ঢাকা , রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
পর্তুগাল এ ফ্রেন্ডশিপ ক্রিকেট ক্লাবের জার্সি উন্মোচন লিসবনে আত্মপ্রকাশ হয় সামাজিক সংগঠন “গোলাপগঞ্জ কমিউনিটি কেয়ারর্স পর্তুগাল “ উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা

কুলাউড়ায় ব্যাডমিন্টন খেলার কথা বলে কিশোরকে গণবলৎকার

কুলাউড়া প্রতিনিধি:
  • আপডেটের সময় : ১১:১৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ৪ নভেম্বর ২০২০
  • / ৫২২ টাইম ভিউ

কুলাউড়ায় ১৬ বছরের এক কিশোরকে ৭ যুবক ও তাদের অপর ২-৩ সহযোগি মিলে জোরপূর্বক বলৎকারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় বলৎকারের শিকার কিশোর মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। ঘটনাটি ০২ নভেম্বর সোমবার রাতে সংঘটিত হয়। কিশোরের বাবা কুলাউড়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

লিখিত অভিযোগ থেকে জানান যায়, ঘটনার দিন রাত সাড়ে ৯টায় ওই বলৎকারের শিকার কিশোরকে ব্যাডমিন্টন খেলার কথা বলে কুলাউড়ার হাজিপুর বিলেরপাড় গ্রামের মো. তছির আলীর পুত্র আতিক মিয়া (১৮) খেড়টিলা নামক স্থানে নিয়া যায়। সেখানে তার সহযোগি ইয়ামিছ আলীর ছেলে আনছার মিয়া (২৯), কুতুব আলীর ছেলে মো. ছামাদ মিয়া (২৮), মৃত ইরফান আলীর ছেলে শফিক মিয়া (২৮), মৃত মাছিম মিয়ার ছেলে সুমন মিয়া (১৯), শওকত আলীর ছেলে পাপ্পু হোসেন (১৮), আলাউদ্দিন (১৮)সহ তাদের অপর ২-৩ জন সহযোগি মিলে কিশোরকে মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক বলৎকার করে। একপর্যায়ে কিশোরের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে বলৎকারকারীরা পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় কিশোরের পিতা তাকে উদ্ধার করে কুলাউড়া হাসপাতালে ভর্তি করেন। কিশোরের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এদিকে কিশোরের পিতা ০৩ নভেম্বর মঙ্গলবার রাতে কুলাউড়া থানায় ৭ জনের নামোল্লেখ করে আরও অজ্ঞাতনামা ২-৩ জনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. গোলাম কাওছার দস্তগীর জানান, কিশোরের পিতার লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ও মেডিকেল রিপোর্টপ্রাপ্তি সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।#

পোস্ট শেয়ার করুন

কুলাউড়ায় ব্যাডমিন্টন খেলার কথা বলে কিশোরকে গণবলৎকার

আপডেটের সময় : ১১:১৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ৪ নভেম্বর ২০২০

কুলাউড়ায় ১৬ বছরের এক কিশোরকে ৭ যুবক ও তাদের অপর ২-৩ সহযোগি মিলে জোরপূর্বক বলৎকারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় বলৎকারের শিকার কিশোর মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। ঘটনাটি ০২ নভেম্বর সোমবার রাতে সংঘটিত হয়। কিশোরের বাবা কুলাউড়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

লিখিত অভিযোগ থেকে জানান যায়, ঘটনার দিন রাত সাড়ে ৯টায় ওই বলৎকারের শিকার কিশোরকে ব্যাডমিন্টন খেলার কথা বলে কুলাউড়ার হাজিপুর বিলেরপাড় গ্রামের মো. তছির আলীর পুত্র আতিক মিয়া (১৮) খেড়টিলা নামক স্থানে নিয়া যায়। সেখানে তার সহযোগি ইয়ামিছ আলীর ছেলে আনছার মিয়া (২৯), কুতুব আলীর ছেলে মো. ছামাদ মিয়া (২৮), মৃত ইরফান আলীর ছেলে শফিক মিয়া (২৮), মৃত মাছিম মিয়ার ছেলে সুমন মিয়া (১৯), শওকত আলীর ছেলে পাপ্পু হোসেন (১৮), আলাউদ্দিন (১৮)সহ তাদের অপর ২-৩ জন সহযোগি মিলে কিশোরকে মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক বলৎকার করে। একপর্যায়ে কিশোরের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে বলৎকারকারীরা পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় কিশোরের পিতা তাকে উদ্ধার করে কুলাউড়া হাসপাতালে ভর্তি করেন। কিশোরের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এদিকে কিশোরের পিতা ০৩ নভেম্বর মঙ্গলবার রাতে কুলাউড়া থানায় ৭ জনের নামোল্লেখ করে আরও অজ্ঞাতনামা ২-৩ জনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. গোলাম কাওছার দস্তগীর জানান, কিশোরের পিতার লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ও মেডিকেল রিপোর্টপ্রাপ্তি সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।#