ঢাকা , সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
প্রিয়জনদের মানসিক রোগ যদি আপনজন বুঝতে না পারেন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ও অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে পর্তুগাল আওয়ামীলীগ যেকোনো প্রচেষ্টা এককভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব নয়: দুদক সচিব শ্রীমঙ্গলে দুটি চোরাই মোটরসাইকেল সহ মিল্টন কুমার আটক পর্তুগালের অভিবাসন আইনে ব্যাপক পরিবর্তন পর্তুগাল বিএনপি আহবায়ক কমিটির জুমে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয় এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে…

জুড়ীতে দুর্বৃত্তদের বিষ প্রয়োগে ৫ লক্ষ টাকার মাছ নিধন

জুড়ী প্রতিনিধি:
  • আপডেটের সময় : ১০:৩৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ নভেম্বর ২০২০
  • / ৩৫৪ টাইম ভিউ

জুড়ী উপজেলার কৃষ্ণনগর গ্রামের একটি ফিসারীতে দুর্বৃত্তরা বিষ প্রয়োগ করে ৫ লক্ষাধিক টাকার মাছ নিধন করেছে। এব্যাপারে ফিসারী মালিক বৃহস্পতিবার থানায় সাধারণ ডায়রী করেছেন।

জানা গেছে, কৃষ্ণনগর গ্রামের মৃত উসমান আলীর ছেলে সাবেক ইউপি মেম্বার সামছু মিয়া ও হামিদপুর গ্রামের মৃত খুরশিদ আলীর ছেলে বদরুল ইসলাম ধামাই টি এস্টেট মৌজার ১২ একর জমিতে ৪ বছর পূর্বে একটি বড় ফিসারী দিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ করে আসছিলেন। ফিসারীটি লাভজনক হয়ে উঠায় দুর্বৃত্তরা ঈর্ষাম্বিত হয়ে উঠে। এমতাবস্থায় বুধবার রাতে দুষ্কৃতিকারীরা ফিসারীতে বিষ প্রয়োগ করে পালিয়ে যায়। পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে ফিসারীর মালিক সামছু মিয়া ফিসারীতে গিয়ে দেখেন ফিসারীর পানিতে ছোট-বড় বিভিন্ন প্রজাতির মাছ মরে ভেসে উঠেছে।

সরেজমিনে গিয়ে ফিসারীতে ব্যাপক মরা মাছ ভেসে থাকতে দেখা গেছে। মাছ পচায় পানি থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। ফিসারী মালিক সাবেক ইউপি মেম্বার সমছু মিয়া জানান, এতে তার ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে। এ ঘটনায় তিনি থানায় জিডি করেছেন।

জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ সঞ্জয় চক্রবর্তী বিষপ্রয়োগে মাছ নিধনের ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়রির বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ ঘটনাটি তদন্ত করছে।#

পোস্ট শেয়ার করুন

জুড়ীতে দুর্বৃত্তদের বিষ প্রয়োগে ৫ লক্ষ টাকার মাছ নিধন

আপডেটের সময় : ১০:৩৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ নভেম্বর ২০২০

জুড়ী উপজেলার কৃষ্ণনগর গ্রামের একটি ফিসারীতে দুর্বৃত্তরা বিষ প্রয়োগ করে ৫ লক্ষাধিক টাকার মাছ নিধন করেছে। এব্যাপারে ফিসারী মালিক বৃহস্পতিবার থানায় সাধারণ ডায়রী করেছেন।

জানা গেছে, কৃষ্ণনগর গ্রামের মৃত উসমান আলীর ছেলে সাবেক ইউপি মেম্বার সামছু মিয়া ও হামিদপুর গ্রামের মৃত খুরশিদ আলীর ছেলে বদরুল ইসলাম ধামাই টি এস্টেট মৌজার ১২ একর জমিতে ৪ বছর পূর্বে একটি বড় ফিসারী দিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ করে আসছিলেন। ফিসারীটি লাভজনক হয়ে উঠায় দুর্বৃত্তরা ঈর্ষাম্বিত হয়ে উঠে। এমতাবস্থায় বুধবার রাতে দুষ্কৃতিকারীরা ফিসারীতে বিষ প্রয়োগ করে পালিয়ে যায়। পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে ফিসারীর মালিক সামছু মিয়া ফিসারীতে গিয়ে দেখেন ফিসারীর পানিতে ছোট-বড় বিভিন্ন প্রজাতির মাছ মরে ভেসে উঠেছে।

সরেজমিনে গিয়ে ফিসারীতে ব্যাপক মরা মাছ ভেসে থাকতে দেখা গেছে। মাছ পচায় পানি থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। ফিসারী মালিক সাবেক ইউপি মেম্বার সমছু মিয়া জানান, এতে তার ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে। এ ঘটনায় তিনি থানায় জিডি করেছেন।

জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ সঞ্জয় চক্রবর্তী বিষপ্রয়োগে মাছ নিধনের ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়রির বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ ঘটনাটি তদন্ত করছে।#