ঢাকা , রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গনঅভ্যত্থান ছাড়া দেশনেত্রীকে মুক্ত করা যাবেনা কুয়েতে বিএনপি নেতৃবন্দ

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০৪:৫৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ২০ জানুয়ারী ২০১৯
  • / ১৫২৫ টাইম ভিউ

দেশদিগন্ত নিউজ ডেক্সঃ বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি কুয়েত রাজ্য শাখার আয়োজনে গতকাল ১৯ জানুয়ারী শনিবার রাত ৯ কুয়েত সিটিস্হ রাজধানী হোটেলে গণতন্ত্রের প্রবর্তক মহান স্বাধীনতার ঘোষক আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার প্রবাদ পুরুষ বাঙালি জাতির মুক্তির দিশারী , বাংলাদেশর মহান নেতা শহীদ প্রেসিডন্ট জিয়াউর রহমানের ৮৩ম জন্মবার্ষিকী পালন করা হয় । ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাষ্টার নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে, জাতীয়তাবাদী দলের যুগ্মসম্পাদক আজিজ উদ্দিন মিন্টু ও আব্দুল কাদেরের যৌথ উপস্হাপনায় মন্চে উপস্হিত থেকে বক্তব্য রাখেন পর্যায়ক্রমে জাতীয়তাবাদী দল কুয়েত’র যুগ্মসম্পাদক আক্তারুজামান সামস্, নাসের মর্তুজা , কুয়েত রাজ্য বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ুন কবির মায়মুন, আব্দুল লতিফ খান,জাতীয়তাবাদী ফোরাম সিলেট বিভাগ কুয়েত’র সভাপতি মো:শওকত আলী , সহ সাংগঠনিক ফয়জুর রহমান সুমন, শ্রমিকদলের সভাপতি মোমিন উল্ল্যা পাটোয়ারী,জাসাস কুয়েত রাজ্য শাখার সদস্য সচিব শফিকুল ইসলাম, মহানগর বিএনপির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা,মহানগর বিএনপির সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম,শ্রমিকদলের সাধারন সম্পাদক গোল্ডেন সেলিম খাঁন, কুয়েত রাজ্য বিএনপি নেতা শফিউল্লাহ লিটন, সুমন আনসারী ও ফখরুল ইসলাম বিপ্লব প্রমূখ । বক্তারা বলেন -উন্নয়ন ও গণতন্ত্র অঙ্গাঅঙ্গীভাবে জড়িত , গণতন্ত্র ছাড়া পৃথিবীর কোন দেশেই উন্নয়ন হয়নি । মূল্যবোধ ব্যাক্তি স্বাধীনতা বন্ধ করে গণতন্ত্র হয় না, গণতন্ত্র ও উন্নয়ন দুটি পাশাপাশি চলতে হবে। বিশ্বাস ঘাতকদের ঠাই জাতীয়তাবাদী দলে হবে না। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আদর্শে আদর্শিত হয়ে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দলের জন্য কাজ করতে হবে। শহীদ জিয়া ছিলেন এদেশের বহুদলীয় গনতন্ত্রের প্রবর্তক। শহীদ জিয়ার নেতৃত্বে বাংলাদেশ তলাবিহীন ঝুড়ি থেকে অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী একটি দেশে পরিনত হয়েছিল। যেখানে গণতন্ত্র নেই সেখানে উন্নয়ন কি করে অর্জিত হলো । আগামী ৩৯ তারিখের নির্বাচন কোনো সাধারন নির্বাচন নয়, তা ডাকাতের হাত থেকে লুন্ঠিত মানবতাকে ফিরিয়ে আনার নির্বাচন । এ নির্বাচনে অবৈধভাবে আসা ক্ষমতাসীন সরকার সমস্হ রাষ্ট্রীয় বাহিনীকে প্রাইভেট আওয়ামী বাহিনী হিসেবে ব্যাবহার করছে একটি সাজানো ফলাফল বের করে আনার জন্য তারা সবই করেছে । এর বিপরিতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদীদল দেশ নেত্রী বেগম জিয়ার এবং আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নেতৃত্ব জনসমর্থনের বলে বলিয়ান হয়ে এই সকল সরযন্ত্র মোকাবিলায় এগিয়ে এসেছি আমরা । আমরা প্রবাসীরা রাষ্ট্রীয় আচরনের মুখামুখি হতে হচ্ছে । দেশের ইতিহাসের নিকৃষ্টতম স্বৈরাচার সরকার থেকে জনগণ মুক্তি চায়।

50230728_342426859680492_4937149500427862016_n

পোস্ট শেয়ার করুন

গনঅভ্যত্থান ছাড়া দেশনেত্রীকে মুক্ত করা যাবেনা কুয়েতে বিএনপি নেতৃবন্দ

আপডেটের সময় : ০৪:৫৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ২০ জানুয়ারী ২০১৯

দেশদিগন্ত নিউজ ডেক্সঃ বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি কুয়েত রাজ্য শাখার আয়োজনে গতকাল ১৯ জানুয়ারী শনিবার রাত ৯ কুয়েত সিটিস্হ রাজধানী হোটেলে গণতন্ত্রের প্রবর্তক মহান স্বাধীনতার ঘোষক আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার প্রবাদ পুরুষ বাঙালি জাতির মুক্তির দিশারী , বাংলাদেশর মহান নেতা শহীদ প্রেসিডন্ট জিয়াউর রহমানের ৮৩ম জন্মবার্ষিকী পালন করা হয় । ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাষ্টার নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে, জাতীয়তাবাদী দলের যুগ্মসম্পাদক আজিজ উদ্দিন মিন্টু ও আব্দুল কাদেরের যৌথ উপস্হাপনায় মন্চে উপস্হিত থেকে বক্তব্য রাখেন পর্যায়ক্রমে জাতীয়তাবাদী দল কুয়েত’র যুগ্মসম্পাদক আক্তারুজামান সামস্, নাসের মর্তুজা , কুয়েত রাজ্য বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ুন কবির মায়মুন, আব্দুল লতিফ খান,জাতীয়তাবাদী ফোরাম সিলেট বিভাগ কুয়েত’র সভাপতি মো:শওকত আলী , সহ সাংগঠনিক ফয়জুর রহমান সুমন, শ্রমিকদলের সভাপতি মোমিন উল্ল্যা পাটোয়ারী,জাসাস কুয়েত রাজ্য শাখার সদস্য সচিব শফিকুল ইসলাম, মহানগর বিএনপির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা,মহানগর বিএনপির সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম,শ্রমিকদলের সাধারন সম্পাদক গোল্ডেন সেলিম খাঁন, কুয়েত রাজ্য বিএনপি নেতা শফিউল্লাহ লিটন, সুমন আনসারী ও ফখরুল ইসলাম বিপ্লব প্রমূখ । বক্তারা বলেন -উন্নয়ন ও গণতন্ত্র অঙ্গাঅঙ্গীভাবে জড়িত , গণতন্ত্র ছাড়া পৃথিবীর কোন দেশেই উন্নয়ন হয়নি । মূল্যবোধ ব্যাক্তি স্বাধীনতা বন্ধ করে গণতন্ত্র হয় না, গণতন্ত্র ও উন্নয়ন দুটি পাশাপাশি চলতে হবে। বিশ্বাস ঘাতকদের ঠাই জাতীয়তাবাদী দলে হবে না। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আদর্শে আদর্শিত হয়ে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দলের জন্য কাজ করতে হবে। শহীদ জিয়া ছিলেন এদেশের বহুদলীয় গনতন্ত্রের প্রবর্তক। শহীদ জিয়ার নেতৃত্বে বাংলাদেশ তলাবিহীন ঝুড়ি থেকে অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী একটি দেশে পরিনত হয়েছিল। যেখানে গণতন্ত্র নেই সেখানে উন্নয়ন কি করে অর্জিত হলো । আগামী ৩৯ তারিখের নির্বাচন কোনো সাধারন নির্বাচন নয়, তা ডাকাতের হাত থেকে লুন্ঠিত মানবতাকে ফিরিয়ে আনার নির্বাচন । এ নির্বাচনে অবৈধভাবে আসা ক্ষমতাসীন সরকার সমস্হ রাষ্ট্রীয় বাহিনীকে প্রাইভেট আওয়ামী বাহিনী হিসেবে ব্যাবহার করছে একটি সাজানো ফলাফল বের করে আনার জন্য তারা সবই করেছে । এর বিপরিতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদীদল দেশ নেত্রী বেগম জিয়ার এবং আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নেতৃত্ব জনসমর্থনের বলে বলিয়ান হয়ে এই সকল সরযন্ত্র মোকাবিলায় এগিয়ে এসেছি আমরা । আমরা প্রবাসীরা রাষ্ট্রীয় আচরনের মুখামুখি হতে হচ্ছে । দেশের ইতিহাসের নিকৃষ্টতম স্বৈরাচার সরকার থেকে জনগণ মুক্তি চায়।

50230728_342426859680492_4937149500427862016_n