ঢাকা , রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুলাউড়ায় ফ্রি চক্ষু শিবিরের আয়োজন করলেন জেলা সেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি জিয়া

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০৯:৩৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ জুলাই ২০১৯
  • / ৩৬৫ টাইম ভিউ

কুলাউড়া উপজেলার দরিদ্র, অসহায় ও দু:স্থ পাঁচ শতাধিক রোগী ফ্রি চক্ষু চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করেন। এদের থেকে চোখে ছানি পড়া ১০০ জন গরীব রোগির অপারেশন করা হবে।

সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসী ও জেলা সেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি জিয়া উদ্দিন তফাদার জিয়ার উদ্যোগে ২৯ জুলাই সোমবার বেলা ১১টা থেকে ৩টা পর্যন্ত উপজেলার নিজামিয়া বিশকুটি এতিমখানা ও মাদরাসা প্রাঙ্গণে কুলাউড়া চক্ষু হাসপাতালের ব্যবস্থাপনায় এই ফ্রি চক্ষু শিবির অনুষ্ঠিত হয়। চক্ষু শিবিরে ১৫ জন চিকিৎসক সেবা প্রদান করেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কয়েক মাস আগে প্রবাসী জিয়া উদ্দিন জিয়ার বাবা মৌলভী মোঃ আব্দুল হামিদ চক্ষু রোগে আক্রান্ত হোন। দুই মাস আগে এই রোগের চিকিৎসা করতে গিয়ে নানা বিড়ম্বনা ও প্রচুর অর্থ খরচ হয় তাঁর পরিবারের। নিজেদের এই তিক্ত অভিজ্ঞতার কারণে প্রবাসী জিয়া উপলব্দি করেন স্থানীয় গরীব ও অসহায় মানুষদের জন্য ফ্রি চক্ষু শিবিরের আয়োজন করবেন। তাই তিনি দেশে এসে এই কর্মসূচির উদ্যোগ গ্রহণ করেন।
প্রবাসী জিয়ার বাবা মৌলভী মোঃ আব্দুল হামিদ চক্ষুশিবিরে উপস্থিত হয়ে বলেন, আমার চোখের চিকিৎসার সময় আমার ছেলে চক্ষু শিবির করার কথা বলে। আজ এই কর্মসূচির বাস্তবায়ন দেখে ভালো লাগছে।
প্রবাসী জিয়া উদ্দিন জিয়া বলেন, বাবার চোখের চিকিৎসা করাতে গিয়ে উপলব্দি হয় এতো ব্যয়বহুল চিকিৎসা গরীব মানুষ কিভাবে করবে? সেই উপলব্দি থেকেই আমি এই উদ্যোগটি গ্রহণ করি।

পোস্ট শেয়ার করুন

কুলাউড়ায় ফ্রি চক্ষু শিবিরের আয়োজন করলেন জেলা সেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি জিয়া

আপডেটের সময় : ০৯:৩৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ জুলাই ২০১৯

কুলাউড়া উপজেলার দরিদ্র, অসহায় ও দু:স্থ পাঁচ শতাধিক রোগী ফ্রি চক্ষু চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করেন। এদের থেকে চোখে ছানি পড়া ১০০ জন গরীব রোগির অপারেশন করা হবে।

সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসী ও জেলা সেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি জিয়া উদ্দিন তফাদার জিয়ার উদ্যোগে ২৯ জুলাই সোমবার বেলা ১১টা থেকে ৩টা পর্যন্ত উপজেলার নিজামিয়া বিশকুটি এতিমখানা ও মাদরাসা প্রাঙ্গণে কুলাউড়া চক্ষু হাসপাতালের ব্যবস্থাপনায় এই ফ্রি চক্ষু শিবির অনুষ্ঠিত হয়। চক্ষু শিবিরে ১৫ জন চিকিৎসক সেবা প্রদান করেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কয়েক মাস আগে প্রবাসী জিয়া উদ্দিন জিয়ার বাবা মৌলভী মোঃ আব্দুল হামিদ চক্ষু রোগে আক্রান্ত হোন। দুই মাস আগে এই রোগের চিকিৎসা করতে গিয়ে নানা বিড়ম্বনা ও প্রচুর অর্থ খরচ হয় তাঁর পরিবারের। নিজেদের এই তিক্ত অভিজ্ঞতার কারণে প্রবাসী জিয়া উপলব্দি করেন স্থানীয় গরীব ও অসহায় মানুষদের জন্য ফ্রি চক্ষু শিবিরের আয়োজন করবেন। তাই তিনি দেশে এসে এই কর্মসূচির উদ্যোগ গ্রহণ করেন।
প্রবাসী জিয়ার বাবা মৌলভী মোঃ আব্দুল হামিদ চক্ষুশিবিরে উপস্থিত হয়ে বলেন, আমার চোখের চিকিৎসার সময় আমার ছেলে চক্ষু শিবির করার কথা বলে। আজ এই কর্মসূচির বাস্তবায়ন দেখে ভালো লাগছে।
প্রবাসী জিয়া উদ্দিন জিয়া বলেন, বাবার চোখের চিকিৎসা করাতে গিয়ে উপলব্দি হয় এতো ব্যয়বহুল চিকিৎসা গরীব মানুষ কিভাবে করবে? সেই উপলব্দি থেকেই আমি এই উদ্যোগটি গ্রহণ করি।