ঢাকা , বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল মান অভিমান ভুলে সবাই একই প্লাটফর্মে,সংবাদ সম্মেলনে পর্তুগাল বিএনপির নবগঠিত আহবায়ক কমিটি

গভীর রাতে ট্রাক চাপায় প্রাণ গেলো দুই মোটরসাইকেল আরোহীর

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্ক:
  • আপডেটের সময় : ০৮:৪৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১২ জানুয়ারী ২০১৯
  • / ৮২৬ টাইম ভিউ

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্ক: ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নে ট্রাকের ধাক্কায় নাঈম আহমেদর (২৬) ও শিমুল আহমেদর (২২) নামে দুই মোটরসাইকেল আরোহী যুবক নিহত হয়েছেন। নিহত নাঈম আহমেদ (২৬) উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের সাতাইহাল গ্রামের আরজু মিয়ার ছেলে ও শিমুল আহমেদ গজনাইপুর ইউনিয়নের গজনাইপুর গ্রামের মৃত আজমদ মিয়ার ছেলে।

শুক্রবার রাত ১টার দিকে উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের দিনারপুর দাখিল মাদ্রাসার সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, উল্লে­খিত সময় নাঈম ও শিমুল উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের আইনগাঁও থেকে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফেরার পথে মহাসড়কের আইনগাঁও নামকস্থানে দিনারপুর দাখিল মাদ্রাসার সামনে পৌঁছা মাত্রই একটি ট্রাক মোটরসাইকেলকে পিছন থেকে মারাত্মক ভাবে ধাক্কা দেয়। এসময় মোটরসাইকেলটি ধুমড়ে মুচড়ে যায়। দুর্ঘটনার পর পরই ঘাতক ট্রাক দ্রুত পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই শিমুল আহমেদ প্রাণ হারান। এসময় ১ ঘন্টা মহাসড়কের যান চলাচল বন্ধ থাকে। সেসময় আশংকাজনক অবস্থায় অপর মোটর সাইকেল আরোহী নাঈম আহমেদকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি পৌছামাত্রই নাঈমের মৃত্যু হয়। পরে খবর পেয়ে গোপলার বাজার তদন্তকেন্দ্রের একদল পুলিশ ও শেরপুর হাইওয়ে থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান চলাচল স্বাভাবিক করে।

এ দিকে নাঈম ও শিমুলের মুত্যুতে এলাকাজুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তাদের পরিবারে চলছে শোকের মাতম।

শেরপুর হাইওয়ে পুলিশের ওসি জসিম উদ্দিন নিহতের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন নিহতদের লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্টের জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।

সাতাইহাল গ্রামের বাসিন্দা সাবেক মেম্বার জমশেদ আলী বলেন, নাঈম এলাকার পরিচিত মুখ, খুব ভালো মানুষ ছিল, তার অকালে চলে যাওয়া তা মেনে নেয়ার মতো নয়।

শাহ নুরুজ্জামান নামে সাতাইহাল ফুলতলি বাজারের বাসিন্দা বলেন, নাঈম ও শিমুল দুজনই এলাকায় অত্যান্ত পরিচত, নাঈম পোল্ট্রি ফার্মের ব্যবসা করতো, তাদের স্মৃতি সারা জীবন দিনারপুরবাসীর মনে থাকবে।

পোস্ট শেয়ার করুন

গভীর রাতে ট্রাক চাপায় প্রাণ গেলো দুই মোটরসাইকেল আরোহীর

আপডেটের সময় : ০৮:৪৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১২ জানুয়ারী ২০১৯

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্ক: ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নে ট্রাকের ধাক্কায় নাঈম আহমেদর (২৬) ও শিমুল আহমেদর (২২) নামে দুই মোটরসাইকেল আরোহী যুবক নিহত হয়েছেন। নিহত নাঈম আহমেদ (২৬) উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের সাতাইহাল গ্রামের আরজু মিয়ার ছেলে ও শিমুল আহমেদ গজনাইপুর ইউনিয়নের গজনাইপুর গ্রামের মৃত আজমদ মিয়ার ছেলে।

শুক্রবার রাত ১টার দিকে উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের দিনারপুর দাখিল মাদ্রাসার সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, উল্লে­খিত সময় নাঈম ও শিমুল উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের আইনগাঁও থেকে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফেরার পথে মহাসড়কের আইনগাঁও নামকস্থানে দিনারপুর দাখিল মাদ্রাসার সামনে পৌঁছা মাত্রই একটি ট্রাক মোটরসাইকেলকে পিছন থেকে মারাত্মক ভাবে ধাক্কা দেয়। এসময় মোটরসাইকেলটি ধুমড়ে মুচড়ে যায়। দুর্ঘটনার পর পরই ঘাতক ট্রাক দ্রুত পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই শিমুল আহমেদ প্রাণ হারান। এসময় ১ ঘন্টা মহাসড়কের যান চলাচল বন্ধ থাকে। সেসময় আশংকাজনক অবস্থায় অপর মোটর সাইকেল আরোহী নাঈম আহমেদকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি পৌছামাত্রই নাঈমের মৃত্যু হয়। পরে খবর পেয়ে গোপলার বাজার তদন্তকেন্দ্রের একদল পুলিশ ও শেরপুর হাইওয়ে থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান চলাচল স্বাভাবিক করে।

এ দিকে নাঈম ও শিমুলের মুত্যুতে এলাকাজুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তাদের পরিবারে চলছে শোকের মাতম।

শেরপুর হাইওয়ে পুলিশের ওসি জসিম উদ্দিন নিহতের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন নিহতদের লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্টের জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।

সাতাইহাল গ্রামের বাসিন্দা সাবেক মেম্বার জমশেদ আলী বলেন, নাঈম এলাকার পরিচিত মুখ, খুব ভালো মানুষ ছিল, তার অকালে চলে যাওয়া তা মেনে নেয়ার মতো নয়।

শাহ নুরুজ্জামান নামে সাতাইহাল ফুলতলি বাজারের বাসিন্দা বলেন, নাঈম ও শিমুল দুজনই এলাকায় অত্যান্ত পরিচত, নাঈম পোল্ট্রি ফার্মের ব্যবসা করতো, তাদের স্মৃতি সারা জীবন দিনারপুরবাসীর মনে থাকবে।