ঢাকা , শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে… এই অভ্যাসগুলোর চর্চা নিয়মিত করা উচিৎ স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য থাকা জরুরি কেনো ? পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা

বড়লেখায় প্রতিপক্ষের দা’র কোপে আহত ব্যবসায়ীর মৃত্যু

বড়লেখা প্রতিনিধি:
  • আপডেটের সময় : ০৭:০৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ জুলাই ২০২০
  • / ২৯২ টাইম ভিউ

বড়লেখা প্রতিনিধি : বড়লেখায় পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত ব্যবসায়ী আব্দুল আহাদ (৪০) বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

তিনি উপজেলার দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউপির সুজাউল হরিনগর গ্রামের শফিক উদ্দিনের ছেলে ও স্থানীয় অফিস বাজারের মুদি ব্যবসায়ী। পুলিশ হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দা উদ্ধার করেছে। শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত থানায় কেউ মামলা করেনি বলে জানা গেছে। তবে অভিযুক্ত ব্যক্তি পুলিশের নজরদারীতে রয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় ব্যবসায়ী আব্দুল আহাদ দোকানের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হন। পথে পূর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা চন্ডিনগর গ্রামের মৃত রজব আলীর ছেলে হোসেন আহমদ ওরফে মাহতাব উদ্দিন তার মাথায় ধারালো দা দিয়ে অতর্কিত হামলা চালিয়ে পালিয়ে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় ব্যবসায়ী আব্দুল আহাদকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাত ১২টায় সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু ঘটে।

স্থানীয় একটি সুত্র জানায়, নারীঘটিত কারণে ব্যবসায়ী আব্দুল আহাদ খুন হন। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এবং ঘাতক মাহতাবের বাড়ি থেকে হামলায় ব্যবহৃত রক্তমাখা ধারালো অস্ত্র (দা) উদ্ধার করেছে। ওসি মো. ইয়াছিনুল হক জানান, খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। হামলাকারীর বাড়ি থেকে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দা উদ্ধার করেছে। সিলেট কোতোয়ালী থানা পুলিশ নিহত আব্দুল আহাদের লাশের সুরত হাল প্রতিবেদন তৈরী ও ময়না তদন্ত শেষে শুক্রবার বিকেলে স্বজনদের নিকট লাশ হস্তান্তর করেছে। এব্যাপারে থানায় এখনও কেউ মামলা দেননি। অভিযুক্ত ব্যক্তি পুলিশের নজরদারীতে রয়েছে, তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

পোস্ট শেয়ার করুন

বড়লেখায় প্রতিপক্ষের দা’র কোপে আহত ব্যবসায়ীর মৃত্যু

আপডেটের সময় : ০৭:০৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ জুলাই ২০২০

বড়লেখা প্রতিনিধি : বড়লেখায় পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত ব্যবসায়ী আব্দুল আহাদ (৪০) বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

তিনি উপজেলার দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউপির সুজাউল হরিনগর গ্রামের শফিক উদ্দিনের ছেলে ও স্থানীয় অফিস বাজারের মুদি ব্যবসায়ী। পুলিশ হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দা উদ্ধার করেছে। শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত থানায় কেউ মামলা করেনি বলে জানা গেছে। তবে অভিযুক্ত ব্যক্তি পুলিশের নজরদারীতে রয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় ব্যবসায়ী আব্দুল আহাদ দোকানের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হন। পথে পূর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা চন্ডিনগর গ্রামের মৃত রজব আলীর ছেলে হোসেন আহমদ ওরফে মাহতাব উদ্দিন তার মাথায় ধারালো দা দিয়ে অতর্কিত হামলা চালিয়ে পালিয়ে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় ব্যবসায়ী আব্দুল আহাদকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাত ১২টায় সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু ঘটে।

স্থানীয় একটি সুত্র জানায়, নারীঘটিত কারণে ব্যবসায়ী আব্দুল আহাদ খুন হন। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এবং ঘাতক মাহতাবের বাড়ি থেকে হামলায় ব্যবহৃত রক্তমাখা ধারালো অস্ত্র (দা) উদ্ধার করেছে। ওসি মো. ইয়াছিনুল হক জানান, খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। হামলাকারীর বাড়ি থেকে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দা উদ্ধার করেছে। সিলেট কোতোয়ালী থানা পুলিশ নিহত আব্দুল আহাদের লাশের সুরত হাল প্রতিবেদন তৈরী ও ময়না তদন্ত শেষে শুক্রবার বিকেলে স্বজনদের নিকট লাশ হস্তান্তর করেছে। এব্যাপারে থানায় এখনও কেউ মামলা দেননি। অভিযুক্ত ব্যক্তি পুলিশের নজরদারীতে রয়েছে, তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।