ঢাকা , শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল মান অভিমান ভুলে সবাই একই প্লাটফর্মে,সংবাদ সম্মেলনে পর্তুগাল বিএনপির নবগঠিত আহবায়ক কমিটি ইতালির ভিসেন্সায় সিলেট ডায়নামিক অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনে ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠিত

গুলিতে ঝাঁঝরা হচ্ছে পিঠ, তবু ছেলেকে ঘিরে রাখলেন বাবা!

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ
  • আপডেটের সময় : ০১:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯
  • / ৯১২ টাইম ভিউ

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ গুলিতে ঝাঁঝরা হচ্ছে পিঠ, তবু ছেলেকে ঘিরে রাখলেন বাবা!নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের আল-নুর মসজিদে বাবার পাশে জুমার নামাজে দাঁড়িয়েছিলেন আলি আদিব। হঠাৎ গুলির শব্দ। সামনের দিকে দৌড়ানোর চেষ্টা করলেন আলি। হোঁচট খেয়ে পড়ে গেলেন। কিছুক্ষণ পর গুলি থামলে দেখলেন, পুরো শরীর দিয়ে যিনি তাকে জড়িয়ে রেখেছেন তিনি তারই বাবা আদিব সামি। ২৩ বছর বয়সী আলি বলেন, ‘গুলি থামার পর মাথা তুলে জরুরী সংস্থায় ফোন করার চেষ্টায় করলাম। কিন্তু মুহূর্তেই গুলির শব্দ পেয়ে বুঝতে পারি হামলাকারী আবার ফিরে আসছে। বাবা আমাকে আবারও ঘিরে ধরলেন। মানুষের স্তুপের ওপর পুনরায় গুলি করতে থাকে সে। আমার পুরো শরীর কাপছিলো।’ চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আলির বাবা আবিদ সামির পিঠে ৬টি গুলি লেগেছে।

কয়েকটি মেরুদণ্ড ছেদ করেছে। আলি বলেন, ‘বাবা আমার জন্য পিঠে গুলি নিলেন। তার কারণে আমার গায়ে কোন গুলিই লাগেনি। সেদিন মসজিদের মূল হল রুমে যারা ছিলো তাদের মধ্যে আর কেউ গুলি না খেয়ে বের হতে পেরেছে বলে আমার মনে হয় না।’ আলির বোন হেবা জানান, তার বাবা এখন আইসিইউতে কোমায়। তার দুইটি অপারেশন হয়ে গেছে। হেবা বলেন, ‘আমার বাবা আসল নায়ক। নিজে অনেকগুলো গুলি খেলেও সন্তানের কোন ক্ষতি হতে দেননি তিনি।’ তবে বাবা-ভাই বাঁচলেও অনেক বন্ধুকে হারিয়ে মুষড়ে পড়েছেন হেবা।

পোস্ট শেয়ার করুন

গুলিতে ঝাঁঝরা হচ্ছে পিঠ, তবু ছেলেকে ঘিরে রাখলেন বাবা!

আপডেটের সময় : ০১:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ গুলিতে ঝাঁঝরা হচ্ছে পিঠ, তবু ছেলেকে ঘিরে রাখলেন বাবা!নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের আল-নুর মসজিদে বাবার পাশে জুমার নামাজে দাঁড়িয়েছিলেন আলি আদিব। হঠাৎ গুলির শব্দ। সামনের দিকে দৌড়ানোর চেষ্টা করলেন আলি। হোঁচট খেয়ে পড়ে গেলেন। কিছুক্ষণ পর গুলি থামলে দেখলেন, পুরো শরীর দিয়ে যিনি তাকে জড়িয়ে রেখেছেন তিনি তারই বাবা আদিব সামি। ২৩ বছর বয়সী আলি বলেন, ‘গুলি থামার পর মাথা তুলে জরুরী সংস্থায় ফোন করার চেষ্টায় করলাম। কিন্তু মুহূর্তেই গুলির শব্দ পেয়ে বুঝতে পারি হামলাকারী আবার ফিরে আসছে। বাবা আমাকে আবারও ঘিরে ধরলেন। মানুষের স্তুপের ওপর পুনরায় গুলি করতে থাকে সে। আমার পুরো শরীর কাপছিলো।’ চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আলির বাবা আবিদ সামির পিঠে ৬টি গুলি লেগেছে।

কয়েকটি মেরুদণ্ড ছেদ করেছে। আলি বলেন, ‘বাবা আমার জন্য পিঠে গুলি নিলেন। তার কারণে আমার গায়ে কোন গুলিই লাগেনি। সেদিন মসজিদের মূল হল রুমে যারা ছিলো তাদের মধ্যে আর কেউ গুলি না খেয়ে বের হতে পেরেছে বলে আমার মনে হয় না।’ আলির বোন হেবা জানান, তার বাবা এখন আইসিইউতে কোমায়। তার দুইটি অপারেশন হয়ে গেছে। হেবা বলেন, ‘আমার বাবা আসল নায়ক। নিজে অনেকগুলো গুলি খেলেও সন্তানের কোন ক্ষতি হতে দেননি তিনি।’ তবে বাবা-ভাই বাঁচলেও অনেক বন্ধুকে হারিয়ে মুষড়ে পড়েছেন হেবা।