ঢাকা , বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে… এই অভ্যাসগুলোর চর্চা নিয়মিত করা উচিৎ স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য থাকা জরুরি কেনো ? পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা

কুলাউড়া উপজেলা বিএনপির নেতা-কর্মীদের মধ্যে বিপুল উত্সাহ উদ্দীপনা আগামী শনিবার কুলাউড়ায় কাউন্সিল

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০৯:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ জুন ২০১৯
  • / ৩৩৮ টাইম ভিউ

নাজমুল বারী সোহেল ঃদীর্ঘ কয়েক বছর পর অনুষ্ঠিত হচ্ছে কুলাউড়া উপজেলা বিএনপির কাউন্সিল । দলের এ উত্সবকে ঘিরে নেতা-কর্মীদের মধ্যে বিপুল উত্সাহ উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে। কাউন্সিলের দিকে তাকিয়ে আছে দলের নেতা-কর্মীসহ ‍কুলাউড়ার সাধারণ মানুষ । দীর্ঘদিনের দ্বন্ধ নিরসনের পর এখন ঐক্যবদ্ধ কুলাউড়া বিএনপি। দু’গুরুপে নেতাকর্মীরা এখন একসাথে কর্মসূচী পালন করছেন। এর আগে একটি গ্রুপের নেপথ্যে থাকতেন এম এম শাহীন। আর অন্য গ্রুপের নেতৃত্ব দিতেন কেন্দ্রীয় বিএনপির নেতা অ্যাডভোকেট আবেদ রাজা। দীর্ঘদিন থেকে কুলাউড়া বিএনপি চলছিল এভাবেই। কিন্তু গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এম এম শাহীন বিকল্পধারায় যোগ দেওয়ায় তার গ্রুপের নেতা-কর্মীরা সংবাদ সম্মেলন করে তাঁর সঙ্গ ত্যাগ করেন । তারপরই দীর্ঘদিনের দ্বন্ধ ও ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধ হয় কুলাউড়া বিএনপি। আগামী ১৫ই জুন ২০১৯ইং শনিবার কুলাউড়া উপজেলা বিএনপির কাউন্সিল । সোমবার দুপুরে উপজেলা বিএনপির কার্যালয় থেকে মনোনয়ন ফরম বিতরণ করেন কেন্দ্রীয় নেতা কুলাউড়া উপজেলা বিএনপির আহবায়ক এডভোকেট এ.এন.এম আবেদ রাজা। কার্যক্রম পরিচালনা করেন যুগ্ম আহবায়ক আলমগীর হোসেন ভুইয়া ও মোঃ রফিক আহমদ। নির্ধারিত ফি দিয়ে বিকাল ৪টা পর্যন্ত সভাপতি পদে মনোনয়ন সংগ্রহ করেন সাবেক সভাপতি, সাবেক পৌর মেয়র ও জেলা বিএনপির সদস্য কামাল উদ্দিন আহমদ জুনেদ, সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও পৌর প্যানেল মেয়র জয়নাল আবেদীন বাচ্চু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক জেলা বিএনপির সদস্য এম এ মজিদ, সাধারণ সম্পাদক পদে মনোনয়ন সংগ্রহ করেন সাবেক সাধারণ সম্পাদক, জেলা বিএনপির সদস্য বদরুজ্জামান সজল, রেদওয়ান খান, সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক জয়নাল আবেদীন খাঁন। সাংগঠনিক পদে মনোনয়ন পত্র গ্রহন করেন মইনুল হক বকুল, বদরুল হোসেন খাঁন, দেলোয়ার হোসেন, এডভোকেট আব্দুস সালাম ও মোঃ আব্বাছ উদ্দিন। কাউন্সিলের নির্বাচনী তফশীল অনুযায়ী ১১ জুন মঙ্গলবার বিকাল ৬টা পর্যন্ত মনোনয়ন দাখিল, সন্ধ্যা ৭টায় বাছাই এবং রাত ১০টা পর্যন্ত প্রত্যাহার।

কাউন্সিলের সংখ্যা হচ্ছে প্রতিটি ইউনিয়নে কমিটি ভুক্ত ৭১জন করে মোট ১৩টি ইউনিয়নে ৯২৩ জন সাথে আহবায়ক কমিটির ১৩ জন সর্বমোট ৯৩৬ জন। কাউন্সিলে ভোটার হচ্ছেন উপজেলা আহবায়ক কমিটির ১৩ জন, সাথে ১৩ ইউনিয়নের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক মিলে ২৬ জন। মোট ৩৯ জন। ছাপানো ব্যালেটের মাধ্যমে গোপন ভোটে এই ৩৯ জনের ভোটাধিকার প্রয়োগে উপজেলা সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক হওয়ার সাথে সাথে বর্তমান আহবায়ক কমিটি বিলুপ্ত হবে। অত:পর নির্বাচিতরা সাবেক আহবায়কের সাথে পরামর্শ করে ১০১ সদস্য বিশিষ্ট কুলাউড়া উপজেলা কমিটি গঠন করে মৌলভীবাজার জেলার অনুমোদন নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করবে। কাউন্সিলে ১৫ জুন কুলাউড়া স্কুল চৌমুহনীস্থ পালকী কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হবে। প্রধান অতিথি থাকবেন জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক এমপি এম নাসের রহমান, বিশেষ অতিথি থাকবেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান। সভাপতিত্ব করবেন উপজেলা বিএনপির আহবায়ক এডভোকেট এ.এন.এম আবেদ রাজা।

পোস্ট শেয়ার করুন

কুলাউড়া উপজেলা বিএনপির নেতা-কর্মীদের মধ্যে বিপুল উত্সাহ উদ্দীপনা আগামী শনিবার কুলাউড়ায় কাউন্সিল

আপডেটের সময় : ০৯:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ জুন ২০১৯

নাজমুল বারী সোহেল ঃদীর্ঘ কয়েক বছর পর অনুষ্ঠিত হচ্ছে কুলাউড়া উপজেলা বিএনপির কাউন্সিল । দলের এ উত্সবকে ঘিরে নেতা-কর্মীদের মধ্যে বিপুল উত্সাহ উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে। কাউন্সিলের দিকে তাকিয়ে আছে দলের নেতা-কর্মীসহ ‍কুলাউড়ার সাধারণ মানুষ । দীর্ঘদিনের দ্বন্ধ নিরসনের পর এখন ঐক্যবদ্ধ কুলাউড়া বিএনপি। দু’গুরুপে নেতাকর্মীরা এখন একসাথে কর্মসূচী পালন করছেন। এর আগে একটি গ্রুপের নেপথ্যে থাকতেন এম এম শাহীন। আর অন্য গ্রুপের নেতৃত্ব দিতেন কেন্দ্রীয় বিএনপির নেতা অ্যাডভোকেট আবেদ রাজা। দীর্ঘদিন থেকে কুলাউড়া বিএনপি চলছিল এভাবেই। কিন্তু গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এম এম শাহীন বিকল্পধারায় যোগ দেওয়ায় তার গ্রুপের নেতা-কর্মীরা সংবাদ সম্মেলন করে তাঁর সঙ্গ ত্যাগ করেন । তারপরই দীর্ঘদিনের দ্বন্ধ ও ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধ হয় কুলাউড়া বিএনপি। আগামী ১৫ই জুন ২০১৯ইং শনিবার কুলাউড়া উপজেলা বিএনপির কাউন্সিল । সোমবার দুপুরে উপজেলা বিএনপির কার্যালয় থেকে মনোনয়ন ফরম বিতরণ করেন কেন্দ্রীয় নেতা কুলাউড়া উপজেলা বিএনপির আহবায়ক এডভোকেট এ.এন.এম আবেদ রাজা। কার্যক্রম পরিচালনা করেন যুগ্ম আহবায়ক আলমগীর হোসেন ভুইয়া ও মোঃ রফিক আহমদ। নির্ধারিত ফি দিয়ে বিকাল ৪টা পর্যন্ত সভাপতি পদে মনোনয়ন সংগ্রহ করেন সাবেক সভাপতি, সাবেক পৌর মেয়র ও জেলা বিএনপির সদস্য কামাল উদ্দিন আহমদ জুনেদ, সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও পৌর প্যানেল মেয়র জয়নাল আবেদীন বাচ্চু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক জেলা বিএনপির সদস্য এম এ মজিদ, সাধারণ সম্পাদক পদে মনোনয়ন সংগ্রহ করেন সাবেক সাধারণ সম্পাদক, জেলা বিএনপির সদস্য বদরুজ্জামান সজল, রেদওয়ান খান, সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক জয়নাল আবেদীন খাঁন। সাংগঠনিক পদে মনোনয়ন পত্র গ্রহন করেন মইনুল হক বকুল, বদরুল হোসেন খাঁন, দেলোয়ার হোসেন, এডভোকেট আব্দুস সালাম ও মোঃ আব্বাছ উদ্দিন। কাউন্সিলের নির্বাচনী তফশীল অনুযায়ী ১১ জুন মঙ্গলবার বিকাল ৬টা পর্যন্ত মনোনয়ন দাখিল, সন্ধ্যা ৭টায় বাছাই এবং রাত ১০টা পর্যন্ত প্রত্যাহার।

কাউন্সিলের সংখ্যা হচ্ছে প্রতিটি ইউনিয়নে কমিটি ভুক্ত ৭১জন করে মোট ১৩টি ইউনিয়নে ৯২৩ জন সাথে আহবায়ক কমিটির ১৩ জন সর্বমোট ৯৩৬ জন। কাউন্সিলে ভোটার হচ্ছেন উপজেলা আহবায়ক কমিটির ১৩ জন, সাথে ১৩ ইউনিয়নের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক মিলে ২৬ জন। মোট ৩৯ জন। ছাপানো ব্যালেটের মাধ্যমে গোপন ভোটে এই ৩৯ জনের ভোটাধিকার প্রয়োগে উপজেলা সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক হওয়ার সাথে সাথে বর্তমান আহবায়ক কমিটি বিলুপ্ত হবে। অত:পর নির্বাচিতরা সাবেক আহবায়কের সাথে পরামর্শ করে ১০১ সদস্য বিশিষ্ট কুলাউড়া উপজেলা কমিটি গঠন করে মৌলভীবাজার জেলার অনুমোদন নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করবে। কাউন্সিলে ১৫ জুন কুলাউড়া স্কুল চৌমুহনীস্থ পালকী কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হবে। প্রধান অতিথি থাকবেন জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক এমপি এম নাসের রহমান, বিশেষ অতিথি থাকবেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান। সভাপতিত্ব করবেন উপজেলা বিএনপির আহবায়ক এডভোকেট এ.এন.এম আবেদ রাজা।