ঢাকা , মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা কুলাউড়ার হাজীপুরে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যার ১২ ঘন্টার মধ্যেই দুজন গ্রেফতার কুলাউড়ার হাজীপুর ইউনিয়নে প্রতিপক্ষের হামলায়  আছকির মিয়া (৫০)নিহত  হয়েছেন। বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বিএনপির আহবায়ক কমিটির অভিষেক ও পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত। সিলেট বিভাগের শ্রেষ্ঠ মাদ্রাসা প্রধান নির্বাচিত হলেন অধ্যক্ষ মাওলানা বশির আহমদ মুসলিম কমিউনিটি মৌলভীবাজার এর কমিটি গঠন

কেন পদত্যাগ করছেন হাথুরুসিঙ্গে?

অনলাইন ডেস্ক :
  • আপডেটের সময় : ১১:৩৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১০ নভেম্বর ২০১৭
  • / ১৪৬৭ টাইম ভিউ

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের প্রধান কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর জন্য ক্রিকেট বোর্ডের কাছে নিজের পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন শ্রীলঙ্কান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিঙ্গে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বা বিসিবি-র সভাপতি নাজমুল হাসান।
তিনি জানান, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের পরই বোর্ডকে চিঠি দিয়ে তার পদত্যাগের কথা জানিয়েছিলেন হাথুরুসিঙ্গে। কিন্তু নির্দিষ্টভাবে এর জন্য কোনো কারণ উল্লেখ করেননি তিনি।
বোর্ড সভাপতির কথায়, “হতে পারে কোনো আবেগজনিত কারণে বা পারিবারিক কারণে তিনি সরে দাঁড়াতে চাইছেন। আমি ঠিক জানি না। ওই চিঠি দেয়ার পর আমার সঙ্গে তার কোনো কথাবার্তাও হয়নি।”

নাজমুল হাসান আরো বলেন, “এতদিনের পরিচয়ের সুবাদে তাকে আমি অত্যন্ত পেশাদার একজন ব্যক্তি হিসেবেই চিনি। কিন্তু এবারে দেখছি দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের পরই তিনি চিঠি পাঠিয়ে সোজা গিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় চুপচাপ বসে আছেন। এটা একেবারেই তার স্বভাববিরুদ্ধ।”

তবে হাথুরুসিঙ্গের পদত্যাগপত্র গৃহীত হবে কি না তা জানতে আগামী ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতে হবে। সে দিনই অস্ট্রেলিয়া থেকে ছুটি কাটিয়ে তার ঢাকায় ফেরার কথা।
হাথুরুসিঙ্গে ফিরলে তার সাথে মুখোমুখি কথা বলেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছে ক্রিকেট বোর্ড।

তবে বোর্ড সভাপতি সেই সঙ্গেই যোগ করেছেন, “আমাদের আগে জানতে হবে কেন ও ছেড়ে দিতে চাচ্ছে। বিষয়টা টাকাকড়ির নয়, সেটা আমি নিশ্চিত। তবে যদি কেউ থাকতে না-চায়, তাকে কীভাবে আমরা জোর করে আটকে রাখব?”

সম্প্রতি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর ছিল ব্যর্থতায় ভরা। ওই সফরে টেস্ট, ওয়ান-ডে ও টিটোয়েন্টি সিরিজে দলের চূড়ান্ত ব্যর্থতার পরই বোর্ডের কাছে তার পদত্যাগ পত্র জমা দিয়েছিলেন প্রধান কোচ হাথুরুসিঙ্গে।
বিশ্বের ক্রিকেট ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া কোচ তিনি, কিন্তু সম্প্রতি বোর্ডের সাথে তার সম্পর্ক যে খুব একটা ভালো যাচ্ছিল না এটাও ঠিক।
সে বিষয়টিও স্পষ্ট করেছেন নাজমুল হাসান। পাশাপাশি বলেছেন, দলের ক্রিকেটাররা তাকে নিয়ে কেন মিডিয়াতে নানা ধরনের কথাবার্তা বলেন তা নিয়েও হাথুরুসিংহে তার কাছে আগে একাধিকবার অনুযোগ করেছেন।

ক্রিকেটার ও কোচকে নিয়ে তিনি মিটমাটের চেষ্টায় আগেও বসেছেন বলে জানান বোর্ড সভাপতি।
দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের আগে অবশ্য হাথুরুসিংহের অধীনে বাংলাদেশ দল দেশের বাইরেও উল্লেখ করার মতো সাফল্য পেয়েছে।

বিশেষ করে ২০১৫তে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে ওয়ানডে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল আর বিগত মে-জুন মাসে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে হাথুরুসিঙ্গের কোচিংয়েই বাংলাদেশ সেমিফাইনালে খেলে।
এছাড়া সাবেক এই টেস্ট ক্রিকেটার বাংলাদেশের দায়িত্ব নেবার পর ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়েও এই প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ ৬ নম্বরে উঠে আসে। টেস্টে জয় পায় অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডের মতো প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে।

এদিকে, হাথুরুসিঙ্গে বাংলোদেশ ছেড়ে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের কোচের দায়িত্ব নিতে পারেন বলে খবর দিয়েছে ক্রিকেটবিষয়ক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো।
বর্তমান চুক্তি অনুসারে অবশ্য ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপ পর্যন্ত তার বাংলাদেশের সাথ কাজ করার কথা।

পোস্ট শেয়ার করুন

কেন পদত্যাগ করছেন হাথুরুসিঙ্গে?

আপডেটের সময় : ১১:৩৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১০ নভেম্বর ২০১৭

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের প্রধান কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর জন্য ক্রিকেট বোর্ডের কাছে নিজের পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন শ্রীলঙ্কান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিঙ্গে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বা বিসিবি-র সভাপতি নাজমুল হাসান।
তিনি জানান, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের পরই বোর্ডকে চিঠি দিয়ে তার পদত্যাগের কথা জানিয়েছিলেন হাথুরুসিঙ্গে। কিন্তু নির্দিষ্টভাবে এর জন্য কোনো কারণ উল্লেখ করেননি তিনি।
বোর্ড সভাপতির কথায়, “হতে পারে কোনো আবেগজনিত কারণে বা পারিবারিক কারণে তিনি সরে দাঁড়াতে চাইছেন। আমি ঠিক জানি না। ওই চিঠি দেয়ার পর আমার সঙ্গে তার কোনো কথাবার্তাও হয়নি।”

নাজমুল হাসান আরো বলেন, “এতদিনের পরিচয়ের সুবাদে তাকে আমি অত্যন্ত পেশাদার একজন ব্যক্তি হিসেবেই চিনি। কিন্তু এবারে দেখছি দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের পরই তিনি চিঠি পাঠিয়ে সোজা গিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় চুপচাপ বসে আছেন। এটা একেবারেই তার স্বভাববিরুদ্ধ।”

তবে হাথুরুসিঙ্গের পদত্যাগপত্র গৃহীত হবে কি না তা জানতে আগামী ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতে হবে। সে দিনই অস্ট্রেলিয়া থেকে ছুটি কাটিয়ে তার ঢাকায় ফেরার কথা।
হাথুরুসিঙ্গে ফিরলে তার সাথে মুখোমুখি কথা বলেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছে ক্রিকেট বোর্ড।

তবে বোর্ড সভাপতি সেই সঙ্গেই যোগ করেছেন, “আমাদের আগে জানতে হবে কেন ও ছেড়ে দিতে চাচ্ছে। বিষয়টা টাকাকড়ির নয়, সেটা আমি নিশ্চিত। তবে যদি কেউ থাকতে না-চায়, তাকে কীভাবে আমরা জোর করে আটকে রাখব?”

সম্প্রতি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর ছিল ব্যর্থতায় ভরা। ওই সফরে টেস্ট, ওয়ান-ডে ও টিটোয়েন্টি সিরিজে দলের চূড়ান্ত ব্যর্থতার পরই বোর্ডের কাছে তার পদত্যাগ পত্র জমা দিয়েছিলেন প্রধান কোচ হাথুরুসিঙ্গে।
বিশ্বের ক্রিকেট ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া কোচ তিনি, কিন্তু সম্প্রতি বোর্ডের সাথে তার সম্পর্ক যে খুব একটা ভালো যাচ্ছিল না এটাও ঠিক।
সে বিষয়টিও স্পষ্ট করেছেন নাজমুল হাসান। পাশাপাশি বলেছেন, দলের ক্রিকেটাররা তাকে নিয়ে কেন মিডিয়াতে নানা ধরনের কথাবার্তা বলেন তা নিয়েও হাথুরুসিংহে তার কাছে আগে একাধিকবার অনুযোগ করেছেন।

ক্রিকেটার ও কোচকে নিয়ে তিনি মিটমাটের চেষ্টায় আগেও বসেছেন বলে জানান বোর্ড সভাপতি।
দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের আগে অবশ্য হাথুরুসিংহের অধীনে বাংলাদেশ দল দেশের বাইরেও উল্লেখ করার মতো সাফল্য পেয়েছে।

বিশেষ করে ২০১৫তে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে ওয়ানডে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল আর বিগত মে-জুন মাসে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে হাথুরুসিঙ্গের কোচিংয়েই বাংলাদেশ সেমিফাইনালে খেলে।
এছাড়া সাবেক এই টেস্ট ক্রিকেটার বাংলাদেশের দায়িত্ব নেবার পর ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়েও এই প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ ৬ নম্বরে উঠে আসে। টেস্টে জয় পায় অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডের মতো প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে।

এদিকে, হাথুরুসিঙ্গে বাংলোদেশ ছেড়ে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের কোচের দায়িত্ব নিতে পারেন বলে খবর দিয়েছে ক্রিকেটবিষয়ক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো।
বর্তমান চুক্তি অনুসারে অবশ্য ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপ পর্যন্ত তার বাংলাদেশের সাথ কাজ করার কথা।