ঢাকা , শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে… এই অভ্যাসগুলোর চর্চা নিয়মিত করা উচিৎ স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য থাকা জরুরি কেনো ? পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা

বাংলাদেশি কবিরের ওপর অত্যাচারে গর্জে উঠল কলকাতা, প্রতিবাদ করলেই শাসকের রক্তচক্ষু।

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০১:৪৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ জুলাই ২০২০
  • / ২০৮ টাইম ভিউ

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশের অভিবাসী রায়হান কবিরের ওপর নিপীড়নের প্রতিবাদে ফেটে পড়লো কলকাতা, বাংলা। বাংলাদেশের ঊনত্রিশটি মানবাধিকার সংগঠন ও বিশ্বের অন্য মানবাধিকার সংগঠনগুলোর সঙ্গে গলা মিলিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছে এসোসিয়েশন অফ প্রটেকশন অফ ডেমোক্র্যাটিক রাইটস। সংগঠনের বিশিষ্ট নেতা অসীম গিরি আজ মানবজমিনকে বলেন, বিশ্বে মানুষ প্রতিবাদ করার অধিকার হারাচ্ছে। প্রতিবাদ করলেই শাসকের রক্তচক্ষু। এ চলতে পারে না। গণতন্ত্রের টুঁটি চেপে ধরার অধিকার কারও নেই। অসীম বাবু জানান, করোনার কারণে তাঁরা সমাবেশ করতে পারছেন না কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিবাদ করছেন ঝড় তুলে দিয়ে। কিন্তু কি হয়েছিল রায়হান কবিরের? রায়হান মালয়েশিয়ায় কাজ করা বাংলাদেশের এক অভিবাসী কর্মী।

মালয়েশিয়ার করোনা নিয়ে আল জাজিরা টিভির একটি তথ্যচিত্রে অংশ নিয়ে কবির মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শ্রমিকদের ওপর অত্যাচারের কাহিনী তুলে ধরেন। এরপরই চব্বিশ জুলাই তাঁকে গ্রেপ্তার করে চৌদ্দ দিনের পুলিশ হেফাজতে পাঠানো হয়। মালয়েশিয়ার অভিবাসন দপ্তরের প্রধান বলেছেন, রায়হানকে বাংলাদেশে ডিপোর্ট করা হবে এবং তাকে কালো তালিকাভুক্ত করা হবে যাতে তিনি কোনোদিনই আর মালয়েশিয়ায় আসতে না পারেন। আল জাজিরা টিভির বিরুদ্ধেও রাষ্ট্রদ্রোহিতা, মানহানির মামলা আনা হয়েছে। আমেরিকার হিউম্যান রাইটস ওয়াচ এশিয়া প্রধান বলেছেন, এই অন্যায় মেনে নেয়া যায় না। বাংলাদেশের অভিবাসী কর্মী রায়হান কবির এখন আন্তর্জাতিক আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে।
সুত্র- মানবজমিন

পোস্ট শেয়ার করুন

বাংলাদেশি কবিরের ওপর অত্যাচারে গর্জে উঠল কলকাতা, প্রতিবাদ করলেই শাসকের রক্তচক্ষু।

আপডেটের সময় : ০১:৪৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ জুলাই ২০২০

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশের অভিবাসী রায়হান কবিরের ওপর নিপীড়নের প্রতিবাদে ফেটে পড়লো কলকাতা, বাংলা। বাংলাদেশের ঊনত্রিশটি মানবাধিকার সংগঠন ও বিশ্বের অন্য মানবাধিকার সংগঠনগুলোর সঙ্গে গলা মিলিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছে এসোসিয়েশন অফ প্রটেকশন অফ ডেমোক্র্যাটিক রাইটস। সংগঠনের বিশিষ্ট নেতা অসীম গিরি আজ মানবজমিনকে বলেন, বিশ্বে মানুষ প্রতিবাদ করার অধিকার হারাচ্ছে। প্রতিবাদ করলেই শাসকের রক্তচক্ষু। এ চলতে পারে না। গণতন্ত্রের টুঁটি চেপে ধরার অধিকার কারও নেই। অসীম বাবু জানান, করোনার কারণে তাঁরা সমাবেশ করতে পারছেন না কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিবাদ করছেন ঝড় তুলে দিয়ে। কিন্তু কি হয়েছিল রায়হান কবিরের? রায়হান মালয়েশিয়ায় কাজ করা বাংলাদেশের এক অভিবাসী কর্মী।

মালয়েশিয়ার করোনা নিয়ে আল জাজিরা টিভির একটি তথ্যচিত্রে অংশ নিয়ে কবির মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শ্রমিকদের ওপর অত্যাচারের কাহিনী তুলে ধরেন। এরপরই চব্বিশ জুলাই তাঁকে গ্রেপ্তার করে চৌদ্দ দিনের পুলিশ হেফাজতে পাঠানো হয়। মালয়েশিয়ার অভিবাসন দপ্তরের প্রধান বলেছেন, রায়হানকে বাংলাদেশে ডিপোর্ট করা হবে এবং তাকে কালো তালিকাভুক্ত করা হবে যাতে তিনি কোনোদিনই আর মালয়েশিয়ায় আসতে না পারেন। আল জাজিরা টিভির বিরুদ্ধেও রাষ্ট্রদ্রোহিতা, মানহানির মামলা আনা হয়েছে। আমেরিকার হিউম্যান রাইটস ওয়াচ এশিয়া প্রধান বলেছেন, এই অন্যায় মেনে নেয়া যায় না। বাংলাদেশের অভিবাসী কর্মী রায়হান কবির এখন আন্তর্জাতিক আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে।
সুত্র- মানবজমিন