ঢাকা , সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
প্রিয়জনদের মানসিক রোগ যদি আপনজন বুঝতে না পারেন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ও অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে পর্তুগাল আওয়ামীলীগ যেকোনো প্রচেষ্টা এককভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব নয়: দুদক সচিব শ্রীমঙ্গলে দুটি চোরাই মোটরসাইকেল সহ মিল্টন কুমার আটক পর্তুগালের অভিবাসন আইনে ব্যাপক পরিবর্তন পর্তুগাল বিএনপি আহবায়ক কমিটির জুমে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয় এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে…

পাঁচ বছরে শাহাব উদ্দিনের ব্যাংক ব্যালেন্স বেড়েছে ২১ গুণ

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্ক:
  • আপডেটের সময় : ০৬:৫৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৮
  • / ৩৯১ টাইম ভিউ

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্ক: আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার-১ (বড়লেখা ও জুড়ী) আসনে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান জাতীয় সংসদের হুইপ ও স্থানীয় সাংসদ মো. শাহাব উদ্দিন। গত ২৮ অক্টোবর তিনি রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়পত্র দাখিল করেন। এবার মনোনয়নপত্রের সঙ্গে জমা দেওয়া হলফনামায় পেশা হিসেবে ব্যবসা উল্লেখ করলেও দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হলফনামায় পেশা হিসেবে কৃষি উল্লেখ করেছিলেন। হলফনামার তথ্য বলছে, হুইপ শাহাব উদ্দিনের পেশা ব্যবসা। যোগ্যতা বিএ পাশ। তাঁর নামে কোনো মামলা নেই, অতীতেও ছিল না। তাঁর কোনো দেনা বা ঋণ নেই। কৃষিখাত থেকে বছরে আয় হয় ৫০ হাজার টাকা। তাঁর ওপর নির্ভরশীলদের বছরে চাকরি থেকে আয় ৫ লাখ টাকা। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হলফনামায় দেওয়া তথ্য অনুযায়ী কৃষি থেকে তাঁর বছরে আয় হতো ৩৬ হাজার টাকা। হলফনামার তথ্য অনুযায়ী, অস্থাবর সম্পত্তির মধ্যে হুইপ শাহাব উদ্দিনের কাছে নগদ ২ লাখ টাকা, পাঁচবছর আগে ছিল ২৫ হাজার টাকা। তাঁর নামে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে জমাকৃত অর্থের পরিমাণ ২২ লাখ ৭১ হাজার ৯’শ টাকা এবং স্ত্রীর নামে ৯৯ হাজার ৬’শ টাকা। পাঁচবছর আগে ছিল ১ লাখ ৮৮ হাজার ৬৮৪ টাকা এবং তাঁর স্ত্রীর কোনো টাকা ছিল না। তাঁর নিজের নামে একটি জিপ আছে, যার মূল্য ৭৪ লাখ টাকা। স্ত্রীর নামে স্বর্ণ, অন্যান্য মূল্যবান ধাতু ও পাথর নির্মিত অলংকার রয়েছে ২০ হাজার টাকার। নিজের নামে (বিবাহসূত্রে প্রাপ্ত) ৪০ হাজার টাকার আসবাবপত্র ও ২০ হাজার টাকা দামের ইলেকট্রনিক সামগ্রী এবং একটি পিস্তল ও একটি বন্দুক রয়েছে। স্থাবর সম্পত্তির মধ্যে হুইপ শাহাব উদ্দিনের পৈত্রিক ও ক্রয়সূত্রে ১২ শতক কৃষি জমি আছে, ঢাকার উত্তরা এলাকায় তাঁর নামে ৩২ লাখ ৩৯ হাজার টাকা মূল্যে অকৃষি জমি এবং যৌথ মালিকানার একটি বাড়ি রয়েছে। হলফনামায় নির্বাচনের আগে দেওয়া তাঁর চারটি প্রতিশ্রুতির কথা উল্লেখ করেছেন। এরমধ্যে জুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নির্মাণ কাজ এবং বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নিতকরণের কাজ শেষ হয়েছে, কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেললাইন পুনঃনির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে, ১২০ কিলোমিটার গ্রামীণ রাস্তা পাকাকরণ কাজ এবং বিভিন্ন গ্রামে প্রায় ৯৭ পারসেন্ট বিদ্যুতায়নের কাজ সমাপ্ত করেছেন বলে দাবি করেছেন।

পোস্ট শেয়ার করুন

পাঁচ বছরে শাহাব উদ্দিনের ব্যাংক ব্যালেন্স বেড়েছে ২১ গুণ

আপডেটের সময় : ০৬:৫৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৮

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্ক: আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার-১ (বড়লেখা ও জুড়ী) আসনে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান জাতীয় সংসদের হুইপ ও স্থানীয় সাংসদ মো. শাহাব উদ্দিন। গত ২৮ অক্টোবর তিনি রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়পত্র দাখিল করেন। এবার মনোনয়নপত্রের সঙ্গে জমা দেওয়া হলফনামায় পেশা হিসেবে ব্যবসা উল্লেখ করলেও দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হলফনামায় পেশা হিসেবে কৃষি উল্লেখ করেছিলেন। হলফনামার তথ্য বলছে, হুইপ শাহাব উদ্দিনের পেশা ব্যবসা। যোগ্যতা বিএ পাশ। তাঁর নামে কোনো মামলা নেই, অতীতেও ছিল না। তাঁর কোনো দেনা বা ঋণ নেই। কৃষিখাত থেকে বছরে আয় হয় ৫০ হাজার টাকা। তাঁর ওপর নির্ভরশীলদের বছরে চাকরি থেকে আয় ৫ লাখ টাকা। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হলফনামায় দেওয়া তথ্য অনুযায়ী কৃষি থেকে তাঁর বছরে আয় হতো ৩৬ হাজার টাকা। হলফনামার তথ্য অনুযায়ী, অস্থাবর সম্পত্তির মধ্যে হুইপ শাহাব উদ্দিনের কাছে নগদ ২ লাখ টাকা, পাঁচবছর আগে ছিল ২৫ হাজার টাকা। তাঁর নামে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে জমাকৃত অর্থের পরিমাণ ২২ লাখ ৭১ হাজার ৯’শ টাকা এবং স্ত্রীর নামে ৯৯ হাজার ৬’শ টাকা। পাঁচবছর আগে ছিল ১ লাখ ৮৮ হাজার ৬৮৪ টাকা এবং তাঁর স্ত্রীর কোনো টাকা ছিল না। তাঁর নিজের নামে একটি জিপ আছে, যার মূল্য ৭৪ লাখ টাকা। স্ত্রীর নামে স্বর্ণ, অন্যান্য মূল্যবান ধাতু ও পাথর নির্মিত অলংকার রয়েছে ২০ হাজার টাকার। নিজের নামে (বিবাহসূত্রে প্রাপ্ত) ৪০ হাজার টাকার আসবাবপত্র ও ২০ হাজার টাকা দামের ইলেকট্রনিক সামগ্রী এবং একটি পিস্তল ও একটি বন্দুক রয়েছে। স্থাবর সম্পত্তির মধ্যে হুইপ শাহাব উদ্দিনের পৈত্রিক ও ক্রয়সূত্রে ১২ শতক কৃষি জমি আছে, ঢাকার উত্তরা এলাকায় তাঁর নামে ৩২ লাখ ৩৯ হাজার টাকা মূল্যে অকৃষি জমি এবং যৌথ মালিকানার একটি বাড়ি রয়েছে। হলফনামায় নির্বাচনের আগে দেওয়া তাঁর চারটি প্রতিশ্রুতির কথা উল্লেখ করেছেন। এরমধ্যে জুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নির্মাণ কাজ এবং বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নিতকরণের কাজ শেষ হয়েছে, কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেললাইন পুনঃনির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে, ১২০ কিলোমিটার গ্রামীণ রাস্তা পাকাকরণ কাজ এবং বিভিন্ন গ্রামে প্রায় ৯৭ পারসেন্ট বিদ্যুতায়নের কাজ সমাপ্ত করেছেন বলে দাবি করেছেন।