ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে… এই অভ্যাসগুলোর চর্চা নিয়মিত করা উচিৎ স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য থাকা জরুরি কেনো ? পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা

কুলাউড়ায় মনুনদী বেড়ীবাঁধ ভেঙ্গে বিলীন হয়ে যাচ্ছে কাউকাপন বাজার

ছয়ফুল আলম সাইফুলঃ
  • আপডেটের সময় : ০৪:০২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০১৯
  • / ১৫০৮ টাইম ভিউ

ছয়ফুল আলম সাইফুলঃ মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নে গত কয়েক দিনের অতিবৃষ্টি, ভারি বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের কারণে মনু নদের পানি ওঠানামা করছে। এ কারণে নদের প্রতিরক্ষা বাঁধের বিভিন্ন স্থানে ভাঙন দেখা দেয়। মনু নদের ভাঙনে শতাব্দী প্রাচীন কাউকাপন বাজারের বড় অংশের দোকানপাট সহ প্রায় ৭০০ ফুট নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে।

জানা গেছে, গত এক সাপ্তাহে ১৩টি দোকান নদে বিলীন হয়েছে। বিগত বছর নদের ভাঙনে এই বাজারের বড় অংশ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। ক্রমাগত ভাঙনের কারণে কাউকাপন বাজারে প্রতিরক্ষা বাঁধের ওপর দিয়ে যাওয়া শমশেরনগর-কুলাউড়া সড়কের কুণিমোড়া-তারাপাশা হয়ে রাজনগর যাওয়ার পাকা সড়কটি হুমকির মুখে পড়েছে। সড়কটি রক্ষা নিয়ে এলাকাবাসী শঙ্কায় পড়েছে। সড়কটি ভেঙে গেলে নদের পানি ঢুকে আশপাশের বিভিন্ন এলাকাসহ কমলগঞ্জ উপজেলার পতনউষার, মুন্সীবাজার এবং রাজনগর উপজেলার তারাপাশা, কামারচাক ইউনিয়নসহ মৌলভীবাজার শহর তলিয়ে যেতে পারে।

গত দুই বছরে বাজারটির অন্তত ৪৩টি দোকান নদে বিলীন হয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। তবে পানি উন্নয়ন বোর্ড মনে করছে, বর্তমানে কাউকাপন বাজারের প্রতিরক্ষা বাঁধটি দোকানপাটের কারণে ভেঙে যাচ্ছে। কারণ বাঁধের ওপর দোকানপাটগুলো পড়েছে। প্রতিরক্ষা বাঁধ ঘেঁষে দোকানপাট স্থাপন করা একেবারেই ঠিক হয়নি। বাঁধে অতিরিক্ত চাপ পড়ায় এটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বাঁধের পাশ থেকে দোকানপাট দ্রুত সরিয়ে নিতে হবে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) মৌলভীবাজারের নির্বাহী প্রকৌশলী রণেন্দ্র শংকর চক্রবর্তী বলেন, মৌলভীবাজার সদর উপজেলা, রাজনগর ও কুলাউড়া উপজেলার কাউকাপন বাজারসহ ৬৭টি স্থানে ভাঙন রোধ ও বাঁধ রক্ষণাবেক্ষণে এক হাজার কোটি টাকার প্রকল্প মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। কাউকাপন বাজার রক্ষায় গৃহীত প্রকল্প মন্ত্রণালয়ে অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে।

হাজীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল বাছিত বাচ্চু জানান বিগত কয়েক বছর থেকে ক্রমাগত ভাঙনের কারণে কাউকাপন বাজারে প্রতিরক্ষা বাঁধের ওপর দিয়ে যাওয়া শমশেরনগর-কুলাউড়া সড়কের কুণিমোড়া-তারাপাশা হয়ে রাজনগর যাওয়ার পাকা সড়কটি বর্তমানে হুমকির মুখে পড়েছে। সড়কটি ভেঙে গেলে নদের পানি ঢুকে আশপাশের বিভিন্ন এলাকাসহ কমলগঞ্জ উপজেলার পতনউষার, মুন্সীবাজার এবং রাজনগর উপজেলার তারাপাশা, কামারচাক ইউনিয়নসহ মৌলভীবাজার শহর তলিয়ে যেতে পারে।জরুরী ভিত্তিতে মৌলভীবাজারের পানি উন্নয়ন বোর্ডসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আর্কষণ করছি।

পোস্ট শেয়ার করুন

কুলাউড়ায় মনুনদী বেড়ীবাঁধ ভেঙ্গে বিলীন হয়ে যাচ্ছে কাউকাপন বাজার

আপডেটের সময় : ০৪:০২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০১৯

ছয়ফুল আলম সাইফুলঃ মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নে গত কয়েক দিনের অতিবৃষ্টি, ভারি বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের কারণে মনু নদের পানি ওঠানামা করছে। এ কারণে নদের প্রতিরক্ষা বাঁধের বিভিন্ন স্থানে ভাঙন দেখা দেয়। মনু নদের ভাঙনে শতাব্দী প্রাচীন কাউকাপন বাজারের বড় অংশের দোকানপাট সহ প্রায় ৭০০ ফুট নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে।

জানা গেছে, গত এক সাপ্তাহে ১৩টি দোকান নদে বিলীন হয়েছে। বিগত বছর নদের ভাঙনে এই বাজারের বড় অংশ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। ক্রমাগত ভাঙনের কারণে কাউকাপন বাজারে প্রতিরক্ষা বাঁধের ওপর দিয়ে যাওয়া শমশেরনগর-কুলাউড়া সড়কের কুণিমোড়া-তারাপাশা হয়ে রাজনগর যাওয়ার পাকা সড়কটি হুমকির মুখে পড়েছে। সড়কটি রক্ষা নিয়ে এলাকাবাসী শঙ্কায় পড়েছে। সড়কটি ভেঙে গেলে নদের পানি ঢুকে আশপাশের বিভিন্ন এলাকাসহ কমলগঞ্জ উপজেলার পতনউষার, মুন্সীবাজার এবং রাজনগর উপজেলার তারাপাশা, কামারচাক ইউনিয়নসহ মৌলভীবাজার শহর তলিয়ে যেতে পারে।

গত দুই বছরে বাজারটির অন্তত ৪৩টি দোকান নদে বিলীন হয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। তবে পানি উন্নয়ন বোর্ড মনে করছে, বর্তমানে কাউকাপন বাজারের প্রতিরক্ষা বাঁধটি দোকানপাটের কারণে ভেঙে যাচ্ছে। কারণ বাঁধের ওপর দোকানপাটগুলো পড়েছে। প্রতিরক্ষা বাঁধ ঘেঁষে দোকানপাট স্থাপন করা একেবারেই ঠিক হয়নি। বাঁধে অতিরিক্ত চাপ পড়ায় এটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বাঁধের পাশ থেকে দোকানপাট দ্রুত সরিয়ে নিতে হবে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) মৌলভীবাজারের নির্বাহী প্রকৌশলী রণেন্দ্র শংকর চক্রবর্তী বলেন, মৌলভীবাজার সদর উপজেলা, রাজনগর ও কুলাউড়া উপজেলার কাউকাপন বাজারসহ ৬৭টি স্থানে ভাঙন রোধ ও বাঁধ রক্ষণাবেক্ষণে এক হাজার কোটি টাকার প্রকল্প মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। কাউকাপন বাজার রক্ষায় গৃহীত প্রকল্প মন্ত্রণালয়ে অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে।

হাজীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল বাছিত বাচ্চু জানান বিগত কয়েক বছর থেকে ক্রমাগত ভাঙনের কারণে কাউকাপন বাজারে প্রতিরক্ষা বাঁধের ওপর দিয়ে যাওয়া শমশেরনগর-কুলাউড়া সড়কের কুণিমোড়া-তারাপাশা হয়ে রাজনগর যাওয়ার পাকা সড়কটি বর্তমানে হুমকির মুখে পড়েছে। সড়কটি ভেঙে গেলে নদের পানি ঢুকে আশপাশের বিভিন্ন এলাকাসহ কমলগঞ্জ উপজেলার পতনউষার, মুন্সীবাজার এবং রাজনগর উপজেলার তারাপাশা, কামারচাক ইউনিয়নসহ মৌলভীবাজার শহর তলিয়ে যেতে পারে।জরুরী ভিত্তিতে মৌলভীবাজারের পানি উন্নয়ন বোর্ডসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আর্কষণ করছি।