ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
প্রিয়জনদের মানসিক রোগ যদি আপনজন বুঝতে না পারেন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ও অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে পর্তুগাল আওয়ামীলীগ যেকোনো প্রচেষ্টা এককভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব নয়: দুদক সচিব শ্রীমঙ্গলে দুটি চোরাই মোটরসাইকেল সহ মিল্টন কুমার আটক পর্তুগালের অভিবাসন আইনে ব্যাপক পরিবর্তন পর্তুগাল বিএনপি আহবায়ক কমিটির জুমে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয় এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে…

দুই ঈদে ছুটির দাবিতে নিউইয়র্ক রাজ্য পার্লামেন্টে বাংলাদেশিরা

অনলাইন ডেস্ক :
  • আপডেটের সময় : ০৪:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৬ মার্চ ২০১৮
  • / ১৩৯৩ টাইম ভিউ

শতাধিক প্রবাসী বাংলাদেশির একটি দল ১৩ মার্চ একত্রিত হন নিউ ইয়র্ক রাজ্যের রাজধানী শহর আলবেনীতে। বেশ কিছু দাবি আদায়ের জন্যে গত ৭ বছর ধরেই বছরের একটি নির্দিষ্ট সময়ে বাংলাদেশি আমেরিকান এডভোকেসি গ্রুপ (বিএএজি) এর ব্যানারে অঙ্গরাজ্য পার্লামেন্টের উভয় কক্ষের নীতি-নির্ধারকসহ নিউ ইয়র্ক রাজ্য গভর্নরের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সাথে দেন-দরবার করছেন।

এসব দাবিগুলো হল নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হালাল খাদ্য সরবরাহ, দুই ঈদের দিন ছুটি ঘোষণা, শিশুকালে মা-বাবার সাথে যুক্তরাষ্ট্রে আসার পর এখন পর্যন্ত যারা ইমিগ্রেশনের বৈধ স্ট্যাটাস পাননি তাদের নিরাপদে বসবাস ও কাজের সুযোগদানের লক্ষ্যে ড্রিম এ্যাক্ট তৈরি, ড্রিমারদের উচ্চ শিক্ষার্থে স্কলারশিপ প্রবর্তন, পরিবেশ সুরক্ষায় যথাযথ আইন, ধর্মীয় পোশাকের সুরক্ষা, ট্যাক্সি ড্রাইভারদের নিরাপত্তায় আইন তৈরি, ইত্যাদি।

বিএএজির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীন বলেন, সমগ্র মুসলিম জনগোষ্ঠির পক্ষে এ দাবি আদায়ের চেষ্টায় আছি। একেবারেই ভিন্ন একটি পরিবেশের জনপ্রতিনিধিগণের সমর্থন আদায় করা যতটা জটিল মনে হয়েছিল, ৭ বছরের ব্যবধানে তা আর মনে হচ্ছে না। অনেকেই আমাদের দাবির সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন।

জয়নাল আবেদীন বলেন, ইতিমধ্যে স্টেট সিনেটর ডেমক্র্যাট এন্থনী আভেলা জুনিয়র এবং স্টেট এ্যাসেম্বলিম্যান ডেভিড ওয়েপ্রিন ঈদের দু’দিন ছুটি, ধর্মীয় পোশাকের বৈষম্য বিরোধী বিধি এবং ড্রিম এ্যাক্ট বিল উত্থাপন করেছেন অঙ্গরাজ্য পার্লামেন্টে। এছাড়া, ড্রিমারদের উচ্চশিক্ষায় স্কলারশিপ প্রদানের বিধি তৈরির জন্যে দুটি বিল উঠিয়েছেন সিনেটর হোযে প্যারাল্টা এবং স্টেট এ্যাসেম্বলিম্যান ফ্রান্সিসকো ময়া। অর্থাৎ আমাদের দেন-দরবারের প্রভাব ধীরে ধীরে কাজ করছে।

নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্য পার্লামেন্টে পাবলিকানদের সমর্থন ব্যতিত কোন আইন করা সম্ভব হয় না। জয়নাল আবেদীন বলেন, আমরা হতাশ হইনি। রীতি অনুযায়ী দেন-দরবার চালাচ্ছি। এবার ২৩টি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে আমরা বৈঠক করেছি ৬৬ জন সিনেটর এবং এ্যাসেম্বলিমেনের সাথে। অভিভাবকদের মধ্যে যারা শুধু বাংলায় কথা বলতে পারেন, তারাও ছিলেন। তাদের বক্তব্য সাথে সাথে অনুবাদকের মাধ্যমে জনপ্রতিনিধিদের কাছে উপস্থাপন করা হয়। অধিকাংশই আমাদের দাবির সাথে সংহতি প্রকাশ করেছেন এবং সহকর্মীদের সাথে তারা এ নিয়ে কথা বলবেন বলে অঙ্গীকার করেছেন। এটিই আমাদের সাফল্য।

প্রসঙ্গত, দু’বছর আগে নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলে পাশ হওয়া আইন অনুযায়ী এই সিটির সকল পাবলিক স্কুল-কলেজে দুই ঈদের দিন ছুটি ঘোষিত হচ্ছে। সেই বিধি পুরো অঙ্গরাজ্যে পাবলিক স্কুল-কলেজে প্রসারিত করতে চাচ্ছেন মুসলিম সম্প্রদায়।

বিএএজির পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান কামাল ভূইয়া এবং ট্রেজারার মোহাম্মদ রহমান ছিলেন গ্রুপভিত্তিক এসব বৈঠকের সমন্বয়কারী।

কম্যুনিটির অধিকার ও মর্যাদা নিয়ে লাগাতার তদবিরের প্রশংসা বাক্য উচ্চারণ করে অঙ্গরাজ্য গভর্নরের পক্ষ থেকে বিএএজিকে স্বাধীনতা দিবসের প্রক্লেমেশন প্রদান করেন ডেপুটি গভর্নর ক্যাথি হকুল। উল্লেখ্য, ডেপুটি গভর্নর ছাড়াও গভর্নরের শিক্ষা সচিব এন্থনী লফরোমেন্টোর সাথেও বৈঠক করেছেন কর্মকর্তারা।

পোস্ট শেয়ার করুন

দুই ঈদে ছুটির দাবিতে নিউইয়র্ক রাজ্য পার্লামেন্টে বাংলাদেশিরা

আপডেটের সময় : ০৪:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৬ মার্চ ২০১৮

শতাধিক প্রবাসী বাংলাদেশির একটি দল ১৩ মার্চ একত্রিত হন নিউ ইয়র্ক রাজ্যের রাজধানী শহর আলবেনীতে। বেশ কিছু দাবি আদায়ের জন্যে গত ৭ বছর ধরেই বছরের একটি নির্দিষ্ট সময়ে বাংলাদেশি আমেরিকান এডভোকেসি গ্রুপ (বিএএজি) এর ব্যানারে অঙ্গরাজ্য পার্লামেন্টের উভয় কক্ষের নীতি-নির্ধারকসহ নিউ ইয়র্ক রাজ্য গভর্নরের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সাথে দেন-দরবার করছেন।

এসব দাবিগুলো হল নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হালাল খাদ্য সরবরাহ, দুই ঈদের দিন ছুটি ঘোষণা, শিশুকালে মা-বাবার সাথে যুক্তরাষ্ট্রে আসার পর এখন পর্যন্ত যারা ইমিগ্রেশনের বৈধ স্ট্যাটাস পাননি তাদের নিরাপদে বসবাস ও কাজের সুযোগদানের লক্ষ্যে ড্রিম এ্যাক্ট তৈরি, ড্রিমারদের উচ্চ শিক্ষার্থে স্কলারশিপ প্রবর্তন, পরিবেশ সুরক্ষায় যথাযথ আইন, ধর্মীয় পোশাকের সুরক্ষা, ট্যাক্সি ড্রাইভারদের নিরাপত্তায় আইন তৈরি, ইত্যাদি।

বিএএজির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীন বলেন, সমগ্র মুসলিম জনগোষ্ঠির পক্ষে এ দাবি আদায়ের চেষ্টায় আছি। একেবারেই ভিন্ন একটি পরিবেশের জনপ্রতিনিধিগণের সমর্থন আদায় করা যতটা জটিল মনে হয়েছিল, ৭ বছরের ব্যবধানে তা আর মনে হচ্ছে না। অনেকেই আমাদের দাবির সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন।

জয়নাল আবেদীন বলেন, ইতিমধ্যে স্টেট সিনেটর ডেমক্র্যাট এন্থনী আভেলা জুনিয়র এবং স্টেট এ্যাসেম্বলিম্যান ডেভিড ওয়েপ্রিন ঈদের দু’দিন ছুটি, ধর্মীয় পোশাকের বৈষম্য বিরোধী বিধি এবং ড্রিম এ্যাক্ট বিল উত্থাপন করেছেন অঙ্গরাজ্য পার্লামেন্টে। এছাড়া, ড্রিমারদের উচ্চশিক্ষায় স্কলারশিপ প্রদানের বিধি তৈরির জন্যে দুটি বিল উঠিয়েছেন সিনেটর হোযে প্যারাল্টা এবং স্টেট এ্যাসেম্বলিম্যান ফ্রান্সিসকো ময়া। অর্থাৎ আমাদের দেন-দরবারের প্রভাব ধীরে ধীরে কাজ করছে।

নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্য পার্লামেন্টে পাবলিকানদের সমর্থন ব্যতিত কোন আইন করা সম্ভব হয় না। জয়নাল আবেদীন বলেন, আমরা হতাশ হইনি। রীতি অনুযায়ী দেন-দরবার চালাচ্ছি। এবার ২৩টি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে আমরা বৈঠক করেছি ৬৬ জন সিনেটর এবং এ্যাসেম্বলিমেনের সাথে। অভিভাবকদের মধ্যে যারা শুধু বাংলায় কথা বলতে পারেন, তারাও ছিলেন। তাদের বক্তব্য সাথে সাথে অনুবাদকের মাধ্যমে জনপ্রতিনিধিদের কাছে উপস্থাপন করা হয়। অধিকাংশই আমাদের দাবির সাথে সংহতি প্রকাশ করেছেন এবং সহকর্মীদের সাথে তারা এ নিয়ে কথা বলবেন বলে অঙ্গীকার করেছেন। এটিই আমাদের সাফল্য।

প্রসঙ্গত, দু’বছর আগে নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলে পাশ হওয়া আইন অনুযায়ী এই সিটির সকল পাবলিক স্কুল-কলেজে দুই ঈদের দিন ছুটি ঘোষিত হচ্ছে। সেই বিধি পুরো অঙ্গরাজ্যে পাবলিক স্কুল-কলেজে প্রসারিত করতে চাচ্ছেন মুসলিম সম্প্রদায়।

বিএএজির পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান কামাল ভূইয়া এবং ট্রেজারার মোহাম্মদ রহমান ছিলেন গ্রুপভিত্তিক এসব বৈঠকের সমন্বয়কারী।

কম্যুনিটির অধিকার ও মর্যাদা নিয়ে লাগাতার তদবিরের প্রশংসা বাক্য উচ্চারণ করে অঙ্গরাজ্য গভর্নরের পক্ষ থেকে বিএএজিকে স্বাধীনতা দিবসের প্রক্লেমেশন প্রদান করেন ডেপুটি গভর্নর ক্যাথি হকুল। উল্লেখ্য, ডেপুটি গভর্নর ছাড়াও গভর্নরের শিক্ষা সচিব এন্থনী লফরোমেন্টোর সাথেও বৈঠক করেছেন কর্মকর্তারা।