কুলাউড়ায় সীমান্ত এলাকায় অপরাধ কমাতে গণশুনানি

বৃহস্পতিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৭:২২ অপরাহ্ণ | 186 বার

কুলাউড়ায় সীমান্ত এলাকায় অপরাধ কমাতে গণশুনানি

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ার সীমান্তবর্তী শরীফপুর ইউনিয়নের চাতলাপুর চা-বাগানে মাদক, সন্ত্রাস, নাশকতা, চোরাচালান প্রতিরোধে জেলা প্রশাসন, পুলিশ ও বিজিবির সমন্বয়ে গণশুনানি অনুুষ্ঠিত হয়েছে।
৫ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে কুলাউড়া উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে অনুষ্ঠিত গণশুনানিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ টি এম ফরহাদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক (ডিসি) নাজিয়া শিরীন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপার ফারুক আহমদ পিপিএম-বার, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট তানিয়া সুলতানা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কুলাউড়া সার্কেল) সাদেক কাওসার দস্তগীর, জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হুমায়রা সুলতানা, সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজরাতুন নাঈম, এনএসআইয়ের জেলা উপ-পরিচালক মোঃ আবু আব্দুল্লাহ, কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইয়ারদৌস হাসান, চাতলাপুর চা-বাগানের ব্যবস্থাপক ইফতেখার এনাম।
এছাড়া বক্তব্য রাখেন কমলগঞ্জ থানার ওসি মো. আরিফুর রহমান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. শিমুল আলী, শরীফপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ জনাব আলী, কর্মধা ইউপি চেয়ারম্যান এম এ রহমান আতিক, টিলাগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল মালিক, চাতলাপুর চা-বাগানের ব্যবস্থাপক ইফতেখার এনাম, চাতলাপুর বিজিবি ক্যাম্পের সুবেদার মোস্তফা কবির, প্রেসক্লাব কুলাউড়ার সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী আবু সাঈদ ফুয়াদ, কালের কণ্ঠ প্রতিনিধি মাহফুজ শাকিল, সমকাল প্রতিনিধি সৈয়দ আশফাক তানভীরসহ এলাকার গণমান্য ব্যক্তিবর্গ।
গণশুনানিকালে সীমান্ত এলাকায় মাদক, সন্ত্রাস, নাশকতা, চোরাচালান প্রতিরোধসহ অপরাধ দমনে প্রশাসনকে সহযোগিতা করবেন বলে স্থানীয় এলাকাবাসী প্রতিশ্র“তি ব্যক্ত করেন। সীমান্ত এলাকা দিয়ে অবাধে ভারতীয় চাপাতা ও মাদক দেশের বিভিন্ন হাট-বাজারে সয়লাব হয়ে উঠেছে। ভারত থেকে অবাধে চোরাই পথে চা পাতা আসার কারণে দেশীয় চা শিল্পে ধ্বস নামছে। এতে চা-শ্রমিকসহ দেশের ওই শিল্প ক্ষতির সম্মুখীন হবে বলে আশঙ্কা করছেন তারা। এসময় এলাকাবাসী তাদের এলাকার সার্বিক বিষয়ের অন্যান্য সমস্যার কথাও অতিথিদের কাছে তুলে ধরেন এবং সমস্যা সমাধানে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবি জানান।
গণশুনানিতে এলাকাবাসীর বিভিন্ন সমস্যার কথা শুনে জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরীন ও পুলিশ সুপার ফারুক আহমদ বলেন, সীমান্ত এলাকায় অপরাধ প্রবণতা কমাতে সর্বপ্রথম যেটার প্রয়োজন সেটা হলো প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি ও জনগণকে সচেতন হতে হবে। জেলার মধ্যে এই প্রথম চাতলাপুর সীমান্ত এলাকায় গণশুনানি হয়েছে এবং পরবর্তীতে জেলার প্রতিটি সীমান্ত এলাকায় এরকম গণশুনানি অনুষ্ঠিত হবে। সবাই মিলে সচেতন হলে শুধু এক এলাকা নয় পুরো দেশ সামনের দিকে এগিয়ে যাবে।
এদিকে ভারত থেকে চোরাই পথে আসা চা-পাতা বন্ধ করতে সীমান্তে দায়িত্বরত বিজিবি সদস্যদের আরো সর্তক থাকতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। দেশের চা শিল্পকে রক্ষা করতে শুধু প্রশাসন নয় স্থানীয় জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে সকল শ্রেণী-পেশার মানুষকে সচেতন হয়ে সম্মিলিত ভাবে কাজ করতে হবে।



মন্তব্য করতে পারেন...

comments


নিজের বুকে গুলি চালানোর আগে ফেসবুকে যা লেখেন পুলিশ সদস্য কুদ্দুস

deshdiganto.com © 2019 কপিরাইট এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত

design and development by : TAP.Com