ঢাকা , বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পূর্ব লন্ডনে বড়লেখার সোয়েব আহমেদের সমর্থনে মতবিনিময় সভা ইতালির ভেনিসে গ্রিন সিলেট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন এর জরুরি সভা অনুষ্ঠিত ইতালির ভেনিসে এনটিভির ইউরোপের ডিরেক্টর সাবরিনা হোসাইন কে সংবর্ধনা দিয়েছে ইউরোপিয়ান বাংলা প্রেসক্লাব পর্তুগালে বেজা আওয়ামীলীগের কর্মি সভা পর্তুগাল এ ফ্রেন্ডশিপ ক্রিকেট ক্লাবের জার্সি উন্মোচন লিসবনে আত্মপ্রকাশ হয় সামাজিক সংগঠন “গোলাপগঞ্জ কমিউনিটি কেয়ারর্স পর্তুগাল “ উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা

গণমাধ্যমের বিকাশে কাজ করছে সরকার : তথ্যমন্ত্রী

ডেস্ক :
  • আপডেটের সময় : ০৫:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ জুন ২০১৭
  • / ১০৮৫ টাইম ভিউ

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও তথ্যের অবাধ প্রবাহ নিশ্চিতকরণ তথা গণমাধ্যমের বিকাশে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে।
বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে বজলুল হক হারুনের এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী সংসদকে এ তথ্য জানান।
মন্ত্রী বলেন, বর্তমান গণমাধ্যম বান্ধব সরকার গত ৪ বছরে ৬২৩ জন দুস্থ, অস্বচ্ছল, দুর্ঘটনায় আহত ও নিহত সাংবাদিকদের পরিবারের সদস্যদের আর্থিক সহায়তা দিযেছে।
তিনি বলেন, গত ৭ বছরে সাত শতাধিক পত্রিকার নিবন্ধন প্রদান করা হয়েছে। একই সঙ্গে ৩১টি স্যাটেলাইট চ্যানেল, ২৪টি এফ, এম বেতার এবং ৩২টি কমিউনিটি রেডিও’র অনুমোদন প্রদান করা হয়েছে। তথ্যের অবাধ প্রবাহ নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে সরকার ‘জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা, ২০১৪’ প্রণয়ন করেছে।
হাসানুল হক ইনু বলেন, সংবিধানের ৩৯ নং অনুচ্ছেদে বাক, ভাবপ্রকাশ ও সংবাদক্ষেত্রের স্বাধীনতার নিশ্চয়তা প্রদান করা হয়েছে। বর্তমানে সরকারি ৩টি টেলিভিশন চ্যানেল, ২১টি এফ, এম বেতার এবং ১৭টি কমিউনিটি রেডিও সম্প্রচার কার্যক্রম পরিচালনা করছে।
তিনি বলেন, সংবাদপত্রে কর্মরত সাংবাদিকদের পেশাগত দক্ষতা ও উৎকর্ষ বৃদ্ধির লক্ষ্যে বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট গত ৭ বছরে ১৬ হাজার ১ জন সাংবাদিককে প্রশিক্ষণ দিয়েছে এবং জাতীয় গণমাধ্যম ইনস্টিটিউট একই সময়ে ২ হাজার ২৫৫ জনকে প্রশিক্ষণ প্রদান করেছে।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ইলেকট্রনিক মিডিয়ার জন্য একটি দায়বদ্ধ ‘সম্প্রচার কমিশন’ গঠনের লক্ষ্যে প্রস্তাবিত ‘সম্প্রচার আইন, ২০১৬’ এর খসড়ার চূড়ান্ত পরিমার্জন কার্যক্রম চলমান রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কল্যাণ তহবিল থেকে দুস্থ ও অসুস্থ সাংবাদিকদের অনুকূলে আর্থিক অনুদান প্রদানের পাশাপাশি সরকার সাংবাদিকদের কল্যাণে ‘সাংবাদিক সহায়তা ভাতা বা অনুদান নীতিমালা-২০১২’ এর আওতায় ২০১১-১২ অর্থবছরে ৬১জন, ২০১২-১৩ অর্থবছরে ১৮৫ জন, ২০১৩-১৪ অর্থবছরে ১৯৬ জন, ২০১৪-১৫ অর্থবছরে ১৮১ জন দুস্থ, অস্বচ্ছল, দুর্ঘটনায় আহত ও নিহত সাংবাদিকদের পরিবারের সদস্যদের মাঝে যথাক্রমে ৫০ লাখ, ১ কোটি, ১ কোটি ১০ লাখ, ১ কোটি ২০ লাখ টাকার আর্থিক অনুদানের চেক বিতরণ করেছে।
হাসানুল হক ইনু বলেন, বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট আইন, ২০১৪’ এর আওতায় ইতোমধ্যে একটি ‘ট্রাস্টি বোর্ড’ গঠন করা হয়েছে। ‘সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট বিধিমালা ২০১৬’ প্রণয়ন করা হয়েছে। ট্রাস্টের নিজস্ব তহবিল সৃষ্টির লক্ষ্যে সরকার ইতোমধ্যে ৫ কোটি টাকার ‘সীডমানি’ প্রদান করেছে।
তিনি বলেন, সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের আওতায় প্রথমবারের মতো ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ১৯৬ জন দুস্থ, অস্বচ্ছল, দুর্ঘটনায় আহত ও মৃত সাংবাদিকদের পরিবারের সদস্যদের মাঝে ১ কোটি ৪০ লাখ টাকার অনুদানের চেক বিতরণ করা হয়েছে।

পোস্ট শেয়ার করুন

গণমাধ্যমের বিকাশে কাজ করছে সরকার : তথ্যমন্ত্রী

আপডেটের সময় : ০৫:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ জুন ২০১৭

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও তথ্যের অবাধ প্রবাহ নিশ্চিতকরণ তথা গণমাধ্যমের বিকাশে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে।
বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে বজলুল হক হারুনের এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী সংসদকে এ তথ্য জানান।
মন্ত্রী বলেন, বর্তমান গণমাধ্যম বান্ধব সরকার গত ৪ বছরে ৬২৩ জন দুস্থ, অস্বচ্ছল, দুর্ঘটনায় আহত ও নিহত সাংবাদিকদের পরিবারের সদস্যদের আর্থিক সহায়তা দিযেছে।
তিনি বলেন, গত ৭ বছরে সাত শতাধিক পত্রিকার নিবন্ধন প্রদান করা হয়েছে। একই সঙ্গে ৩১টি স্যাটেলাইট চ্যানেল, ২৪টি এফ, এম বেতার এবং ৩২টি কমিউনিটি রেডিও’র অনুমোদন প্রদান করা হয়েছে। তথ্যের অবাধ প্রবাহ নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে সরকার ‘জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা, ২০১৪’ প্রণয়ন করেছে।
হাসানুল হক ইনু বলেন, সংবিধানের ৩৯ নং অনুচ্ছেদে বাক, ভাবপ্রকাশ ও সংবাদক্ষেত্রের স্বাধীনতার নিশ্চয়তা প্রদান করা হয়েছে। বর্তমানে সরকারি ৩টি টেলিভিশন চ্যানেল, ২১টি এফ, এম বেতার এবং ১৭টি কমিউনিটি রেডিও সম্প্রচার কার্যক্রম পরিচালনা করছে।
তিনি বলেন, সংবাদপত্রে কর্মরত সাংবাদিকদের পেশাগত দক্ষতা ও উৎকর্ষ বৃদ্ধির লক্ষ্যে বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট গত ৭ বছরে ১৬ হাজার ১ জন সাংবাদিককে প্রশিক্ষণ দিয়েছে এবং জাতীয় গণমাধ্যম ইনস্টিটিউট একই সময়ে ২ হাজার ২৫৫ জনকে প্রশিক্ষণ প্রদান করেছে।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ইলেকট্রনিক মিডিয়ার জন্য একটি দায়বদ্ধ ‘সম্প্রচার কমিশন’ গঠনের লক্ষ্যে প্রস্তাবিত ‘সম্প্রচার আইন, ২০১৬’ এর খসড়ার চূড়ান্ত পরিমার্জন কার্যক্রম চলমান রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কল্যাণ তহবিল থেকে দুস্থ ও অসুস্থ সাংবাদিকদের অনুকূলে আর্থিক অনুদান প্রদানের পাশাপাশি সরকার সাংবাদিকদের কল্যাণে ‘সাংবাদিক সহায়তা ভাতা বা অনুদান নীতিমালা-২০১২’ এর আওতায় ২০১১-১২ অর্থবছরে ৬১জন, ২০১২-১৩ অর্থবছরে ১৮৫ জন, ২০১৩-১৪ অর্থবছরে ১৯৬ জন, ২০১৪-১৫ অর্থবছরে ১৮১ জন দুস্থ, অস্বচ্ছল, দুর্ঘটনায় আহত ও নিহত সাংবাদিকদের পরিবারের সদস্যদের মাঝে যথাক্রমে ৫০ লাখ, ১ কোটি, ১ কোটি ১০ লাখ, ১ কোটি ২০ লাখ টাকার আর্থিক অনুদানের চেক বিতরণ করেছে।
হাসানুল হক ইনু বলেন, বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট আইন, ২০১৪’ এর আওতায় ইতোমধ্যে একটি ‘ট্রাস্টি বোর্ড’ গঠন করা হয়েছে। ‘সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট বিধিমালা ২০১৬’ প্রণয়ন করা হয়েছে। ট্রাস্টের নিজস্ব তহবিল সৃষ্টির লক্ষ্যে সরকার ইতোমধ্যে ৫ কোটি টাকার ‘সীডমানি’ প্রদান করেছে।
তিনি বলেন, সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের আওতায় প্রথমবারের মতো ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ১৯৬ জন দুস্থ, অস্বচ্ছল, দুর্ঘটনায় আহত ও মৃত সাংবাদিকদের পরিবারের সদস্যদের মাঝে ১ কোটি ৪০ লাখ টাকার অনুদানের চেক বিতরণ করা হয়েছে।