ঢাকা , রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
লিসবনে আত্মপ্রকাশ হয় সামাজিক সংগঠন “গোলাপগঞ্জ কমিউনিটি কেয়ারর্স পর্তুগাল “ উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল

নিচে নেট ধরার জন্য আকুতি জানিয়েছিলো বাঁচতে চাওয়া মানুষগুলো

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ
  • আপডেটের সময় : ১২:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ মার্চ ২০১৯
  • / ৭৪৯ টাইম ভিউ

রাজধানীর বনানীতে এফআর টাওয়ার নামের ২২ তলা একটি ভবনে আগুন লেগেছে। এফ আর টাওয়ার নামে ওই ভবনটিতে আটকা পড়েছেন অনেকে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস। উদ্ধারকাজে যোগ দিয়েছে নৌ ও বিমানবাহিনীর সদস্যরাও। আটকা পড়াদের সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার দিয়ে উদ্ধার করা হচ্ছে।অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে এখন ২০ জনে পৌছেছে বলে উদ্ধারকর্মীরা জানিয়েছে। আহত হয়েছেন আরও বহু মানুষ। সন্ধ্যার দিকে ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

এফ আর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ভেতরে আটকে পড়েছেন অনেকে। ক্রেনগুলো ১২ তলার ওপরে পৌঁছুতে পারছে না। তবে ওপর থেকে কয়েকজনকে বিমান বাহিনীর হেলিকপ্টার উদ্ধার করেছে।বর্তমানে আগুন থেকে বাঁচার জন্য ভবন থেকে ঝাঁপিয়ে পড়ছেন অনেকে। প্রত্যক্ষদর্শী অনেকে সাংবাদিকদের কাছে অনুরোধ করে নিচে নেট বিছিয়ে দেওয়ার জন্য। তাদের দাবি, তাকে ভবন থেকে ঝাঁপিয়ে পড়া মানুষগুলো অন্তত বাঁচতে পারবে।

সবশেষে একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, ফায়ার সার্ভিসের লোকেরা জানিয়েছেন, ভেতরে আগুন নিয়ন্ত্রণ করা কোনোভাবে সম্ভব হচ্ছে না। তিনি সরকারের কাছে অনুরোধ জানান, ‘ওপরে আটকে পড়া মানুষ যারা লাফিয়ে পড়েছে তাদের বাঁচানোর জন্য নিচে নেট বিছানোর ব্যবস্থা করুন।’উদ্ধার কাজের একটা পর্যায়ে আগুন বেড়ে যায়। এখনও মাঝেমধ্যে ১০-১১ তলায় হঠাৎ হঠাৎ আগুন লাফিয়ে উঠতে দেখা যাচ্ছে। ফায়ার সার্ভিসের ল্যাডার ১২ তলার ওপরে পৌঁছুচ্ছিলো না। এরপর আরও উঁচু ল্যাডার নিয়ে এসে ফায়ার সার্ভিসের দক্ষ কর্মীরা এ ভবন থেকে আটকে পড়া মানুষকে উদ্ধার করা শুরু করে। এ সময় দুইজন নারীসহ কয়েকজনকে উঁচু মইয়ের মাধ্যমে নামিয়ে আনতে দেখা যায়।

ভবনটিতে বেশ কিছু এসি রয়েছে। ইতিমধ্যে বেশ কিছু এসি বিস্ফোরণের আওয়াজ শোনা গেছে। সম্মিলিতভাবে চার বাহিনী আগুন নেভানোর কাজ করে যাচ্ছে। তাদেরকে নামিয়ে অ্যাম্বুলেন্সে করে কুর্মিটোলা হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে। নিচে দাঁড়িয়ে ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকর্মীদের সহায়তা করছেন স্বেচ্ছাসেবী নানা সংগঠন।

পোস্ট শেয়ার করুন

নিচে নেট ধরার জন্য আকুতি জানিয়েছিলো বাঁচতে চাওয়া মানুষগুলো

আপডেটের সময় : ১২:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ মার্চ ২০১৯

রাজধানীর বনানীতে এফআর টাওয়ার নামের ২২ তলা একটি ভবনে আগুন লেগেছে। এফ আর টাওয়ার নামে ওই ভবনটিতে আটকা পড়েছেন অনেকে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস। উদ্ধারকাজে যোগ দিয়েছে নৌ ও বিমানবাহিনীর সদস্যরাও। আটকা পড়াদের সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার দিয়ে উদ্ধার করা হচ্ছে।অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে এখন ২০ জনে পৌছেছে বলে উদ্ধারকর্মীরা জানিয়েছে। আহত হয়েছেন আরও বহু মানুষ। সন্ধ্যার দিকে ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

এফ আর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ভেতরে আটকে পড়েছেন অনেকে। ক্রেনগুলো ১২ তলার ওপরে পৌঁছুতে পারছে না। তবে ওপর থেকে কয়েকজনকে বিমান বাহিনীর হেলিকপ্টার উদ্ধার করেছে।বর্তমানে আগুন থেকে বাঁচার জন্য ভবন থেকে ঝাঁপিয়ে পড়ছেন অনেকে। প্রত্যক্ষদর্শী অনেকে সাংবাদিকদের কাছে অনুরোধ করে নিচে নেট বিছিয়ে দেওয়ার জন্য। তাদের দাবি, তাকে ভবন থেকে ঝাঁপিয়ে পড়া মানুষগুলো অন্তত বাঁচতে পারবে।

সবশেষে একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, ফায়ার সার্ভিসের লোকেরা জানিয়েছেন, ভেতরে আগুন নিয়ন্ত্রণ করা কোনোভাবে সম্ভব হচ্ছে না। তিনি সরকারের কাছে অনুরোধ জানান, ‘ওপরে আটকে পড়া মানুষ যারা লাফিয়ে পড়েছে তাদের বাঁচানোর জন্য নিচে নেট বিছানোর ব্যবস্থা করুন।’উদ্ধার কাজের একটা পর্যায়ে আগুন বেড়ে যায়। এখনও মাঝেমধ্যে ১০-১১ তলায় হঠাৎ হঠাৎ আগুন লাফিয়ে উঠতে দেখা যাচ্ছে। ফায়ার সার্ভিসের ল্যাডার ১২ তলার ওপরে পৌঁছুচ্ছিলো না। এরপর আরও উঁচু ল্যাডার নিয়ে এসে ফায়ার সার্ভিসের দক্ষ কর্মীরা এ ভবন থেকে আটকে পড়া মানুষকে উদ্ধার করা শুরু করে। এ সময় দুইজন নারীসহ কয়েকজনকে উঁচু মইয়ের মাধ্যমে নামিয়ে আনতে দেখা যায়।

ভবনটিতে বেশ কিছু এসি রয়েছে। ইতিমধ্যে বেশ কিছু এসি বিস্ফোরণের আওয়াজ শোনা গেছে। সম্মিলিতভাবে চার বাহিনী আগুন নেভানোর কাজ করে যাচ্ছে। তাদেরকে নামিয়ে অ্যাম্বুলেন্সে করে কুর্মিটোলা হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে। নিচে দাঁড়িয়ে ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকর্মীদের সহায়তা করছেন স্বেচ্ছাসেবী নানা সংগঠন।