ঢাকা , সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
প্রিয়জনদের মানসিক রোগ যদি আপনজন বুঝতে না পারেন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ও অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে পর্তুগাল আওয়ামীলীগ যেকোনো প্রচেষ্টা এককভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব নয়: দুদক সচিব শ্রীমঙ্গলে দুটি চোরাই মোটরসাইকেল সহ মিল্টন কুমার আটক পর্তুগালের অভিবাসন আইনে ব্যাপক পরিবর্তন পর্তুগাল বিএনপি আহবায়ক কমিটির জুমে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয় এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে…

দেশের প্রতি প্রবাসীদের আকৃষ্ট করার উদ্যোগে সিলেট চেম্বারের

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০২:৫০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ অক্টোবর ২০২১
  • / ৩৫১ টাইম ভিউ

প্রবাসে নতুন প্রজন্মকে বাংলাদেশের প্রতি আকৃষ্ট করতে সিলেটে সামিট আয়োজনের প্রস্তাব এসেছে একটি মতবিনিময় সভায়। বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) ব্রিটিশ বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যা ন্ড ইন্ডাস্ট্রির (বিবিসিসিআই) প্রতিনিধিদলের সঙ্গে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় এই প্রস্তাব করা হয়।
দি সিলেট চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির উদ্যোগে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। চেম্বার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন, সিলেট চেম্বারের সভাপতি আবু তাহের মো. শোয়েব। সভায় বিবিসিসিআইয়ের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও প্রতিনিধিদলের প্রধান মুহিব চৌধুরী বলেন, ‘ব্রিটিশ বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স বৃটেনে বসবাসরত বাংলাদেশী ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীদের নিয়ে কাজ করে। এই সংগঠস বাংলাদেশের ব্যবসায়ী ও যুক্তরাজ্যের ব্যবসায়ীদের মধ্যে সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করছে। প্রবাসীদের শেকড়েই ফিরে আসতে হয়। তাই আমরা পরবর্তী প্রজন্মকে দেশের প্রতি আকৃষ্ট করতে চাই। সিলেট চেম্বারের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে সিলেটে একটি সামিট আয়োজন করতে চাই। সামিটের প্রতিপাদ্য বিষয় হবে ‘ওয়েলকাম টু হোম’। যার মাধ্যমে আমাদের ছেলেমেয়েদের ভীতি দূর করে দেশের প্রতি আকর্ষণ সৃষ্টি করতে পারব।’ এ ব্যাপারে তিনি সিলেট চেম্বারে একটি উইং খোলার আহ্বানও জানান।

সিলেট চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি আবু তাহের মো. শোয়েব বলেন, ‘ব্রিটিশ বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স ও সিলেট চেম্বার অব কমার্স দীর্ঘদিন ধরে বৃটেন ও বাংলাদেশের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্কের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। ইতিপূর্বে আমরা বাংলাদেশে বিদেশি বিনিয়োগ বৃদ্ধি, নতুন প্রজন্মের প্রবাসীদের দেশে আকৃষ্টকরণ, সিলেটে স্পেশাল ইকোনমিক জোন গঠনসহ বিভিন্ন ইস্যুতে যৌথভাবে কাজ করেছি। যার ফলে বর্তমান সরকার বাংলাদেশে ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠায় এগিয়ে এসেছেন।’
সভায় আরও বক্তব্য দেন, বিবিসিসিআই’র ভাইস প্রেসিডেন্ট ড. সানাওয়ার চৌধুরী, ডাইরেক্টর জেনারেল সাইদুর রহমান রেনু, ডাইরেক্টর অ্যান্ড প্রেসিডেন্ট নর্থ ওয়েস্ট রিজিওন মিজানুর রহমান মিজান, ডাইরেক্টর বাংলাদেশ চ্যাপ্টার এম. এ. লাকী, এফবিসিসিআই’র সাবেক পরিচালক মো. হিজকিল গুলজার, সদস্য মুজিবুর রহমান, সিলেট চেম্বারের সহসভাপতি ও এফবিসিসিআই এর পরিচালক তাহমিন আহমদ, পরিচালক মুশফিক জায়গীরদার, এহতেমামুল হক চৌধুরী, ফালাহ উদ্দিন আলী আহমদ, মো. আব্দুর রহমান (জামিল), মো. আতিক হোসেন, আলীমুল এহছান চৌধুরী, ওয়াহিদুজ্জামান চৌধুরী (রাজিব), খন্দকার ইসরার আহমদ রকী প্রমুখ।

পোস্ট শেয়ার করুন

দেশের প্রতি প্রবাসীদের আকৃষ্ট করার উদ্যোগে সিলেট চেম্বারের

আপডেটের সময় : ০২:৫০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ অক্টোবর ২০২১

প্রবাসে নতুন প্রজন্মকে বাংলাদেশের প্রতি আকৃষ্ট করতে সিলেটে সামিট আয়োজনের প্রস্তাব এসেছে একটি মতবিনিময় সভায়। বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) ব্রিটিশ বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যা ন্ড ইন্ডাস্ট্রির (বিবিসিসিআই) প্রতিনিধিদলের সঙ্গে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় এই প্রস্তাব করা হয়।
দি সিলেট চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির উদ্যোগে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। চেম্বার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন, সিলেট চেম্বারের সভাপতি আবু তাহের মো. শোয়েব। সভায় বিবিসিসিআইয়ের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও প্রতিনিধিদলের প্রধান মুহিব চৌধুরী বলেন, ‘ব্রিটিশ বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স বৃটেনে বসবাসরত বাংলাদেশী ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীদের নিয়ে কাজ করে। এই সংগঠস বাংলাদেশের ব্যবসায়ী ও যুক্তরাজ্যের ব্যবসায়ীদের মধ্যে সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করছে। প্রবাসীদের শেকড়েই ফিরে আসতে হয়। তাই আমরা পরবর্তী প্রজন্মকে দেশের প্রতি আকৃষ্ট করতে চাই। সিলেট চেম্বারের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে সিলেটে একটি সামিট আয়োজন করতে চাই। সামিটের প্রতিপাদ্য বিষয় হবে ‘ওয়েলকাম টু হোম’। যার মাধ্যমে আমাদের ছেলেমেয়েদের ভীতি দূর করে দেশের প্রতি আকর্ষণ সৃষ্টি করতে পারব।’ এ ব্যাপারে তিনি সিলেট চেম্বারে একটি উইং খোলার আহ্বানও জানান।

সিলেট চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি আবু তাহের মো. শোয়েব বলেন, ‘ব্রিটিশ বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স ও সিলেট চেম্বার অব কমার্স দীর্ঘদিন ধরে বৃটেন ও বাংলাদেশের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্কের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। ইতিপূর্বে আমরা বাংলাদেশে বিদেশি বিনিয়োগ বৃদ্ধি, নতুন প্রজন্মের প্রবাসীদের দেশে আকৃষ্টকরণ, সিলেটে স্পেশাল ইকোনমিক জোন গঠনসহ বিভিন্ন ইস্যুতে যৌথভাবে কাজ করেছি। যার ফলে বর্তমান সরকার বাংলাদেশে ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠায় এগিয়ে এসেছেন।’
সভায় আরও বক্তব্য দেন, বিবিসিসিআই’র ভাইস প্রেসিডেন্ট ড. সানাওয়ার চৌধুরী, ডাইরেক্টর জেনারেল সাইদুর রহমান রেনু, ডাইরেক্টর অ্যান্ড প্রেসিডেন্ট নর্থ ওয়েস্ট রিজিওন মিজানুর রহমান মিজান, ডাইরেক্টর বাংলাদেশ চ্যাপ্টার এম. এ. লাকী, এফবিসিসিআই’র সাবেক পরিচালক মো. হিজকিল গুলজার, সদস্য মুজিবুর রহমান, সিলেট চেম্বারের সহসভাপতি ও এফবিসিসিআই এর পরিচালক তাহমিন আহমদ, পরিচালক মুশফিক জায়গীরদার, এহতেমামুল হক চৌধুরী, ফালাহ উদ্দিন আলী আহমদ, মো. আব্দুর রহমান (জামিল), মো. আতিক হোসেন, আলীমুল এহছান চৌধুরী, ওয়াহিদুজ্জামান চৌধুরী (রাজিব), খন্দকার ইসরার আহমদ রকী প্রমুখ।