ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
প্রিয়জনদের মানসিক রোগ যদি আপনজন বুঝতে না পারেন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ও অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে পর্তুগাল আওয়ামীলীগ যেকোনো প্রচেষ্টা এককভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব নয়: দুদক সচিব শ্রীমঙ্গলে দুটি চোরাই মোটরসাইকেল সহ মিল্টন কুমার আটক পর্তুগালের অভিবাসন আইনে ব্যাপক পরিবর্তন পর্তুগাল বিএনপি আহবায়ক কমিটির জুমে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয় এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে…

পেটের মধ্যে কাঁচি রেখেই সেলাই

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ
  • আপডেটের সময় : ১০:৩৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৯
  • / ১১৬৬ টাইম ভিউ

চিকিৎসক ভুল করে পেটের মধ্যে ডাক্তারি ছুরি-কাঁচি রেখেই সেলাই করে ফেলেছিলেন। মাস খানেক পরে এক্স রে করাতে রোগিনীর পেটের ভিতরে ধরা পড়ল অবহেলার এই নজির। ভারতের হায়দরাবাদের একটি হাসপাতালে তিনমাস আগে অস্ত্রোপচারের জন্য ভর্তি হয়েছিলেন ওই মহিলা। চিকিৎসকেরা অস্ত্রোপচারের সময় ডাক্তারির বিশেষ কাঁচি বা ফরসেপ রোগিনীর পেটের ভিতরেই রেখে বেমালুম ভুলে যান। তিন মাস ধরে রোগিনীর পেটেই ছিল ওই ফরসেপ।

হায়দরাবাদের বিখ্যাত নিজাম ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সেসে ৩৩ বছর বয়সী এই মহিলা তিন মাস আগে অস্ত্রোপচারের জন্য ভর্তি হন। হাসপাতাল থেকে ছুটি হয়ে যাওয়ার পরে বাড়িতে ফেরার পর থেকেই তিনি পেটের মারাত্মক যন্ত্রণায় ভুগতে থাকেন।

পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য ফের তাঁকে ওই হাসপাতালেই নিয়ে যাওয়া হয় এবং এক্স রে করানো হয়। এক্স রে রিপোর্ট দেখেই চক্ষু চড়কগাছ তাঁর আত্মীয়দের এবং চিকিৎসকদেরও। ওই রিপোর্টেই দেখা যায় মহিলার পেটের মধ্যে রয়েছে একটি ডাক্তারি কাঁচি। অবিলম্বে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আজ সকালেই ফের অস্ত্রোপচার করে ওই যন্ত্রটি বের করা হয়।

এনআইএমএসের পরিচালক কে মনোহর এনডিটিভিকে বলেন, “রোগী আমাদের প্রথম অগ্রাধিকার। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আমরা রোগীর স্বাস্থ্য সমস্যা মিটিয়ে দিতে ওই উপকরণটি বের করে দিচ্ছি।”

পূর্বের অস্ত্রোপচারটি করেছিলেন সার্জিক্যাল গ্যাস্ট্রোএন্ট্রোলজি বিভাগের একজন শল্য চিকিৎসক। হাসপাতালের তরফে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলেও তিনি বলেন।

সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানায়, পুলিশের কাছে, দু’জন ডাক্তারের বিরুদ্ধে ওই মহিলার স্বামী অভিযোগ দায়ের করেছেন। ক্রেতা সুরক্ষা আদালতও বিষয়টি দেখছে।

পোস্ট শেয়ার করুন

পেটের মধ্যে কাঁচি রেখেই সেলাই

আপডেটের সময় : ১০:৩৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

চিকিৎসক ভুল করে পেটের মধ্যে ডাক্তারি ছুরি-কাঁচি রেখেই সেলাই করে ফেলেছিলেন। মাস খানেক পরে এক্স রে করাতে রোগিনীর পেটের ভিতরে ধরা পড়ল অবহেলার এই নজির। ভারতের হায়দরাবাদের একটি হাসপাতালে তিনমাস আগে অস্ত্রোপচারের জন্য ভর্তি হয়েছিলেন ওই মহিলা। চিকিৎসকেরা অস্ত্রোপচারের সময় ডাক্তারির বিশেষ কাঁচি বা ফরসেপ রোগিনীর পেটের ভিতরেই রেখে বেমালুম ভুলে যান। তিন মাস ধরে রোগিনীর পেটেই ছিল ওই ফরসেপ।

হায়দরাবাদের বিখ্যাত নিজাম ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সেসে ৩৩ বছর বয়সী এই মহিলা তিন মাস আগে অস্ত্রোপচারের জন্য ভর্তি হন। হাসপাতাল থেকে ছুটি হয়ে যাওয়ার পরে বাড়িতে ফেরার পর থেকেই তিনি পেটের মারাত্মক যন্ত্রণায় ভুগতে থাকেন।

পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য ফের তাঁকে ওই হাসপাতালেই নিয়ে যাওয়া হয় এবং এক্স রে করানো হয়। এক্স রে রিপোর্ট দেখেই চক্ষু চড়কগাছ তাঁর আত্মীয়দের এবং চিকিৎসকদেরও। ওই রিপোর্টেই দেখা যায় মহিলার পেটের মধ্যে রয়েছে একটি ডাক্তারি কাঁচি। অবিলম্বে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আজ সকালেই ফের অস্ত্রোপচার করে ওই যন্ত্রটি বের করা হয়।

এনআইএমএসের পরিচালক কে মনোহর এনডিটিভিকে বলেন, “রোগী আমাদের প্রথম অগ্রাধিকার। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আমরা রোগীর স্বাস্থ্য সমস্যা মিটিয়ে দিতে ওই উপকরণটি বের করে দিচ্ছি।”

পূর্বের অস্ত্রোপচারটি করেছিলেন সার্জিক্যাল গ্যাস্ট্রোএন্ট্রোলজি বিভাগের একজন শল্য চিকিৎসক। হাসপাতালের তরফে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলেও তিনি বলেন।

সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানায়, পুলিশের কাছে, দু’জন ডাক্তারের বিরুদ্ধে ওই মহিলার স্বামী অভিযোগ দায়ের করেছেন। ক্রেতা সুরক্ষা আদালতও বিষয়টি দেখছে।