ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
বাংলাদেশে কোটা আন্দোলনে হত্যার প্রতিবাদে পর্তুগালে বিক্ষোভ করেছে বাংলাদেশী প্রবাসীরা প্রিয়জনদের মানসিক রোগ যদি আপনজন বুঝতে না পারেন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ও অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে পর্তুগাল আওয়ামীলীগ যেকোনো প্রচেষ্টা এককভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব নয়: দুদক সচিব শ্রীমঙ্গলে দুটি চোরাই মোটরসাইকেল সহ মিল্টন কুমার আটক পর্তুগালের অভিবাসন আইনে ব্যাপক পরিবর্তন পর্তুগাল বিএনপি আহবায়ক কমিটির জুমে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয় এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর

ঘুমন্ত কিশোরের কানে কামড় দিল সাপ, অতঃপর.

দেশদিগন্ত ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০৩:১৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জুন ২০২০
  • / ৭৩১ টাইম ভিউ

দেশদিগন্ত :নওগাঁর পত্নীতলায় বিষাক্ত সাপের দংশনে আব্দুল জলিল (১৫) নামে এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (৯জুন) রাত আড়াইটার দিকে ওই কিশোর মারা যায়। এর আগে রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার আমবাটি গ্রামে সাপের দংশনের ঘটনা ঘটে। আব্দুল জলিল গ্রামের নইম উদ্দিনের ছেলে।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, আব্দুল জলিল ঘরের ভেতর চৌকিতে এবং তার বাবা-মা মেঝেতে শুয়ে ছিল। রাত সাড়ে ১০টার দিকে জানালা দিয়ে সাপ প্রবেশ করে আব্দুল জলিলের কানে কামড় দিয়ে থাকে। বিষাক্ত সাপের দংশনে যন্ত্রণায় কানে হাত দিয়ে সাপ ধরে চিৎকার দেয় আব্দুল জলিল। পরে তার চিৎকারে বাবা ঘুম থেকে উঠে সাপটি মেরে ফেলেন।

স্থানীয় পাটিচাড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রায়হানুল আলম বলেন, ছেলেটি ঘুমের মধ্যে সাপটি ধরে। পরে বাবা-ছেলে মিলে সাপটিকে মেরে ফেলে। শুনেছি স্থানীয়ভাবে ওঝা-কবিরাজ দিয়ে ঝাঁড়-ফুক করা হয়েছিল। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথেই মারা যায়।

পত্নীতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পরিমল চক্রবর্তী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পোস্ট শেয়ার করুন

ঘুমন্ত কিশোরের কানে কামড় দিল সাপ, অতঃপর.

আপডেটের সময় : ০৩:১৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জুন ২০২০

দেশদিগন্ত :নওগাঁর পত্নীতলায় বিষাক্ত সাপের দংশনে আব্দুল জলিল (১৫) নামে এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (৯জুন) রাত আড়াইটার দিকে ওই কিশোর মারা যায়। এর আগে রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার আমবাটি গ্রামে সাপের দংশনের ঘটনা ঘটে। আব্দুল জলিল গ্রামের নইম উদ্দিনের ছেলে।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, আব্দুল জলিল ঘরের ভেতর চৌকিতে এবং তার বাবা-মা মেঝেতে শুয়ে ছিল। রাত সাড়ে ১০টার দিকে জানালা দিয়ে সাপ প্রবেশ করে আব্দুল জলিলের কানে কামড় দিয়ে থাকে। বিষাক্ত সাপের দংশনে যন্ত্রণায় কানে হাত দিয়ে সাপ ধরে চিৎকার দেয় আব্দুল জলিল। পরে তার চিৎকারে বাবা ঘুম থেকে উঠে সাপটি মেরে ফেলেন।

স্থানীয় পাটিচাড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রায়হানুল আলম বলেন, ছেলেটি ঘুমের মধ্যে সাপটি ধরে। পরে বাবা-ছেলে মিলে সাপটিকে মেরে ফেলে। শুনেছি স্থানীয়ভাবে ওঝা-কবিরাজ দিয়ে ঝাঁড়-ফুক করা হয়েছিল। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথেই মারা যায়।

পত্নীতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পরিমল চক্রবর্তী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।