ডারি মারবেন ইত্যাদি নিয়ে বেটিং করছে।
বিপিএল-এর মরশুমে দেশের অনেক জায়গাই জুয়ার কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ে বলে তিনি জানান।

কয়েক দিন আগে বিপিএল নিয়ে জুয়াকে কেন্দ্র করে এক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র খুন হওয়ার খবর গণমাধ্যমে আসার পর এটির ব্যাপকতা সামনে আসে।

ইউনুস বলেন, বাংলাদেশে বেটিং নিষিদ্ধ হলেও বেটিংবিরোধী আইন না থাকায় শক্ত ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব হচ্ছে না। বিসিবির পক্ষ থেকে সব জায়গায় নজর রাখাও কঠিন বলে তিনি মন্তব্য করেন।
তিনি বলেন, এ ব্যাপারে বিসিবির পক্ষ থেকে আজ শুক্রবার রাতেই মামলা করা হবে।
তবে পুলিশের এআইজি মিডিয়া সোহেলি ফেরদৌস  বলেন, তার পাওয়া খবর অনুযায়ী এখনো মামলা করা হয়নি।