ঢাকা , রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুলাউড়া উপঃ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দরপত্র নিয়ে নাটকীয়তা

কুলাউড়া প্রতিনিধি:
  • আপডেটের সময় : ০৪:২৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০
  • / ৪২৪ টাইম ভিউ

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলা ৫০ শয্যা হাসপাতালের ২০২০-২১ অর্থ বছরের রোগীর পথ্য সামগ্রী সরবরাহ, মনোহরী ও বিবিধ দ্রব্য সামগ্রী সরবরাহ এবং রোগীদের ময়লা কাপড় ধোলাইয়ের নিমিত্তে আহবানকৃত দরপত্রে অনিয়ম ও নাটকীয়তার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে মৌলভীবাজার সিভিল সার্জন বরাবরে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।
জানা যায়, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: মো. নুরুল হক কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও তার আওতাধীন বিভিন্ন স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানে ২০২০-২১ অর্থ বছরের রোগীর পথ্য সামগ্রী সরবরাহ, মনোহরী ও বিবিধ দ্রব্য সামগ্রী সরবরাহ এবং রোগীদের ময়লা কাপড় ধোলাইয়ের নিমিত্তে প্রকৃত ব্যবসায়ী বা ঠিকাদারের নিকট হতে দরপত্র আহ্বান করেন। গত ০৫ এপ্রিল এই দরপত্র আহ্বান করা হয়। দরপত্র জমা দানের শেষ তারিখ ছিলো গত ২৬ আগস্ট।
আহ্বানকৃত দরপত্র অনুসারে রোগীর পথ্য সামগ্রী সরবরাহের জন্য ৫টি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান দরপত্র জমা করে। নিয়ম অনুযায়ি সর্বনিম্ন দরদাতাকে নির্বাচিত না করে ৪র্থ সর্বনিম্ন (২য় সর্বোচ্চ) দরদাতা শিউলী এন্টারপ্রাইজকে কাজ প্রদানের জন্য নির্বাচিত করা হয়। রোগীর পথ্য সামগ্রী সরবরাহ কাজে অনিয়ম করা হয়েছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে সর্বনিম্ন দরদাতারা জানান, কুলাউড়া হাসপাতাল থেকে দরপত্র জমাদানকারীদের কিছু না জানিয়ে গোপনে ঠিকাদার নির্বাচিত করে জেলায় প্রেরণ করা হয়। অভিযোগ করার ১৫ দিন অতিবাহিত হলেও সিভিল সার্জনের কার্যালয় থেকে কোন কিছু জানানো হয়নি। তাছাড়া বিগত বছরগুলোতে নিয়মতান্ত্রিকভাবে সর্বনিম্ন দরদাতাকেই কাজ দেয়া হয়েছে।
এছাড়া বিবিধ দ্রব্য সামগ্রী সরবরাহের জন্য ৩টি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এবং রোগীদের ময়লা কাপড় ধোলাইয়ের জন্য আহ্বানকৃত দরপত্রে ৩টি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান দরপত্র জমা দেন।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: মো. নুরুল হক জানান, এনিয়ে ৫ সদস্যের একটি কমিটি রয়েছে। জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্তৃক ঘোষিত বর্তমান বাজার দরের সাথে সামঞ্জস্য রেখে যিনি দরপত্র জমা দিয়েছেন তিনিই কাজ পাবেন।
এব্যাপারে মৌলভীবাজারে সিভিল সার্জন ডা. মো. তৌহিদ আহমদ জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগকারী মৌখিকভাবেও জানিয়ে গেছেন। কুলাউড়া থেকে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের নাম নির্বাচন করে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। তারপরও কাগজপত্র ও বিভিন্ন বিষয় বিবেচনা করে দেখবো।#

পোস্ট শেয়ার করুন

কুলাউড়া উপঃ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দরপত্র নিয়ে নাটকীয়তা

আপডেটের সময় : ০৪:২৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলা ৫০ শয্যা হাসপাতালের ২০২০-২১ অর্থ বছরের রোগীর পথ্য সামগ্রী সরবরাহ, মনোহরী ও বিবিধ দ্রব্য সামগ্রী সরবরাহ এবং রোগীদের ময়লা কাপড় ধোলাইয়ের নিমিত্তে আহবানকৃত দরপত্রে অনিয়ম ও নাটকীয়তার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে মৌলভীবাজার সিভিল সার্জন বরাবরে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।
জানা যায়, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: মো. নুরুল হক কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও তার আওতাধীন বিভিন্ন স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানে ২০২০-২১ অর্থ বছরের রোগীর পথ্য সামগ্রী সরবরাহ, মনোহরী ও বিবিধ দ্রব্য সামগ্রী সরবরাহ এবং রোগীদের ময়লা কাপড় ধোলাইয়ের নিমিত্তে প্রকৃত ব্যবসায়ী বা ঠিকাদারের নিকট হতে দরপত্র আহ্বান করেন। গত ০৫ এপ্রিল এই দরপত্র আহ্বান করা হয়। দরপত্র জমা দানের শেষ তারিখ ছিলো গত ২৬ আগস্ট।
আহ্বানকৃত দরপত্র অনুসারে রোগীর পথ্য সামগ্রী সরবরাহের জন্য ৫টি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান দরপত্র জমা করে। নিয়ম অনুযায়ি সর্বনিম্ন দরদাতাকে নির্বাচিত না করে ৪র্থ সর্বনিম্ন (২য় সর্বোচ্চ) দরদাতা শিউলী এন্টারপ্রাইজকে কাজ প্রদানের জন্য নির্বাচিত করা হয়। রোগীর পথ্য সামগ্রী সরবরাহ কাজে অনিয়ম করা হয়েছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে সর্বনিম্ন দরদাতারা জানান, কুলাউড়া হাসপাতাল থেকে দরপত্র জমাদানকারীদের কিছু না জানিয়ে গোপনে ঠিকাদার নির্বাচিত করে জেলায় প্রেরণ করা হয়। অভিযোগ করার ১৫ দিন অতিবাহিত হলেও সিভিল সার্জনের কার্যালয় থেকে কোন কিছু জানানো হয়নি। তাছাড়া বিগত বছরগুলোতে নিয়মতান্ত্রিকভাবে সর্বনিম্ন দরদাতাকেই কাজ দেয়া হয়েছে।
এছাড়া বিবিধ দ্রব্য সামগ্রী সরবরাহের জন্য ৩টি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এবং রোগীদের ময়লা কাপড় ধোলাইয়ের জন্য আহ্বানকৃত দরপত্রে ৩টি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান দরপত্র জমা দেন।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: মো. নুরুল হক জানান, এনিয়ে ৫ সদস্যের একটি কমিটি রয়েছে। জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্তৃক ঘোষিত বর্তমান বাজার দরের সাথে সামঞ্জস্য রেখে যিনি দরপত্র জমা দিয়েছেন তিনিই কাজ পাবেন।
এব্যাপারে মৌলভীবাজারে সিভিল সার্জন ডা. মো. তৌহিদ আহমদ জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগকারী মৌখিকভাবেও জানিয়ে গেছেন। কুলাউড়া থেকে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের নাম নির্বাচন করে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। তারপরও কাগজপত্র ও বিভিন্ন বিষয় বিবেচনা করে দেখবো।#