ঢাকা , শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল মান অভিমান ভুলে সবাই একই প্লাটফর্মে,সংবাদ সম্মেলনে পর্তুগাল বিএনপির নবগঠিত আহবায়ক কমিটি ইতালির ভিসেন্সায় সিলেট ডায়নামিক অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনে ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠিত

প্রেমিকাকে নিয়ে হোটেলে যুবক, মরদেহ উদ্ধারের পর আটক তরুণী

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ১১:১৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২১
  • / ৩৩৯ টাইম ভিউ

কক্সবাজারের আলম গেস্ট হাউস নামক একটি আবাসিক হোটেল থেকে সঞ্জয় কুমার সরকার (৩০) নামের এক পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গলায় ফাঁস লাগালো অবস্থায় এ পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নুপূর (১৮) নামের এক তরুণীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নিয়েছে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে কক্সবাজার শহরের পর্যটন জোন কলাতলী আলম গেস্ট হাউস এ ঘটনা ঘটে। নিহত সঞ্জয় কুমার সরকার সিরাজগঞ্জের বাসিন্দা ও দুই সন্তানের জনক বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

কক্সবাজারের আলম গেস্ট হাউস নামক একটি আবাসিক হোটেল থেকে সঞ্জয় কুমার সরকার (৩০) নামের এক পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গলায় ফাঁস লাগালো অবস্থায় এ পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নুপূর (১৮) নামের এক তরুণীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নিয়েছে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে কক্সবাজার শহরের পর্যটন জোন কলাতলী আলম গেস্ট হাউস এ ঘটনা ঘটে। নিহত সঞ্জয় কুমার সরকার সিরাজগঞ্জের বাসিন্দা ও দুই সন্তানের জনক বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বিকেলে কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মহিউদ্দীন আহমেদ জানিয়েছেন, শনিবার বেলা ১১টার দিকে শহরের আবাসিক আলম গেস্ট হাউস হোটেলে এক যুবকের ফাঁস লাগানোর খবর পেয়ে সেখান থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তবে তার সঙ্গে থাকা নুপূরকে (১৮) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ট্যুরিস্ট পুলিশ হেফাজতে আনা হয়। তবে নিহত সঞ্জয় নিজের শিশুকন্যা ও স্ত্রীকে ফেলে অন্যজনের সঙ্গে কক্সবাজার বেড়াতে আসে বলে নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ।

মহিউদ্দিন আহমেদ আরও জানান, ধারণা করা হচ্ছে পরকীয়া প্রেমের কারণে সিরাজগঞ্জ থেকে কক্সবাজার ভ্রমনে এসে ওই হোটেলে রুম ভাড়া নেয়। পরে দুজনের মধ্যে বনিবনা না হওয়ায় এই ঘটনা ঘটতে পারে। বিষয়টি পুলিশ তদন্ত করে দেখছে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার জেলা হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

পোস্ট শেয়ার করুন

প্রেমিকাকে নিয়ে হোটেলে যুবক, মরদেহ উদ্ধারের পর আটক তরুণী

আপডেটের সময় : ১১:১৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২১

কক্সবাজারের আলম গেস্ট হাউস নামক একটি আবাসিক হোটেল থেকে সঞ্জয় কুমার সরকার (৩০) নামের এক পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গলায় ফাঁস লাগালো অবস্থায় এ পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নুপূর (১৮) নামের এক তরুণীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নিয়েছে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে কক্সবাজার শহরের পর্যটন জোন কলাতলী আলম গেস্ট হাউস এ ঘটনা ঘটে। নিহত সঞ্জয় কুমার সরকার সিরাজগঞ্জের বাসিন্দা ও দুই সন্তানের জনক বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

কক্সবাজারের আলম গেস্ট হাউস নামক একটি আবাসিক হোটেল থেকে সঞ্জয় কুমার সরকার (৩০) নামের এক পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গলায় ফাঁস লাগালো অবস্থায় এ পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নুপূর (১৮) নামের এক তরুণীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নিয়েছে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে কক্সবাজার শহরের পর্যটন জোন কলাতলী আলম গেস্ট হাউস এ ঘটনা ঘটে। নিহত সঞ্জয় কুমার সরকার সিরাজগঞ্জের বাসিন্দা ও দুই সন্তানের জনক বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বিকেলে কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মহিউদ্দীন আহমেদ জানিয়েছেন, শনিবার বেলা ১১টার দিকে শহরের আবাসিক আলম গেস্ট হাউস হোটেলে এক যুবকের ফাঁস লাগানোর খবর পেয়ে সেখান থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তবে তার সঙ্গে থাকা নুপূরকে (১৮) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ট্যুরিস্ট পুলিশ হেফাজতে আনা হয়। তবে নিহত সঞ্জয় নিজের শিশুকন্যা ও স্ত্রীকে ফেলে অন্যজনের সঙ্গে কক্সবাজার বেড়াতে আসে বলে নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ।

মহিউদ্দিন আহমেদ আরও জানান, ধারণা করা হচ্ছে পরকীয়া প্রেমের কারণে সিরাজগঞ্জ থেকে কক্সবাজার ভ্রমনে এসে ওই হোটেলে রুম ভাড়া নেয়। পরে দুজনের মধ্যে বনিবনা না হওয়ায় এই ঘটনা ঘটতে পারে। বিষয়টি পুলিশ তদন্ত করে দেখছে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার জেলা হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।