ঢাকা , বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পূর্ব লন্ডনে বড়লেখার সোয়েব আহমেদের সমর্থনে মতবিনিময় সভা ইতালির ভেনিসে গ্রিন সিলেট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন এর জরুরি সভা অনুষ্ঠিত ইতালির ভেনিসে এনটিভির ইউরোপের ডিরেক্টর সাবরিনা হোসাইন কে সংবর্ধনা দিয়েছে ইউরোপিয়ান বাংলা প্রেসক্লাব পর্তুগালে বেজা আওয়ামীলীগের কর্মি সভা পর্তুগাল এ ফ্রেন্ডশিপ ক্রিকেট ক্লাবের জার্সি উন্মোচন লিসবনে আত্মপ্রকাশ হয় সামাজিক সংগঠন “গোলাপগঞ্জ কমিউনিটি কেয়ারর্স পর্তুগাল “ উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা

কোমর পানির নিচে চট্টগ্রামের বহু সড়ক, দুর্ভোগ

অনলাইন ডেস্ক :
  • আপডেটের সময় : ০৩:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩১ মে ২০১৭
  • / ১১৯৫ টাইম ভিউ

ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’র পর জলাবদ্ধতায় চরম দুর্ভোগে পড়েছে চট্টগ্রামবাসী। মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার সকাল পর্যন্ত অবিরাম বৃষ্টিতে চট্টগ্রামের নিচু এলাকাগুলো তলিয়ে গেছে হাঁটু থেকে কোমর পর্যন্ত।
নগরীর জিইসি মোড়, দুই নম্বর গেট, আগ্রাবাদ এক্সেস সড়ক, চকবাজার, হালিশহর, বহদ্দারহাট, মুরাদপুর, বাকলিয়া, বাদুরতলাসহ নগরীর বিভিন্ন নিচু এলাকা বর্তমানে পানির নিচে। ওই সব এলাকার বাড়িঘর ও দোকানে পানি ঢোকায় বিপাকে পড়েছে জনগণ। বিভিন্ন জায়গায় গাড়ির ইঞ্জিনে পানি ঢুকে যাওয়ায় অনেক যানবাহন বিকল হয়ে যায়। এতে পরিস্থিতি আরো খারাপ হয়ে যায়।
সকালে কোমর পর্যন্ত পানি ডিঙিয়ে কর্মস্থলে যেতে হয়েছে কর্মজীবী মানুষদের। অপরদিকে জলাবদ্ধতার মধ্যে যানবাহনের ভাড়া বৃদ্ধি পাওয়ায় দ্বিগুণ কষ্টে পড়েছে নগরবাসী। এই দ্বিগুণ ভাড়া দিয়েও রিকশা ও সিএনজি দিয়ে বাধ্য হয়ে গন্তব্যে পৌঁছেছে কর্মমুখী মানুষ।
চট্টগ্রাম কলেজের অর্থনীতির ছাত্রী রুখসা তাবাস্সুম আরটিভি অনলাইনকে জানান, আজ আমার টিউটোরিয়াল পরীক্ষা। পানির কারণে সময় মতো রিকশা পাইনি। বাকলিয়া থেকে এক কিলোমিটার হাঁটার পর রিকশা পেয়েছি। বাকলিয়া থেকে চট্টগ্রাম কলেজ যেতে ভাড়া লাগতো ৪০ টাকা। এখন এক কিলোমিটার হাঁটার পরও ৬০ টাকা দিয়ে চট্টগ্রাম কলেজ যাচ্ছি।
পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিসের ডিউটি এসিস্টেন্ট মোহাম্মদ রেজাউল করিম খান আরটিভি অনলাইনকে জানান, মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে বুধবার সকাল ৯টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টার বৃষ্টিতে ২২৫.২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।
তিনি আরো জানান, বৃষ্টিপাত ও বৈরী আবহাওয়া আরো ১-২ দিন থাকতে পারে। ঘূর্ণিঝড় মোরা উপকূল অতিক্রম করার পর ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত নামিয়ে ৩ নম্বর স্থানীয় সর্তক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

পোস্ট শেয়ার করুন

কোমর পানির নিচে চট্টগ্রামের বহু সড়ক, দুর্ভোগ

আপডেটের সময় : ০৩:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩১ মে ২০১৭

ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’র পর জলাবদ্ধতায় চরম দুর্ভোগে পড়েছে চট্টগ্রামবাসী। মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার সকাল পর্যন্ত অবিরাম বৃষ্টিতে চট্টগ্রামের নিচু এলাকাগুলো তলিয়ে গেছে হাঁটু থেকে কোমর পর্যন্ত।
নগরীর জিইসি মোড়, দুই নম্বর গেট, আগ্রাবাদ এক্সেস সড়ক, চকবাজার, হালিশহর, বহদ্দারহাট, মুরাদপুর, বাকলিয়া, বাদুরতলাসহ নগরীর বিভিন্ন নিচু এলাকা বর্তমানে পানির নিচে। ওই সব এলাকার বাড়িঘর ও দোকানে পানি ঢোকায় বিপাকে পড়েছে জনগণ। বিভিন্ন জায়গায় গাড়ির ইঞ্জিনে পানি ঢুকে যাওয়ায় অনেক যানবাহন বিকল হয়ে যায়। এতে পরিস্থিতি আরো খারাপ হয়ে যায়।
সকালে কোমর পর্যন্ত পানি ডিঙিয়ে কর্মস্থলে যেতে হয়েছে কর্মজীবী মানুষদের। অপরদিকে জলাবদ্ধতার মধ্যে যানবাহনের ভাড়া বৃদ্ধি পাওয়ায় দ্বিগুণ কষ্টে পড়েছে নগরবাসী। এই দ্বিগুণ ভাড়া দিয়েও রিকশা ও সিএনজি দিয়ে বাধ্য হয়ে গন্তব্যে পৌঁছেছে কর্মমুখী মানুষ।
চট্টগ্রাম কলেজের অর্থনীতির ছাত্রী রুখসা তাবাস্সুম আরটিভি অনলাইনকে জানান, আজ আমার টিউটোরিয়াল পরীক্ষা। পানির কারণে সময় মতো রিকশা পাইনি। বাকলিয়া থেকে এক কিলোমিটার হাঁটার পর রিকশা পেয়েছি। বাকলিয়া থেকে চট্টগ্রাম কলেজ যেতে ভাড়া লাগতো ৪০ টাকা। এখন এক কিলোমিটার হাঁটার পরও ৬০ টাকা দিয়ে চট্টগ্রাম কলেজ যাচ্ছি।
পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিসের ডিউটি এসিস্টেন্ট মোহাম্মদ রেজাউল করিম খান আরটিভি অনলাইনকে জানান, মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে বুধবার সকাল ৯টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টার বৃষ্টিতে ২২৫.২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।
তিনি আরো জানান, বৃষ্টিপাত ও বৈরী আবহাওয়া আরো ১-২ দিন থাকতে পারে। ঘূর্ণিঝড় মোরা উপকূল অতিক্রম করার পর ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত নামিয়ে ৩ নম্বর স্থানীয় সর্তক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।