ঢাকা , শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পথসভায় মারা গেলো মাশরাফির নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশ

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্ক:
  • আপডেটের সময় : ০৫:৩৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৮
  • / ১০৬৬ টাইম ভিউ

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্ক: নড়াইল-২ আসনের আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার নিরাপত্তা দায়িত্বে থাকা নড়াইল ডিবি পুলিশের কর্মকর্তা সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) মনিরুজ্জামান মিন্টু (৪০) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছে।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার দেবী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মাশরাফি বিন মর্তুজা ও তার স্ত্রী সুমনা হক সুমি পথসভায় বক্তব্য রাখেন। সভা শেষে বিকেল ৩ টার দিকে দেবী থেকে ফেরার সময় তিনি বুকের ব্যথা অনুভব করে অসুস্থ্য হয়ে পড়েন। নিহত মনিরুজ্জামান যশোর জেলার বাঘারপাড়া উপজেলার ইন্দ্রা গ্রামের মমিন বিশ্বাসের পুত্র।

এসময় মাশরাফি নিজে তার বহরে থাকা একটি প্রাইভেটকারে করে তাকে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। সংবাদ শুনে মাশরাফি বিন মর্তুজা লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ছুটে যান। পরে এ্যাম্বুলেন্স যোগে তার মরদেহ নড়াইল পুলিশ লাইনে নিয়ে আসে। এ ঘটনার পর মাশরাফির পিতা গোলাম মর্তুজা স্বপন পুলিশ লাইনে মনিরুজ্জামান মিন্টুর মরদেহ দেখতে যান।

এদিকে এঘটনার পর মাশরাফি বিন মর্তুজার বিভিন্ন স্থানে থাকা নির্ধারিত পথসভা সংক্ষিপ্ত করা হয়। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শরফুদ্দিন মনিরুজ্জামান মিন্টুর নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় পর পুলিশ লাইনে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পরে তার গ্রামের বাড়িতে মরদেহ প্রেরণ করা হবে।
বৃহস্পতিবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

পোস্ট শেয়ার করুন

পথসভায় মারা গেলো মাশরাফির নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশ

আপডেটের সময় : ০৫:৩৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৮

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্ক: নড়াইল-২ আসনের আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার নিরাপত্তা দায়িত্বে থাকা নড়াইল ডিবি পুলিশের কর্মকর্তা সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) মনিরুজ্জামান মিন্টু (৪০) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছে।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার দেবী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মাশরাফি বিন মর্তুজা ও তার স্ত্রী সুমনা হক সুমি পথসভায় বক্তব্য রাখেন। সভা শেষে বিকেল ৩ টার দিকে দেবী থেকে ফেরার সময় তিনি বুকের ব্যথা অনুভব করে অসুস্থ্য হয়ে পড়েন। নিহত মনিরুজ্জামান যশোর জেলার বাঘারপাড়া উপজেলার ইন্দ্রা গ্রামের মমিন বিশ্বাসের পুত্র।

এসময় মাশরাফি নিজে তার বহরে থাকা একটি প্রাইভেটকারে করে তাকে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। সংবাদ শুনে মাশরাফি বিন মর্তুজা লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ছুটে যান। পরে এ্যাম্বুলেন্স যোগে তার মরদেহ নড়াইল পুলিশ লাইনে নিয়ে আসে। এ ঘটনার পর মাশরাফির পিতা গোলাম মর্তুজা স্বপন পুলিশ লাইনে মনিরুজ্জামান মিন্টুর মরদেহ দেখতে যান।

এদিকে এঘটনার পর মাশরাফি বিন মর্তুজার বিভিন্ন স্থানে থাকা নির্ধারিত পথসভা সংক্ষিপ্ত করা হয়। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শরফুদ্দিন মনিরুজ্জামান মিন্টুর নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় পর পুলিশ লাইনে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পরে তার গ্রামের বাড়িতে মরদেহ প্রেরণ করা হবে।
বৃহস্পতিবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।