ঢাকা , শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল মান অভিমান ভুলে সবাই একই প্লাটফর্মে,সংবাদ সম্মেলনে পর্তুগাল বিএনপির নবগঠিত আহবায়ক কমিটি ইতালির ভিসেন্সায় সিলেট ডায়নামিক অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনে ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠিত

দক্ষিণ কোরিয়ায় হাসপাতালে আগুন, নিহত ৪১

অনলাইন ডেস্ক :
  • আপডেটের সময় : ০৪:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ জানুয়ারী ২০১৮
  • / ১১৫৩ টাইম ভিউ

দক্ষিণ কোরিয়ার মিরিয়াং এলাকার একটি হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডে ৪১ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়াও দগ্ধ ৭৭ জনের মধ্যে ১১ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

বিবিসি জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় রাজধানী সিউল থেকে ২৭০ কিলোমিটির দূরে সেজং হাসপাতালের জরুরি বিভাগ থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। ওই হাসপাতালে ভেতরে ২০০ রোগী অবস্থান করছিলেন। তাদের মধ্যে কেবল ৯৩ জনকে নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া সম্ভব হয়েছে।

আর রয়টার্স জানিয়েছে, দমকলকর্মীরা এরই মধ্যে ২০০ জনকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করেছে। তাদের মধ্যে সাত জনের অবস্থা গুরুতর। এখনো আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি।

তবে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট এক মোবাইল বার্তায় দ্রুত আগুনের ক্ষয়ক্ষতি ও কারণ চিহ্নিত করতে নির্দেশ দিয়েছেন। এরপরই অনুসন্ধানে নেমেছেন সংশ্লিষ্টরা।

দক্ষিণ কোরিয়ার গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, প্রায় তিন ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এস নার্সিং এ হাসপাতালে ২০০ রোগী ছিলেন।

পোস্ট শেয়ার করুন

দক্ষিণ কোরিয়ায় হাসপাতালে আগুন, নিহত ৪১

আপডেটের সময় : ০৪:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ জানুয়ারী ২০১৮

দক্ষিণ কোরিয়ার মিরিয়াং এলাকার একটি হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডে ৪১ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়াও দগ্ধ ৭৭ জনের মধ্যে ১১ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

বিবিসি জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় রাজধানী সিউল থেকে ২৭০ কিলোমিটির দূরে সেজং হাসপাতালের জরুরি বিভাগ থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। ওই হাসপাতালে ভেতরে ২০০ রোগী অবস্থান করছিলেন। তাদের মধ্যে কেবল ৯৩ জনকে নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া সম্ভব হয়েছে।

আর রয়টার্স জানিয়েছে, দমকলকর্মীরা এরই মধ্যে ২০০ জনকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করেছে। তাদের মধ্যে সাত জনের অবস্থা গুরুতর। এখনো আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি।

তবে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট এক মোবাইল বার্তায় দ্রুত আগুনের ক্ষয়ক্ষতি ও কারণ চিহ্নিত করতে নির্দেশ দিয়েছেন। এরপরই অনুসন্ধানে নেমেছেন সংশ্লিষ্টরা।

দক্ষিণ কোরিয়ার গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, প্রায় তিন ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এস নার্সিং এ হাসপাতালে ২০০ রোগী ছিলেন।