ঢাকা , সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
প্রিয়জনদের মানসিক রোগ যদি আপনজন বুঝতে না পারেন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ও অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে পর্তুগাল আওয়ামীলীগ যেকোনো প্রচেষ্টা এককভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব নয়: দুদক সচিব শ্রীমঙ্গলে দুটি চোরাই মোটরসাইকেল সহ মিল্টন কুমার আটক পর্তুগালের অভিবাসন আইনে ব্যাপক পরিবর্তন পর্তুগাল বিএনপি আহবায়ক কমিটির জুমে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয় এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে…

প্রসংগ খিঁচুনি রোগ

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ১২:০২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ৩৭২ টাইম ভিউ

   প্রসংগ খিঁচুনি রোগ

খিঁচুনি রোগকে গ্রামের সহজ সরল মানুষ অজ্ঞতার জন্যে ভুতে ধরা বা উপরি বাতাস লাগা বলে। এবং ভন্ড কবিরাজ, মোল্লা, তান্ত্রীকরাও তাই বলে রোগীর কাছ থেকে টাকা পয়সা, সোনা দানা ও গরু ছাগল মানত হিসেবে নিয়ে থাকে।

খিঁচুনি রোগের লক্ষণ:
কোন কারণ ছাড়াই হঠাৎ করে যেকোন জায়গায় যে কোন সময়ে রোগীর একপাশ বা সারা দেহ কাঁপতে শুরু করবে, রোগী ধপাস করে পড়ে যাবে, রোগী অজ্ঞান হয়ে যাবে, রোগীর ঠোঁট বা জিহবায় কামড় পড়তে পারে, এবং রোগীর এই খিঁচুনি ও অজ্ঞান হওয়া ২/৩ মিনিটের বেশী স্থায়ী হবেনা।

খিঁচুনি রোগের ঔষধ নির্দিষ্ট মেয়াদে এক টানা বেশ কয়েকদিন খেয়ে যেতে হয়। এতে খিঁচুনি রোগ সম্পুর্ন ভালো হয়ে যায়। খিঁচুনি রোগের ঔষধ শুরুর পর থেকে একদিন ও বন্ধ করা যাবেনা।

ডা. সাঈদ এনাম
সহকারী অধ্যাপক, সাইকিয়াট্রি।
সিলেট মেডিকেল কলেজ।

পোস্ট শেয়ার করুন

প্রসংগ খিঁচুনি রোগ

আপডেটের সময় : ১২:০২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২৩

   প্রসংগ খিঁচুনি রোগ

খিঁচুনি রোগকে গ্রামের সহজ সরল মানুষ অজ্ঞতার জন্যে ভুতে ধরা বা উপরি বাতাস লাগা বলে। এবং ভন্ড কবিরাজ, মোল্লা, তান্ত্রীকরাও তাই বলে রোগীর কাছ থেকে টাকা পয়সা, সোনা দানা ও গরু ছাগল মানত হিসেবে নিয়ে থাকে।

খিঁচুনি রোগের লক্ষণ:
কোন কারণ ছাড়াই হঠাৎ করে যেকোন জায়গায় যে কোন সময়ে রোগীর একপাশ বা সারা দেহ কাঁপতে শুরু করবে, রোগী ধপাস করে পড়ে যাবে, রোগী অজ্ঞান হয়ে যাবে, রোগীর ঠোঁট বা জিহবায় কামড় পড়তে পারে, এবং রোগীর এই খিঁচুনি ও অজ্ঞান হওয়া ২/৩ মিনিটের বেশী স্থায়ী হবেনা।

খিঁচুনি রোগের ঔষধ নির্দিষ্ট মেয়াদে এক টানা বেশ কয়েকদিন খেয়ে যেতে হয়। এতে খিঁচুনি রোগ সম্পুর্ন ভালো হয়ে যায়। খিঁচুনি রোগের ঔষধ শুরুর পর থেকে একদিন ও বন্ধ করা যাবেনা।

ডা. সাঈদ এনাম
সহকারী অধ্যাপক, সাইকিয়াট্রি।
সিলেট মেডিকেল কলেজ।